জয় দিয়ে শেষ করতে চায় আবাহনী

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

১৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ মে ২০১৮, ০৭:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

এএফসি কাপ মিশন সুখকর হল না বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন আবাহনীর। দলটির লক্ষ্য ছিল অন্তত গ্রুপ পর্বের বাধা পেরিয়ে পরবর্তী রাউন্ডে যাওয়ার; কিন্তু সেই স্বপ্ন আগেই ধূলিসাৎ হয়ে গেছে। টুর্নামেন্টটি এখন কেবলই নিয়মরক্ষার আকাশি-নীলদের। আজ শেষ ম্যাচ আবাহনীর, যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ ভারতের বেঙ্গালুরু এফসি। ঘরের মাঠ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সোয়া সাতটায় দুদলের এ ম্যাচটি শুরু হবে।

এএফসি কাপে এবার ‘ই’ গ্রুপ থেকে খেলেছে আবাহনী। চার দলের গ্রুপে আবাহনী ছাড়াও মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্ট ক্লাব এবং ভারতের দুটি ক্লাব বেঙ্গালুরু এফসি ও আইজল ফুটবল ক্লাব খেলেছে। হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে দলগুলো পরস্পরের মোকাবিলা করেছে। ইতোমধ্যে পাঁচ ম্যাচ খেলা হয়ে গেছে আবাহনীর। এক জয় এবং এক ড্রয়ে দলটির সংগ্রহ মাত্র ৪ পয়েন্ট। ৫ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে নিউ রেডিয়েন্ট এবং বেঙ্গালুরু।

৩৬টি ক্লাব ৯ গ্রুপে ভাগ হয়ে এএফসি কাপে লড়ছে। গ্রুপ পর্ব থেকে ১১টি ক্লাব যাবে নকআউট পর্বে। নয় গ্রুপেরই শীর্ষ পয়েন্টধারী নয়টি দল এবং সেরা দুই রানার্সআপ। সেই হিসাবে নকআউট পর্বে যাওয়ার দারুণ সুযোগ রয়েছে বেঙ্গালুরু ও নিউ রেডিয়েন্টের। বাংলাদেশের ক্লাব আবাহনীর গ্রুপে দ্বিতীয় সেরারও সুযোগ নেই।

আবাহনী কেবল আইজল ফুটবল ক্লাবের বিপক্ষেই জিতেছে। ড্রও করেছে এই দলটির বিপক্ষেই। শুরুতে ৪ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্বে যাওয়ার দৌড়ে কিছুটা সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রেখেছিল সাইফুল বারী টিটুর দল। কিন্তু গত ম্যাচে মালদ্বীপের মাঠে গিয়ে ৫-১ গোলের বড় ব্যবধানে হেরে শেষ আশাটুকু জলাঞ্জলি দিয়ে এসেছে রায়হান, ওয়ালী, সানডেরা।

ঘরের মাঠে নিউ রেডিয়েন্টের বিপক্ষে ১-০ গোলের হার দিয়ে এএফসি মিশন শুরু হয় আবাহনীর। সেই দলই অ্যাওয়ে ম্যাচে রেডিয়েন্টের কাছে হেরে এসেছে ৫-১ গোলের বড় ব্যবধানে। আর বেঙ্গালুরুর কাছে অ্যাওয়ে ম্যাচে হেরেছে ১-০ গোলের ব্যবধানে। আজ সেই বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে আবারও খেলতে নামছে আবাহনী। নিয়মরক্ষায় পরিণত হওয়া ম্যাচটিতে জয় ভিন্ন কিছুই ভাবছেন না আবাহনীর কোচ সাইফুল বারী। জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী দলের খেলোয়াড় রায়হান হাসানও।

কার্ড সমস্যায় বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে খেলতে পারবেন না আবাহনীর তিন খেলোয়াড় এলিসন, সানডে এবং ফাহাদ। দলের গুরুত্বপূর্ণ এ তিন খেলোয়াড় না থাকায় কিছুটা খর্বশক্তিতে পরিণত হয়েছে দল। কাল ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এ কথা অকপটে স্বীকার করে নিয়েছেন সাইফুল বারী। একই সঙ্গে এ-ও বলেছেন, রেডিয়েন্টের বিপক্ষে আমরা যে ৫-১ গোলে হেরেছি ওই হারে সত্যিই আমি হতাশ। এখন আমার দল যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে, খুব বেশিকিছু বলতে চাই না। মাঠে নেমে করে দেখাতে চাই।

বেঙ্গালুরু যখন আবাহনীর বিপক্ষে মাঠে নামবে, একই দিন আইজলের মাঠে খেলবে নিউ রেডিয়েন্ট। নকআউট পর্বে আবাহনীকে যেমন হারাতে হবে বেঙ্গালুরুকে, তেমনি চোখ রাখতে হবে আইজল-রেডিয়েন্ট ম্যাচের দিকেও। তবে এসব ভাবনায় রাখতে চাচ্ছেন না বেঙ্গালুরু কোচ আলবার্ট রোকা, ‘আবাহনী ভালো দল। আমরা জয়ের জন্য মাঠে নামব। আগামীকাল (আজ) আমাদের শেষ ম্যাচ। মাঠে নামতে ছেলেরা প্রস্তুত।’ কোচের সুরে সুর মেলান সংবাদ সম্মেলনে আসে বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক রাহুল শংকর বিকি, ‘আগামীকাল (আজ) আমাদের শেষ ম্যাচ। আমরা জয় দিয়ে গ্রুপ পর্ব শেষ করতে চাই।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে