মাদ্রিদে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালন

  কবির আল মাহমুদ, স্পেন

২২ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৭:৪৪ | অনলাইন সংস্করণ

‘নিরাপদ অভিবাসন যেখানে টেকসই উন্নয়ন সেখানে’— এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে বাংলাদেশ দূতাবাসে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উদ্‌যাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, কমিউনিটির নেতা,  পেশাজীবী, সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীসহ প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করেন যথাক্রমে বাণিজ্যিক কাউন্সিলর নাভিদ শফিউল্লাহ ও প্রথম সচিব (শ্রম) শরিফুল ইসলাম। এরপর কোরআন তিলাওয়াত করেন সাইফুল ইসলাম।

দূতালয় প্রধান হারুন আর রশিদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্পেনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার।

তিনি বলেন, দেশের অর্থনীতিতে স্পেন প্রবাসী বাঙালিদের পাঠানো বৈদেশিক মুদ্রার প্রভাব তুলে ধরে বাংলাদেশের জন্য আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের তাৎপর্য ব্যাখ্যা করে বলেন। বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের ব্যাপক অবদান রয়েছে। প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সের কারণে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এখন সকল রেকর্ড অতিক্রম করেছে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারকে প্রবাসী বান্ধব সরকার উল্লেখ করে বলেন, প্রবাসীদের বিভিন্ন সুবিধা প্রদানের জন্য বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, স্পেনে বসবাসরত প্রবাসীদের  দূতাবাসের সেবা সহজে প্রদান করার জন্য  প্রবাসী সেবাকেন্দ্র স্থাপন করা হয়েছে। এসব সেবাকেন্দ্র থেকে প্রবাসীরা পাসপোর্ট রি-ইস্যুসহ বিভিন্ন রকম প্রয়োজনীয় সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। প্রবাসী বাংলাদেশিদের যেকোনো সমস্যা সমাধানের জন্য দূতাবাসের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা প্রস্তুত রয়েছেন। প্রবাসীদের আরও ভালো সেবা দেওয়ার জন্য দূতাবাসকে দুর্নীতি ও দালাল মুক্ত করা হয়েছে। দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে প্রবাসীদের সঙ্গে ভালো আচরণের জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রবাসী কমিউনিটির মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্পেন বাংলা প্রেস ক্লাব সভাপতি সাহাদুল সুহেদ, আওয়ামীলীগ নেতা এ এস আই রবিন, বদরুল মাস্টার, আইনজীবী তারেক হোসাইন, ব্যবসায়ী বদরুল কামালী, জাকির হোসাইন, আইয়ুব আলী সোহাগ, বুরহান উদ্দিন, হোসেন আহমেদ, দবির তালুকদার, আব্দুল মুনিম, কাজী পারভেজ ও এনাম আলী খান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ তহবিলের সদস্য হওয়ার প্রক্রিয়া এবং সদস্যদের জন্য নির্ধারিত সুযোগ-সুবিধা নিয়ে বিশদভাবে আলোচনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) শরিফুল ইসলাম।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে