শ্রীলংকায় টাইগারদের ড্রেসিং রুমে ভাঙচুর

  অনলাইন ডেস্ক

১৭ মার্চ ২০১৮, ১০:৫৮ | আপডেট : ১৭ মার্চ ২০১৮, ১৫:৪৯ | অনলাইন সংস্করণ

শ্রীলংকার বিপক্ষে উত্তেজনাকর ম্যাচে নাটকীয় জয় বাংলাদেশের। এ জয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে যায় টাইগাররা। তবে টাইগারদের বিপক্ষে হেরে কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ছড়িয়ে পড়ে উত্তেজনা। এর রেশ গড়ায় টাইগারদের ড্রেসিং রুম পর্যন্ত।

উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ দলের ড্রেসিং রুমে ভাঙচুর করা হয়েছে বলে জানিয়েছে শ্রীলংকান পত্রিকা কলম্বো গেজেট। তবে কে বা কারা ড্রেসিং রুমে ভাঙচুর করেছে তা জানায়নি পত্রিকাটি।

প্রতিবেদনে ড্রেসিং রুমের সামনে ভাঙা গ্লাস পড়ে থাকার ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে।

কলম্বোতে কাজ করা বিবিসির রিপোর্টার আজম আমিনও তার ফেসবুকে দুটি ছবি পোস্ট করে লিখেছেন,

“Bangladesh dressing room door at R Premadasa stadium shattered during celebrations following heated conclusion to match against Sri Lanka #Cricket.”

“শ্রীলংকার বিপক্ষে উত্তেজনাকর ম্যাচ শেষে প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে উদযাপনের সময় বাংলাদেশের ড্রেসিং রুমের দরজার গ্লাস ভাঙা পাওয়া যায়।”

ভারতীয় গণমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের খবরে বলা হয়েছে, শ্রীলংকার বিপক্ষে জয় উদযাপন করতে গিয়েই বাংলাদেশের একজন খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে ড্রেসিং রুমের দরজা ভাঙার অভিযোগ রয়েছে।

বিষয়টি নজরে এসেছে ম্যাচ রেফারি ক্রিস ব্রডেরও। তিনি সিসিটিভি ফুটেজ দেখেছেন। একই সঙ্গে সেখানে দায়িত্বে থাকা স্টাফদের সঙ্গেও কথা বলে জানার চেষ্টা করেছেন ঘটনার জন্য কে বা কারা দায়ী। তবে এখনই কোনো সিদ্ধান্ত না নিয়ে আরও ফুটেজ সরবরাহের জন্য কর্তৃপক্ষকে বলেছেন।

এদিকে ক্রিকইনফো বলছে, ড্রেসিং রুমের ভেতর থেকে কেউ ভেঙে থাকতে পারে। জয়ের কারণে ‘অতি উচ্ছাস’ থেকে এমনটি হয়ে থাকতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি।

বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে বলেও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

ত্রিদেশীয় টি২০ সিরিজ নিদাহাস ট্রফির অলিখিত সেমিফাইনালে শেষ ওভারে জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ১২ রান। নির্ধারিত ওভারে ১ বল হাতে রেখেই ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

শেষ ওভারে বোলিংয়ে এসে প্রথম দুই বল নো করেন ইসু্র উদ্যান। কিন্তু ফিল্ড আম্পায়ার নো বলের কল করেননি। যে কারণে প্রতিবাদ করেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা। আম্পায়ারকে বিষয়টি বলা হলেও তাতে কান দেননি। আম্পায়ারদের এমন সিদ্ধান্তে একটা সময়ে মাঠের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা সাকিব আল হাসান, মাঠে থাকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং রুবেল হোসেনকে খেলা ছেড়ে চলে আসতে বলেন। কিন্তু রিয়াদ নিজের উপর আস্থা রেখে ম্যাচ শেষ করতে ফের ব্যাটিং করেন।

ওভারের প্রথম দুই বলে কোন রান না করেই এক উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। জয়ের জন্য শেষ ৪ বল দরকার ১২ রান। ওভারের তৃতীয় বলে চার মেরে জয়ের পথ সহজ করেন রিয়াদ। পরের বলে রুবেলকে সঙ্গে নিয়ে ডাবল নেন। পঞ্চম বলে ব্যাকওয়ার্ড স্কয়ার লেগের উপর দিয়ে ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেন তিনি। তার ছক্কায় জিতে যায় দেশ। বাংলাদেশ চলে যায় ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে। আগামীকাল ১৮ মার্চ ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে খেলবে বাংলাদেশ।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে