অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ রোধে স্মার্টফোন অ্যাপ!

  প্রযুক্তি ডেস্ক

১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৪:২২ | অনলাইন সংস্করণ

অনাকাঙ্ক্ষিত গর্ভধারণ থেকে নারীকে ঝুঁকিমুক্ত রাখতে ইউরোপের বাজারে এসেছে স্মার্টফোন অ্যাপ। ‘ন্যাচারাল সাইকেলস’ নামে এই অ্যাপটি তৈরি করেছে ইউরোপের একটি প্রতিষ্ঠান। যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ) অ্যাপটির অনুমোদন দিয়েছে।

তবে অ্যাপটি আপাতত ইউরোপের কয়েকটি দেশে অনুমোদিত হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি নির্ভর সংবাদমাধ্যম লাইভ সায়েন্স জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ কিছু দেশে অ্যাপটি নিয়ে এখনও গবেষণা চলছে।

লাইভ সায়েন্স আরও জানিয়েছে, মাসের কোন দিনগুলোতে ব্যবহারকারীর গর্ভধারণের সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি তা হিসেব করে সতর্ক করে দেয় এই অ্যাপটি। আর সেসব দিনগুলোতে ব্যবহারকারীকে শারীরিক মিলন থেকে বিরত থাকতে বা জন্মনিয়ন্ত্রক পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করতে নির্দেশনা দেয় এই অ্যাপ। এটাই অ্যাপটির মূল কাজ।

পিল, জেল বা বিভিন্ন পদ্ধতিকে রেখে জন্মনিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে একেবারেই নতুন এই পদ্ধতিটি কীভাবে কাজ করে এমন প্রশ্ন করেছেন ইউরোপের অনেক দম্পতি। এফডিএ জানিয়েছে, প্রতিদিন সকালে নারীকে তার দেহের তাপমাত্রা মেপে অ্যাপটিতে ইনপুট করতে হয়। কেননা প্রজননবিজ্ঞান বলে, ডিম্বপাতের সময়ে নারী দেহের তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধি পায়। সে হিসাবটাই খেয়াল রাখে অ্যাপটি। এছাড়াও অ্যাপটিতে দিয়ে রাখতে হয় ব্যবহারকারীর মেনস্ট্রুয়াল সাইকেলের সব তথ্য। এসব তথ্য যাচাইবাছাই করে অ্যাপটি বুঝতে পারে, কোনদিন ব্যবহারকারীর শরীর গর্ভধারণ করতে পারে।
 
অ্যাপটি প্রসঙ্গে এফডিএর কর্মকর্তা ড. টেরি কর্নেলিসন জানান, ‘ন্যাচারাল সাইকেলস’ অ্যাপটি ২০ থেকে ৪০ বছর বয়সী নারীদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। তবে যারা হরমোনাল বার্থ কন্ট্রোল ব্যবহার করছেন তাদের এই অ্যাপ ব্যবহারে নিষেধ করেছেন তিনি।

এদিকে সুইডেনে বহু নারী এই অ্যাপ ব্যবহারের পরেও গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন এমন অভিযোগের ব্যাপারে ড. টেরি বলেন, ‘জন্মনিয়ন্ত্রণের কোনো পদ্ধতিই আদতে নিখুঁত নয়। তবে ‘ন্যাচারাল সাইকেলস’ অ্যাপটি জন্ম নিরোধক পিলের মতোই কার্যকরী। এটি ব্যবহারের পরেও ৯ শতাংশ ক্ষেত্রে গর্ভধারণের সম্ভাবনা থেকেই যায়।

অ্যাপ নির্মাতারা জানান, তারা অ্যাপটি নিয়ে আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছেন যেন অ্যাপটি আরও নির্ভুলভাবে কাজ করতে পারে।

ন্যাচারাল সাইকেলস অ্যাপটি খুব কম সময়ের মধ্যেই উন্নত রাষ্ট্রগুলোতে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে