‘চাচা-চাচীরা বলেছিলেন কালো হয়ে যাবি, কেউ বিয়ে করবে না’

  ক্রীড়া ডেস্ক

২৯ জুন ২০১৮, ১১:৫৬ | আপডেট : ৩০ জুন ২০১৮, ০১:০৯ | অনলাইন সংস্করণ

বিখ্যাত টেনিস প্লেয়ার সানিয়া মির্জা। ভারতের এই টেনিস প্লেয়ার নিজের খেলার জীবন সম্পর্কে জানিয়েছেন। স্মরণ করেছেন তার বাবা-মা’র অবদানের কথাও। তিনি জানান, যখন তিনি টেনিস খেলা শুরু করেছিলেন তখন লোকেরা তাকে নিয়ে উপহাস করত, এমনকি অনেকে ভালো-মন্দও শুনিয়েছে তাকে।

সানিয়া বলেন, ‘আমি ছয় বছর বয়স থেকে টেনিস খেলতে শুরু করেছি, সেই সময় হায়দ্রাবাদে কোনো মেয়ে টেনিস খেলছে, এমন ঘটনাকে সাধারণভাবে নেওয়া হতো না। আমার বাবা ক্রিকেট খেলতেন, সেই সুবাদে আমি ক্রিকেট খেলোয়াড়ের পরিবারের মেয়ে।’

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সংযুক্ত রাষ্ট্রের নারীদের নিয়ে গান ‘মুঝে হক হ্যায়’-এর লনচিং অনুষ্ঠানের এক বক্তব্য এসব কথা সানিয়া মির্জা।

ছয়টি গ্রান্ড স্ল্যাম পুরস্কার বিজয়ী এই খেলোয়াড় বলেন, “আমার বাবা-মা যখন বলেছিলেন, ও (সানিয়া) টেনিস খেলতে যাচ্ছে তখন আমার চাচা-চাচী বলেছিলেন ‘কালো হয়ে যাবি, কেউ বিয়ে করবে না।’”

সানিয়া বলেন, ‘আমার বাবাই আমার সবচেয়ে বড় হিরো। তিনি সব ঝড়ের মুখোমুখি হয়েছিলেন। তারা আমার বাবাকে নিয়েও উপহাস করত; বলত, ‘কি ভাবছো, তোমার মেয়ে মার্টিনা হিঙ্গিস হবে?’ আর ভাগ্য দেখুন, পরবর্তীকালে আমি নিজের তিনটি গ্রান্ড স্ল্যাম মার্টিনা হিঙ্গিসের বিরুদ্ধেই জিতেছি।’

এই অনুষ্ঠানে সানিয়া টেনিসে পুরস্কার স্বরূপ প্রাপ্ত সম্পদের পরিমাণ যাতে পুরুষ ও নারীদের জন্য সমান হয় সেই বিষয়েও কথা বলেছেন। তিনি বলেন, ‘আজ সমান পুরস্কারের জন্য আমাদের লড়াই করতে হয়, একজন টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে কেন পুরুষদের সমান সম্পদ মেয়েদের পাওয়া উচিত, তার জন্য আমাদের কারণ জানাতে হয়। এর মানে আজও আমরা সমান নই, পৃথিবীর সর্বত্রই তা প্রযোজ্য। শুধুমাত্র ভারতেই নয়।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে