sara

কেউ পাত্তা দেয় না ম্যারাডোনাকে!

  অনলাইন ডেস্ক

১১ আগস্ট ২০১৮, ১২:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

রাশিয়া বিশ্বকাপে ভরাডুবির পর মেসি বাহিনীকে বিনা বেতনে কোচিং করানোর দায়িত্ব নিতে চান বলে জানিয়েছিলেন আর্জেন্টাইন ফুটবল দ্য গ্রেট দিয়েগো ম্যারাডোনা। কেননা ১৯৮৬ সালের পর গত ৩২ বছর ধরে শিরোপাহীন লাতিন আমেরিকার এই দেশটি। নিজের জীবদ্দশায় একটি শিরোপা দেখতে মরিয়া এই কিংবদন্তি। কিন্তু তাকে কেউ পাত্তা দিচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন ম্যারাডোনা নিজেই।

আর্জেন্টিনার সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়, দেশটির গণমাধ্যম ও ফুটবলবোদ্ধাদের প্রশ্ন ছুড়েছেন ম্যারাডোনা। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ক্ষোভ প্রকাশ করে একটি দীর্ঘ পোস্টও লিখেছেন তিনি।

পোস্টে ম্যারাডোনা লিখেছেন,  'জাতীয় দলের প্রতি পূর্ণ সম্মান রেখে বলছি, কিছু সাংবাদিক যে আমাকে আর্জেন্টিনার সম্ভাব্য কোচের মধ্যে রাখে না। এতে আমি হতাশ। শাভো ফাকসের (আর্জেন্টিনার স্বনামধন্য ক্রীড়া সাংবাদিক) কথাই ধরুন। উনি তো কখনো আমার নাম সম্ভাব্য প্রার্থীদের মধ্যে রাখছেন না। আমার খেলোয়াড় জীবন থেকে তার সাংবাদিকতার সম্পর্কে জানি। সে সময় তিনি আমাকে নিয়ে লিখতেন। কিন্তু বর্তমানে তিনি এমন ভান করছেন যেন আমাকে চেনেনই না।'

তিনি লিখেছেন, ‘এমন ব্যর্থ অনেক কোচই হয়েছে। তাদেরকে নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। কিন্তু আমাকে কেউ পাত্তা দিচ্ছে না।'

তবে বিভিন্ন পরিসংখ্যান ঘেঁটে দেখা গেছে, কোচ হিসেবে ম্যারাডোনার পারফরমেন্স তেমন ভালো নয়। আর্জেন্টিনা জাতীয় দল ছাড়াও চারটি ক্লাবের কোচ ছিলেন তিনি। কিন্তু নিজের স্থানে শক্ত হতে পারেননি এই কিংবদন্তি ফুটবলার।

কোচ হিসেবে ম্যারাডোনার সাফল্য ছিল শুধুমাত্র ২০১০ সালে। মেসিদের কোয়ার্টার পর্বে নিয়ে গিয়েছিলেন ৮৬-র শিরাপা জেতা এই খেলোয়াড়। কিন্তু কোয়ার্টার ফাইনালে জার্মানির কাছে ৪ গোল হজম করে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয় ডি মারিয়ারা। পরে দলের এমন পারফরম্যান্সে ম্যারাডোনা নিজেই কোচের পদটি ছেড়ে দেন।

এমনকি ২০১২ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ক্লাব আল-ওয়াসল থেকে ম্যারাডোনা এক বছরের মাথায় ছাঁটাই হয়েছিলেন। পরে আমিরাতের দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব আল ফুজাইরার দায়িত্ব নেন তিনি। কিন্তু ঘটনার মোড়গুলো সবসময়ই এক। কোনখানেই থিতু হতে পারেননি দিয়েগো ম্যারাডোনা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে