শিরোপার লড়াইয়ে প্রস্তুত ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ইংল্যান্ড

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

০৩ এপ্রিল ২০১৬, ১৮:৫৭ | আপডেট : ০৩ এপ্রিল ২০১৬, ১৯:০৮ | অনলাইন সংস্করণ

২০১০ সাল। কেনসিংটন ওভালে আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের তৃতীয় আসরের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে প্রথম শিরোপা ঘরে তুলেছিলো ইংল্যান্ড। ঠিক এর পরের আসরে ২০১২ সালে কলম্বোয় স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৩৬ রানের জয় নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজও প্রথম টি-টোয়েন্টি শিরোপার দেখা পায়। এবারের আসরের ফাইনালে উঠেছে এই দুই দল। তাই দু’দলের জন্যই এটি দ্বিতীয় শিরোপা জয়ের লড়াই।

ষষ্ঠ টি-২০ ক্রিকেট বিশ্বকাপের স্বপ্নের ফাইনালটি শুরু হবে রোববার বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়। খেলাটি অনুষ্ঠিত হবে কলকাতার ইডেন গার্ডেনে। 

ফাইনাল জিতে আশাবাদী দুই দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি বলেন, নিজের দলকে ফেভারিট মনে করি না। তবে নিজেদের ওপর বিশ্বাস আছে। আর ইংল্যান্ডের অধিনায়ক এউইন মরগ্যান জানান, ফাইনাল হবে স্নায়ুর লড়াই। এই যুদ্ধে জয়ী হতে চাই আমরা।
 
গত ৮ মার্চ ভারতের নাগপুরে হংকং ও জিম্বাবুয়ের বাছাইপর্বের ম্যাচ দিয়ে টি-২০ বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসর শুরু হয়। বাছাই পর্বে বাংলাদেশসহ ৮টি দল দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অংশ নেয়। গ্রুপ ‘এ’ থেকে সেরা দল হিসেবে বাংলাদেশ এবং গ্রুপ ‘বি’ থেকে আফগানিস্তান সুপার টেনে ওঠার সুযোগ পায়। সেরা দশের লড়াইয়ে গ্রুপ-১ এ দুই ফাইনালিস্ট দল ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছাড়াও ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা, শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। গ্রুপ-২ এ স্বাগতিক ভারতের সাথে ছিল অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। ১৫ মার্চ সেরা দশ পর্ব শুরু হয় স্বাগতিক ভারত ও নিউজিল্যান্ডের ম্যাচ দিয়ে। গ্রুপ পর্ব শেষ হয় ২৮ মার্চ দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার ম্যাচ দিয়ে।
 
গ্রুপ-২ ‘ডেথ গ্রুপ’ হিসেবে পরিচিত লাভ করলেও শেষ পর্যন্ত এই গ্রুপের কোন দলই ফাইনালের টিকিট পায়নি। দুই ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ এসেছে গ্রুপ-১ থেকে। সেমিফাইনালের পথে ইংল্যান্ড প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ৬ উইকেটে পরাজিত হলেও পরের তিন ম্যাচে যথাক্রমে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২ উইকেটে, আফগানিস্তানকে ১৫ রানে এবং শ্রীলঙ্কাকে ১০ রানে পরাজিত করে। অন্যদিকে, গ্রুপ পর্যায়ে নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচে জয় তুলে নেয় ড্যারেন সামিরা। ইংল্যান্ডকে ৬ উইকেটে, শ্রীলঙ্কাকে ৭ উইকেটে এবং দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৩ উইকেটে পরাজিত করলেও চতুর্থ ও শেষ ম্যাচে আন্ডারডগ আফগানিস্তানের কাছে ৬ রানে হেরে আলোচনার জন্ম দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।     
 
দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রথম সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে ৭ উইকেটে হেরে টুর্নামেন্টে চার ম্যাচে অপরাজিত থাকা নিউজিল্যান্ড বিদায় নেয়। পরের দিন মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় সেমিফাইনালে স্বাগতিক ভারতকে একই ব্যবধানে পরাজিত করে ফাইনালে ওঠে ড্যারেন স্যামির দল।
 
দুটি দলই এই নিয়ে দ্বিতীয়বার টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছে। এর আগে ২০১০ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টে ফাইনালে অস্ট্রেলিয়াকে ৭ উইকেটে পরাজিত করে ইংল্যান্ড চ্যাম্পিয়ন হয়। ২০১২ সালে শ্রীলঙ্কার মাটিতে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের ফাইনালে ৩৬ রানে স্বাগতিকদের পরাজিত করে শিরোপা লাভ করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে