ফিরে দেখা ২০১৬

আলোচিত আন্তর্জাতিক ঘটনা সমুহ

  মো. জুবাইর

০১ জানুয়ারি ২০১৭, ২০:৪৮ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৭, ২১:৩০ | অনলাইন সংস্করণ

বিদায় নিয়েছে বছর ২০১৬। বিশ্ব ব্যাপী বছরটি পূর্ণ ছিল নানান আলোচনায়। ট্রাম্পের জয়, মোদির রুপি বাতিল ও ক্যাস্ত্রোর বিদায় ইত্যাদি খবরে ব্যাতীব্যস্ত ছিল সকল দেশের সংবাদ মাধ্যমগুলো। আমাদের সময়’র অনলাইন পাঠকদের জন্য ফিরে দেখা ২০১৬’র আজকের আয়োজন আলোচিত আন্তর্জাতিক ঘটনা সমুহ। লিখেছেন মো. জুবাইর।

ট্রাম্পের বিজয়
২০১৬ সালের সবচেয়ে বড় আলোড়ন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিজয়। সম্পুর্ণ রাজনৈতিক ঘরানার বাইরের একজন ব্যক্তির মার্কিন মসনদে বসা বড় একটা নজির। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে খুব কম সংখ্যক ব্যক্তি এই ক্ষমতা অর্জন করেছিলেন। ট্রাম্প তাদের মধ্যে একজন।

যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হতে তাকে ঝাক্কিও পোহাতে হয়েছে অনেক। শক্ত প্রতিপক্ষ হিলারিকে মাত দিতে টানা ১৬ মাসের প্রচার প্রচারণা চালাতে হয়েছে তাকে। তাছাড়াতো নারী কেলেঙ্কারীর মত ঘটনা ছিলই। কিন্তু সব কিছুর শেষে ট্রাম্পের জয় নিঃসন্দেহে সারা দুনিয়ার মানুষের সবচেয়ে বেশি মনোযোগ টেনেছে।

ক্যাস্ত্রোর মৃত্যু
কিউবার স্থানীয় সময় গত ২৫ নভেম্বর চির বিদায় নেন কিংবদন্তী বিশ্ববিপ্লবী ফিদেল ক্যাস্ত্রো। ভগ্নস্বাস্থ্য নিয়ে চলতে চলতে ৯০ বছর বয়সে বিদায় নিলেও, যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় কোলের মধ্যে কমিউনিস্ট রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করে তা টিকিয়ে রাখার জন্য রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের গবেষণার বিষয় হয়ে থাকবেন তিনি। দেশে বিরোধীদের চোখে তিনি ‘স্বৈরাচার, কট্টর পুঁজিবাদী দেশগুলোর কাছে তার পরিচয় ‘একনায়ক। বিপরীতে বন্ধু রাষ্ট্রগুলোর কাছে তিনি ‘আস্থার প্রতীক, অনুসারীদের কাছে তিনি ‘এল কমান্দান্তে (দি কমান্ডার)’, মুক্তি সংগ্রামী সাধারণ মানুষের কাছে তিনি ‘কিংবদন্তী’।

সু চি-র মতগ্রহণ ও রোহিঙ্গা নির্যাতন
মিয়ানমারে প্রায় অর্ধশতকের সামরিক শাসনের অবসান ঘটিয়ে চলতি বছরের শুরুতেই ক্ষমতা হাতে নেন নেন শান্তিতে নোবেল জয়ী অং সাং সু চি। তবে সু চির মতগ্রহণের পরও পরিবর্তন হয়নি রোহিঙ্গাদের ভাগ্য। বরং গত ৯ অক্টোবর রাখাইন রাজ্যে পুলিশের একটি তল্লাশি চৌকিতে হামলার প্রেক্ষিতে সন্ত্রাসী নিধনের নামে কয়েকশ রোহিঙ্গাকে হত্যা করে সেনাবাহিনী।

মোদির রুপি বাতিল
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৮ নভেম্বর আচমকা এক সিদ্ধান্তে  ভারতীয় ৫০০ রুপি ১০০০ রুপির নোট বাতিলের ঘোষণা দেন। পরদিন থেকে দেশটিতে শুরু হয় জনসাধারনের চরম দুর্ভোগ। ব্যাংকে নোট সংকট আর পুরোনো নোট বদলের জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়। নোট বদলের দীর্ঘ লাইন, লাইনে দাঁড়িয়ে অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর ঘটনা হয়েছে সংবাদের শিরোনাম। সঙ্কটে পড়েন বিদেশি পর্যটকরাও।

তুরস্কে ব্যর্থ সেনা অভ্যুত্থান
গোটা বছর জুড়েই তুরস্কে চলছে উত্তেজনা। একের পর এক জঙ্গি হামলায় বার বার রক্তাক্ত হয়েছে তুরস্কের রাজপথ। বছরের মাঝামাঝি দেশটিতে সেনা অভুথ্যানের চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়। জুলাইয়ের ১৬ তারিখে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোয়ান অবকাশে থাকাকালীন একদল বিপথগামী সেনা এই ব্যর্থ অভ্যুত্থানের চেষ্টা চালায়। পরে সরকারের পক্ষে রাজপথে জনতা ও পুলিশ সদস্যরা অবস্থান নিয়ে আটকে দেয় বিদ্রোহী সেনা সদস্যদের। অভ্যুত্থানচেষ্টায় জড়িত থাকার অপরাধে হাজার হাজার সেনা সদস্য, শিক্ষক ও সাধারণ মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভ্যুত্থান চেষ্টার পর দেশটিতে মৃত্যুদণ্ড প্রথাও ফিরিয়ে আনা হয়।

বাস্তিল হামলা
ফ্রান্সের বাস্তিলে মর্মান্তিক সন্ত্রাসী হামলাও ২০১৬ সালের আলোচিত ঘটনাগুলির মধ্যে একটি। ফ্রান্সের নিস শহরে বাস্তিল উৎসবের আতশবাজি প্রদর্শনীতে জনতার ওপর দ্রুতগতির লরি-হামলায় নিহত হয় ৮৪ জন। প্যারিসে ইসলামী স্টেট জঙ্গিদের হামলায় ১৩০ জন নিহত হওয়ার আট মাসের মাথায় ফ্রান্সজুড়ে জরুরি অবস্থার মধ্যেই এ ঘটনা ঘটে।

কোণঠাসা আইএস  
বিগত বছরগুলোর তুলনায় বিশ্বে আতঙ্ক সৃষ্টিকারী জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) চলতি বছরে ছিল বেশ অনেকটাই কোণঠাসা। বছরটিতে ১৬ শতাংশ অঞ্চলে দখলদারিত্ব হারায় আইএস। বছরের মাঝামাঝি সময়ে কুর্দি বাহিনীর হাতে সিরিয়ার কৌশলগত শহর মানবিজের নিয়ন্ত্রণ হারায় আইএস। প্রায় একই সময় তল্পিতল্পা গুটিয়ে ইরাকের ফালুজা থেকেও বিদায় নিতে হয় সন্ত্রাসবাদী এই সংগঠনটিকে।

কাশ্মির সীমান্তে উত্তেজনা
ভারত ও পাকিস্তানের কাশ্মির সীমান্তে উত্তেজনা নতুন কিছু নয়। তবে এই বছরের শেষার্ধে এসে কাশ্মির সীমান্তে উত্তেজনার পারদ যেনো লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে। সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ রেখা দুই পক্ষকে লক্ষ্য করে গুলি চালিয়েছে দুই দেশের সেনাবাহিনী। পাকিস্তানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডন দাবি করেছে, দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি হামলায় ১০ বেসামরিকসহ ২০ জন নিহত হয়েছে। যদিও পাকিস্তানের হামলায় ভারতীয় সেনা মৃত্যুর খবর কখনোই স্বীকার করেনি ভারত। মূলত জুলাই মাসে পাঠানকোটের সেনাঘাঁটিতে জঙ্গি হামলা এবং পরবর্তীতে হিজবুল নেতা বুরহান ওয়ানিকে কথিত এনকাউন্টারে হত্যার পর থেকেই ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা বাড়তে থাকে। সাম্প্রতিক উরি সেনাঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার পর আবারও জয়েশ ই মোহাম্মদের সংশ্লিষ্টতার প্রসঙ্গ তুলে পাকিস্তানকে দায়ী করতে শুরু করে ভারত।

ব্রেক্সিট
বছরের মাঝখানে ব্রিটেন সম্পর্ক ছেদ করে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে। যা বদলে দিয়েছে ইউরোপ এবং বাকি বিশ্বের আগামী দিনের রাজনীতিকে। ২৩ জুন অনুষ্ঠিত এই গণভোটের ফল কেবল যুক্তরাজ্যের ভাগ্যে একটি বাজে সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন বিশ্বের ক্ষমতাধর রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ। তবে এখনই যে তারা সম্পুর্ণরুপে ইইউ থেকে বেরিয়ে আসতে পারবে তা কিন্তু নয়। পুরো প্রক্রিয়া শেষ হতে সময় লাগবে ২০২০ সালের সাধারন নির্বাচন পর্যন্ত।

পানামা কেলেঙ্কারি
বছরের ৩ এপ্রিল মধ্য হঠাৎই বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানে কাঁপন ধরায় পানামা কেলেঙ্কারি। বিশ্বের বিভিন্ন পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কর ফাঁকির নথি ফাঁস হয়ে যায়। পানামা পেপারস মূলত ১১ দশমিক ৫ মিলিয়ন (১ কোটি ১৫ লাখ নথিপত্র) এবং ২.৬ টেরাবাইট তথ্য যা পানামার আইনি প্রতিষ্ঠান মোসাক ফনসেকার কাছে ই-মেইল, আর্থিক বিবরণী, পাসপোর্ট এবং করপোরেট নথি আকারে সংরক্ষিত ছিল। এসব নথি থেকে দেখা গেছে, বিশ্বের প্রেসিডেন্ট কিংবা প্রধানমন্ত্রী, প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ, ক্রীড়া ও চলচ্চিত্র তারকারাও দেশে কর ফাঁকি দিতে মোসাক ফনসেকাকে ব্যবহার করেছেন।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে