মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে আমাদের করণীয়

  ওসমান গনি

১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০১:০৩ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রাণের ভাষা আমাদের মাতৃভাষা বাংলা আন্তর্জাতিক ভাষার মর্যাদা লাভ করেছে। এটা আমাদের বাঙালিদের কাছে সবচেয়ে গৌরবের বিষয়। আজ আমাদের এই বাংলা ভাষায় বিশ্বের অনেক লোক কথা বলতে শিখেছে। অসংখ্য বিদেশি আমাদের বাংলা ভাষায় কথা বলে থাকে। ভাষার দাবিতে তো মরণপণ সংগ্রাম আর কোথাও হয়নি। তাই আমাদের প্রিয় মাতৃভাষা, প্রিয় বাংলা ভাষাকে নিয়ে আমাদের ভালোবাসা ও গর্ব অনেক বেশি।

কারণ ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা বাংলাকে প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে সমগ্র বাঙালি জাতিকে ঐক্যের নিবিড় বন্ধনে আবদ্ধ করেছিল। কারণ প্রাকৃতিক নিয়ম অনুসারে অনৈক্যের ওপর ঐক্য সব সময় বিজয় লাভ করে। বাঙালি ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কারণেই সেদিন মাতৃভাষাকে অতি সহজে প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব হয়েছিল। বাংলা ভাষা প্রতিষ্ঠিত করতে গিয়ে সেদিন অসংখ্য বাঙালি তাদের বুকের তাজা রক্ত দিয়েছিল। তাদের মধ্যে রফিক, বরকত, জব্বার, সালামসহ আরও নাম না জানা অনেকে। বাঙালি জাতি আজও ভাষার জন্য আত্মদানকারীদের ভুলতে পারেনি। ভুলবেও না কোনোদিন। যতদিন বাংলাদেশ থাকবে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, প্রিয় মাতৃভাষা ও সংস্কৃতিকে অবহেলা করা হচ্ছে। চারদিকে আজ পশ্চিমা এবং হিন্দি ভাষার আগ্রাসনের ছড়াছড়ি। বিশেষ করে আমাদের দেশের নারীদের আকৃষ্ট করছে ভারতীয় হিন্দি সিরিয়ালগুলো। তরুণ সমাজও পশ্চিমা অশ্লীল সংস্কৃতিতে হাবুডুবু খাচ্ছে।

তা ছাড়া রাষ্ট্রের সব পর্যায়ে বাংলা ভাষার ব্যবহার করার কথা থাকলেও সেখানে আজ সিংহভাগ ব্যবহার করা হচ্ছে ইংরেজি ভাষা। সরকারি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদ এবং বিচারিককাজে বাংলা ভাষার ব্যবহার করার কথা বললেও এখনো ব্যবহার করা হচ্ছে ইংরেজি ভাষা। দেশ পরিচালনায় যখন যে শাসকশ্রেণি ক্ষমতায় আসবে তার ওপর নির্ভর করবে দেশের অবস্থা। তা ছাড়া আমাদের দেশের ধনী ব্যক্তিরা তাদের সন্তানদের উচ্চশিক্ষার ক্ষেত্রে বাংলাকে উপেক্ষা করে ইংরেজিকে গুরুত্ব দিচ্ছে। এমনকি বাংলাকে ইংরেজি এবং হিন্দির সঙ্গে মিশিয়ে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। আজও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের সব অঞ্চলের বিভিন্ন সাইনবোর্ড লেখা হয় ইংরেজিতে, আবার বিয়ে ও জন্মদিনের কার্ডগুলো আজ বাংলার পরিবর্তে ইংরেজিতে লেখা হয়। বানানের ক্ষেত্রে বাংলা একাডেমি প্রবর্তিত প্রমিত বাংলা নিয়ম একেবারেই কম ব্যবহার করা হয়।

যে মাতৃভাষা বাংলাকে মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করতে গিয়ে এ জাতির বীর সন্তানরা তাদের বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়ে জীবন উৎসর্গ করেছিল সে মাতৃভাষা বাংলাকে এভাবে তুচ্ছতাচ্ছিল্য করা মেনে নেওয়া যায় না। আর আমাদের দেশে ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ঐক্যহীনতার কারণে মাতৃভাষাকে অবজ্ঞা করা হচ্ছে। মাতৃভাষার সম্মান রক্ষার্থে আমাদের সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। বাংলা ভাষার মাধ্যমে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করানোর জন্য আমাদের সবাইকে ভাষার প্রতি যতœশীল হতে হবে। দল-মত নির্বিশেষে দেশের সব মানুষকে বাংলা ভাষার প্রচলন ও তার ব্যবহারে একত্র হয়ে কাজ করতে হবে।

ওসমান গনি : সাংবাদিক ও কলাম লেখক

[email protected]

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে