পাকিস্তানে খেলার আমন্ত্রণ পেলেন জাতীয় হকি দলের ২ তারকা

  মামুন হোসেন

১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৪০ | অনলাইন সংস্করণ

পাকিস্তানের টুর্নামেন্টে খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় হকি দলের দুই তারকা ডিফেন্ডার ফরহাদ আহমেদ শিতুল এবং আশরাফুল ইসলাম। আগামী ১১ থেকে ১৯ জানুয়ারি টুর্নামেন্টটি অনুষ্ঠিত হবে। তবে শিতুল-আশরাফুল টুর্নামেন্টে কোন দলের হয়ে খেলবেন; তা এখনো নির্ধারণ হয়নি।

পাকিস্তান হকি ফেডারেশন বাংলাদেশের কাছে দুজন খেলোয়াড়ের নাম চেয়ে পাঠানোর পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন (বাহফে) নির্বাচক কমিটি শিতুল-আশরাফুলকে নির্বাচন করেন।

নির্বাচক কমিটির সংক্ষিপ্ত তালিকায় শুরুতে চারজনের নাম ছিল। তারা হলেন- শিতুল, আশরাফুল, রোমান সরকার এবং মাইনুল ইসলাম কৌশিক। সেখান থেকে পরে নির্বাচকরা দুজনকে বেছে নেন।

বাংলাদেশের ঘরোয়া লিগ-টুর্নামেন্টে পাকিস্তানী খেলোয়াড়দের অংশগ্রহণের নজির বেশ পুরনো। পাকিস্তানের বিশ্বজয়ী অনেক তারকা খেলোয়াড়রা পূর্বে এদেশে এসে খেলেছেন, সবশেষ লিগেও (২০১৮ সালে) এর ব্যত্যয় হয়নি। খেলার পাশাপাশি পাকিস্তানের অনেকেই বাংলাদেশের কোচ হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন।  

ইতিহাসের অংশ হয়ে গেলেন শিতুল-আশরাফুল। কারণ পাকিস্তান থেকে এর আগে বাংলাদেশের কোনো খেলোয়াড়দের সেখানে খেলার আমন্ত্রণ আসেনি। হকির জন্য এ এক দারুণ খবরই বলতে হবে। তবে আনন্দ সংবাদে আছে শঙ্কার চোখ রাঙানিও। পাকিস্তান মানেই বিদেশি খেলোয়াড়দের নিরাপত্তা নিয়ে বাড়তি চিন্তা-ভাবনা, শঙ্কা-সংশয়।

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলংকা ক্রিকেট দলের বাসে হামলার পর বিদেশী দলগুলোর দেশটিতে সফরে বেড়ি পরে। সাম্প্রতিক সময়ে কিছুটা শিথিলতা বিরাজ করলেও নিরাপত্তার বিষয়টি বার বারই আলোচনায় উঠে আসে। বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল, ইমার্জিং টিম কিংবা পাকিস্তান ক্রিকেট লিগে (পিএসএল) এনামুল হক বিজয়ের অংশ নেওয়ার ঘটনায় শিতুল-আশরাফুলরাও নিরাপত্তা নিয়ে তেমন শঙ্কিত নন। পাকিস্তানে খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছেন এতেই তারা খুশি।

খেলোয়াড়রা যতই খুশি হন না কেন নিরাপত্তার বিষয়টি ভালোভাবেই অবগত আছে হকি ফেডারেশন। এ বিষয়ে বাহফের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুল এহসান রানা আমাদের সময়কে বলেন, ‘শিতুল-আশরাফুল আমাদের জাতীয় দলের খেলোয়াড়, আমাদের জাতীয় সম্পদ। অবশ্যই আমরা নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েই তারপর তাদের সেখানে পাঠাব। তবে এখনো তো সব কিছু চূড়ান্ত হয়নি। সিলেকশন কমিটি তাদের চূড়ান্ত করেছেন মাত্র। ফেডারেশনের অনুমতির পাশাপাশি তারা যেহেতু বাংলাদেশ নৌবাহিনীর খেলোয়াড়; সেই সংস্থার অনুমতির বিষয়ও আছে।’

পাকিস্তানের টুর্নামেন্টে খেলার আমন্ত্রণ পাওয়ার অনুভূতি জানিয়ে ফরহাদ আহমেদ শিতুল বলেন, ‘প্রথম আমাদের ফেডারেশনকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তারা আমাকে যোগ্য মনে করে নির্বাচন করেছেন। যদি আমি সেখানে খেলার সুযোগ পাই, অবশ্যই নিজের সেরাটা দিয়ে খেলব। যাতে ভবিষ্যতে একজন, দুজন নয় আরও অনেকে সেখানে খেলার সুযোগ তৈরি হয়। নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে আমি কিছুই ভাবছি না। সেটা ফেডারেশন দেখবে। আমি নিজেকে প্রস্তুত রাখছি।’

শিতুল আরও যোগ করেন, ‘এক সময় শাহবাজ খানের মতো খেলোয়াড় আমাদের দেশে এসে খেলেছেন। বর্তমানে মোহাম্মদ ইরফান, শাকিল আব্বাসীরা এসে খেলছেন। এমন তারকা খেলোয়াড়দের কাছ থেকে দেখা, তাদের সঙ্গে একই দলে খেলা, ড্রেসিংরুম শেয়ার আসলে ভাবতেই আমার অন্যরকম লাগছে।’

শিতুলের সুরে সুর মেলার আশরাফুলও, ‘খবরটি শোনার পর থেকে আমার ভীষণ ভালো লাগছে। নিরাপত্তা নিয়ে আমি কিছুই ভাবছি না। আমার অনেক ক্রিকেটার বন্ধু পাকিস্তানে খেলে এসেছে। তাদের কাছ থেকে তথ্য নিয়েছি। আরও তথ্য জানব। তবে আপাতত আমি নিরাপত্তা নয়, নিজেকে তৈরি করার বিষয়ে মনোযোগ দিতে চাই।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে