বিডি ভেঞ্চারের বিনিয়োগ পেল ইন্টারেক্টিভ অ্যার্টিফ্যাক্ট

  নিজস্ব প্রতিবদক

১২ মার্চ ২০১৮, ২১:৩৩ | আপডেট : ১২ মার্চ ২০১৮, ২১:৪১ | অনলাইন সংস্করণ

বিডি ভেঞ্চার লিমিটেডের বিনিয়োগ পেতে যাচ্ছে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইন্টারেক্টিভ আর্টিফ্যাক্ট। গতকাল রোববার রাজধানীর কারওয়ান বাজারের জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই বিনিয়োগ করার ঘোষণা দেয় বিডি ভেঞ্চার। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের সব উদ্যোক্তাদের বলতে চাই, অনেক প্রতিষ্ঠানই সিড ফান্ড পাওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকলেও ভেঞ্চার ক্যাপিটাল প্রতিষ্ঠানগুলো প্রস্তুত থাকে না। এজন্য প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনায় আইডিয়া প্রোজেক্ট থেকে সিড ফান্ড দেওয়ার সুযোগ তৈরি করেছি।’

পলক বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের আইডিয়া প্রকল্প থেকে সিড ফান্ড হিসেবে উদ্ভাবনী ধারণাকে ২৫ থেকে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ দিতে প্রস্তত আছি। এজন্য উদ্ভাবনী ধারণাগুলোর প্রোটোটাইপ প্রল্পটিতে জমা দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- ডেল যুক্তরাষ্ট্রের পরিচালক এবং দেশে ক্লাউড ক্যাম্পের প্রতিষ্ঠাতা মাহদী-উজ-জামান।

মাহদী বলেন, ‘আমাদের দেশের তরুণ উদ্যোক্তারা যে সব কাজ করছে এটা মনে হতে পারে একেবারে ছোট। তবে সেই কাজটিই আমাদের দেশের মানুষের সমস্যার সমাধান করে। অন্যদিকে আবার সেই একই কাজ অনেক দেশের জন্য খুব বড় ব্যাপার হয়ে দেখা যায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের কাজের সুযোগ রয়েছে। আর স্বাস্থ্য খাতে এমন সুযোগটাই নিয়েছে ইন্টারেক্টিভ আর্টিফ্যাক্ট। এরাই দেশকে একসময় রিপ্রেজেন্ট করবেন।’

ইন্টারেক্টিভ আর্টিফ্যাক্টের উদ্যোক্তা নুসরাত জাহান বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের ফান্ডিং দিয়েই উদ্যোক্তা জীবন শুরু। এরপর তাদের কাজকে এগিয়ে নিতে থাকেন। আর এখন বিডি ভেঞ্চার থেকে যে বিনিয়োগ পাচ্ছেন সেটা দিয়ে তারা দেশের অন্যতম একটা উদ্যোগে নিতে পারবেন বলে জানান।

বিডি ভেঞ্চারের চেয়ারম্যান এহসানুল হক বলেন, ‘আমরা প্রযুক্তি খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। কারণ দেশে এখন এই খাতে একটা ঢেউ এসেছে। ফলে এখানে বিনিয়োগ করলে দেশে নতুন উদ্ভাবন আরও বেশি হবে। এখন আমরা যতগুলো বিনিয়োগ করছি তার ৭৫ থেকে ৮০ শতাংশই তথ্যপ্রযুক্তি খাতে।

বিডি ভেঞ্চারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শওকত হোসেন বলেন, ‘নুসরাত বাইরের দেশে পড়াশোনা করেও দেশে এসে কাজ করছেন, এটা খুবই আশাবাদী করে আমাদের। আমরা সাধ্যমতো উদ্যোগটিকে এগিয়ে নিতে কাজ করবো।’

জনতা ব্যাংক, বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজি এবং দোহাটেক নিউ মিডিয়ার চেয়ারম্যান লুনা শামসুদ্দোহা বলেন, ‘নারীদের সিড ফান্ড জোগাড় করা কতটা কষ্টের সেটা আমি জানি। নুসরাত অনেক ভালো করবেন এমন প্রত্যাশা করি।’

অনুষ্ঠানে বিডি ভেঞ্চার ক্যাপিটালের কর্মকর্তারা ছাড়াও বেশ কয়েকজন উদ্যোক্তা অংশ নিয়েছিলেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে