আমার স্ত্রী-মেয়ের কাছে ওদের দেখতে চাই না : হরভজন সিং

  ক্রীড়া ডেস্ক

১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:০৬ | আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:৫০ | অনলাইন সংস্করণ

ন্যাশনাল টিভি চ্যানেলে নারীদের নিয়ে অশালীন ও অপমানজনক মন্তব্য করে অনির্দিষ্টকালের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন ক্রিকেটার হার্দিক পাণ্ডে ও লোকেশ রাহুল। ভারতীয় এই দুই ক্রিকেটারের বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে এবার মুখ খুললেন দলটির প্রাক্তন ক্রিকেটার হরভজন সিং।

ইন্ডিয়া টুডেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নিজ দলের দুই ক্রিকেটার হার্দিক-লোকেশের চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তোলেন হরভজন। তিনি বলেন, ‘আমার স্ত্রী ও কন্যা যদি আমার সঙ্গে ট্র্যাভেল করে তা হলে টিম বাসে এই দুজন থাকলে আমি সেখানে উঠব না। ওরা কী ভাববে? ওরা মেয়েদের একটি মাত্র দিক থেকে দেখে যেটা সঠিক নয়।’

হরভজন আরও বলেন, ‘আমি বন্ধুদের সঙ্গেও এই সব নিয়ে আলোচনা করি না আর ওরা সেটা গণমাধ্যমে বলে দিলো। এখন মানুষ ভাববে হরভজনও এরকম। অনিল কুম্বলে এমন ছিল বা সচিন তেন্ডুলকারও এমন ছিল। কতদিন হলো পাণ্ডে দলে এসেছে যে এভাবে ভারতীয় দলের সংস্কৃতি নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে।’

হার্দিক ও লোকেশের নির্বাসনের পক্ষেই মত দিয়েছেন হরভজন।  তিনি বলেন, ‘ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড (বিসিসিআই) একদম ঠিক কাজ করেছে। এটাই প্রত্যাশিত ছিল। আমি অবাক হইনি।’

এর আগে বিরাট কোহলি বললেন, ‘ভারতীয় দলের দিক থেকে কোনো অশোভন মন্তব্য আমরা কেউ সমর্থন করব না। আশা করি, ওরা বুঝতে পেরেছে বিষয়টি কতটা সংবেদনশীল ছিল।’

এদিকে হার্দিক পাণ্ডে ও লোকেশ রাহুল নির্বাসিত হওয়ায় গত শুক্রবারই অস্ট্রেলিয়া সিরিজের মাঝেই তাদের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়েছে। এ ঘটনায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে তদন্ত।  আপাতত এই দুই ক্রিকেটার কোনো ধরনের ক্রিকেটই খেলতে পারবেন না।

সম্প্রতি বলিউড পরিচালক করণ জোহরের শো ‘কফি উইথ করণ’ শোতে অনুষ্ঠানে উপস্থাপক করণ জোহরের এক প্রশ্নের জবাবে লোকেশ রাহুল বলেন, ১৮ বছর বয়সে তার ঘরে কনডম পেয়ে তার মা ভয়ানক রেগে গিয়েছিলেন। তবে তার বাবা এটা ব্যবহার করতে দেখে তার পিঠ চাপড়ে দিয়েছিলেন!

তবে সব মাত্রা অতিক্রম করে যান হার্দিক পাণ্ডে। কোনো পার্টিতে গিয়ে তিনি মেয়েদের 'নড়াচড়া' লক্ষ্য করেন, হার্দিকের এই ধরনের মন্তব্য 'অশালীন' লেগেছে অনেকেরই। এ ছাড়াও বাবা-মায়ের সঙ্গে তার খোলাখুলি সম্পর্ক বোঝাতে হার্দিক জানান যে, প্রথম 'ভার্জিনিটি' হারানোর দিনে তিনি বাড়িতে এসে বাবা-মাকে জানান যে, 'আজ করকে আয়া'!

অন্য একটি পার্টিতে হার্দিককে তার বাবা-মা জিজ্ঞেস করেন যে, কে তার বিশেষ বান্ধবী? হার্দিক নাকি তখন সেই পার্টিতে উপস্থিত নারীদের মধ্যে থেকে গুণে শেষ করতে পারছিলেন না যে কে কার সঙ্গে তার সম্পর্ক ছিল না!

এছাড়া করণের একটি প্রশ্নের উত্তরে রাহুল ও হার্দিক দুজনেই বলেন, বিরাট কোহলিকে তারা শচীন টেন্ডুলকারের থেকে ভালো ব্যাটসম্যান বলে মনে করেন। ভারতীয় দলের তারকাদের এই বক্তব্য মোটেই ভালোভাবে নেননি লাখ লাখ শচীন ভক্ত।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে