রবির হাত ধরে বাজারে এলো মোটোরোলার নতুন হ্যান্ডসেট

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:২৬ | আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:৩৪ | অনলাইন সংস্করণ

দশ বছর পর রবি’র সঙ্গে সহযোগিতার ভিত্তিতে বাংলাদেশের বাজারে নতুন মটো ই-ফোর প্লাস, মটো ই-ফাইভ ও মটো ই-ফাইভ প্লাস হ্যান্ডসেট আনল বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ হ্যান্ডসেট নির্মাতা কোম্পানি মোটোরোলা। আজ সোমবার রাজধানীর এক অভিজাত হোটেলে কোম্পানিটির সর্বশেষ এই হ্যান্ডসেটগুলোর উদ্বোধন করা হয়।

আকর্ষণীয় এই হ্যান্ডসেটগুলো রবি’র ই-কমার্স সাইট রবিশপে পাওয়া যাবে। মোটো ডিভাইসের জাতীয় পরিবেশক হিসেবে দেশের বাজারে মোটোরোলা ব্র্যান্ডটি আনল স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেড।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমশিনের (বিটিআরসি) স্পেকট্রাম ম্যানেজমেন্টের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. নাসিম পারভেজ।   

এ সময় রবি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, চিফ ডিজিটাল সার্ভিসেস অফিসার শিহাব আহমেদ এবং স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেড’র চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম, গ্রুপ ডিরেক্টর এমডি জাফর আহমেদ ও ডিরেক্টর শাকিব আরাফাত উপস্থিত ছিলেন।

মটো ই-ফোর প্লাস, মটো ই-ফাইভ ও মটো ই-ফাইভ প্লাস হ্যান্ডসেটগুলোর দাম যথাক্রমে ১১ হাজার ৯৯০, ১৪ হাজার ৯৯০ ও ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা। এই হ্যান্ডসেটগুলোতে বড় স্ক্রিনের সুবিধাসহ রয়েছে কম আলোয় ঝকঝকে ছবি তোলার নিশ্চয়তা।  

এ ছাড়া ব্যাটারি সক্ষমতা, দ্রুততার সঙ্গে কাজ করতে সক্ষম, আকর্ষণীয় লাউড স্পিকার ও মনোরম ডিজাইনের এই হ্যান্ডসেটগুলো মোবাইলে বিনোদনের ক্ষেত্রে এক নতুন মাত্রা যোগ করবে। সবগুলো হ্যান্ডসেটের সঙ্গে থাকছে আকর্ষণীয় উপহার (মোটোরোলা ব্যাগ/ক্যাপ/টি-শার্ট/ ব্লুটুথ স্পিকার), ১৫ মাসের ওয়ারেন্টি, ছয় মাসের শূন্য শতাংশ ইএমআই সুবিধা এবং ৩০ দিন মেয়াদী ৪ জিবি ফ্রি ডেটা।

এই হ্যান্ডসেটগুলোর যেকোনো একটি কেনার ৯ মাসের মধ্যে ১০০ টাকার বেশি ডেটা প্যাক কিনলে ১০০ শতাংশ বোনাস ডেটা উপভোগ করতে পারবেন গ্রাহকরা।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‌‌‌‘মোবাইল ফোন যারা আবিষ্কার করেছে সেই কোম্পানি মোটোরোলা বাংলাদেশে নতুনভাবে যাত্রা শুরু করলো। এটা আমাদের জন্য খুবই ভালো সংবাদ-  মোটোরোলা বাংলাদেশের মোবাইল ফোনের বাজারকে গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য দরকার ডিজিটাল ডিভাইস। ডিজিটাল ডিভাইস কম দামে সবার হাতে তুলে দেওয়া আমাদের সরকারের অন্যতম আরেকটি লক্ষ্য।’

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ‌‘মোটোরোলা হ্যান্ডসেট উদ্বোধনের সহযোগী রবি ইতমধ্যে দেশজুড়ে ৪.৫ জিবি নেটওয়ার্ক স্থাপন করেছে। সেই নেটওয়ার্ক এবং নতুন এই হ্যান্ডসেটগুলোর সমন্বয়ে ইন্টারনেটের বিস্তার অব্যহত থাকবে বলে আমাদের প্রত্যাশা।’

রবি’র এমডি মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‌‌‘দেশজুড়ে ৭ হাজার ১০০টি ৪.৫ জিবি নেটওয়ার্ক দিয়ে দেশের বৃহত্তম ৪.৫ জিবি নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে রবি। এ পরিপ্রেক্ষিতে দেশে মোটোরোলার নতুন তিনটি হ্যান্ডসেট উদ্বোধনের ক্ষেত্রে তাদের সহাযোগী হতে পেরে আমরা আনন্দিত। রবি’র ই-কমার্স সাইট রবিশপ এবং রবি’র সহায়ক ই-কমার্স ব্র্যান্ড ডিজিরেড’র সহযোগিতায় দেশজুড়ে গ্রাহকরা খুব সহজেই তাদের কাঙ্ক্ষিত হ্যান্ডসেটটি কিনতে পারবেন বলে আমাদের প্রত্যাশা।’
 
স্মার্ট টেকনোলজিস বিডি লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাজহারুল ইসলাম বলেন, ‘স্মার্ট টেকনোলিজস’র হাত ধরে মোটোরোলা বাংলাদেশে নতুন যাত্রা শুরু করলো। এ যাত্রায় আমরা সঙ্গী হিসেবে পেয়েছি রবি’কে।  মোটোরোলা’কে আর রবি’কে নিয়ে আমরা আমাদের সফলতার ধারা অব্যাহত রাখতে চাই। এ দেশের বাজারের জন্য আমরা একটি লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছি। সেই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের জন্য আমরা বিভিন্ন পদক্ষেপও গ্রহণ করেছি। স্মার্ট টেকনোলিজস দেশের বাজারে মোটোরোলাকে সবার হাতে পৌঁছে দিতে চায়।’

বিশ্বের খ্যাতনামা হ্যান্ডসেট নির্মাতাদের সর্বশেষ হ্যান্ডসেট এবং বৈদ্যুতিক সরঞ্জামের বিশাল সমহার নিয়ে দেশের অন্যতম ই-কমার্স সাইটে পরিণত হয়েছে রবিশপ। দেশের ৪০০টির বেশি থানায় দ্রুততম সময়ে পণ্য পৌঁছে দিচ্ছে আউটলেটটি।

অন্যদিকে রবি’র সহায়ক ই-কমার্স চ্যানেল ডিজিরেড দেশে ডিজিটাল উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে। এটি দেশজুড়ে গ্রাহকদের অনলাইনে পণ্য কেনার সুযোগ তৈরি করেছে। রিটেইলারের মাধ্যমে প্রক্রিয়াটির লাইভ ডেমো প্রদর্শন করে প্রতিষ্ঠানটি এবং গ্রাহকের দোরগোড়ায় পণ্য পৌঁছে দেয়।

এশিয়ার টেলিযোগাযোগ বাজারের অন্যতম কোম্পানি আজিয়াটা গ্রুপ বারহাদের (মালয়েশিয়া) একটি কোম্পানি হচ্ছে রবি আজিয়াটা লিমিটেড (রবি)। এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল ফোন অপারেটর। অপারেটরটি ডিজিটাল সেবা চালুর দিক থেকে অনেক ক্ষেত্রে পথিকৃতের ভূমিকা পালন এবং দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দোরগোরায় মোবাইল নেটওয়ার্ক পৌঁছে দেওয়ার জন্য ব্যাপকভাবে বিনিয়োগ করেছে। রবিতে ভারতী এয়ারটেল এবং এনটিটি ডকোমো ইনকরপোরেশনের আংশিক মালিকানা রয়েছে।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে