গ্রীষ্মে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ে উদ্বেগ

কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে

  সম্পাদকীয়

০৯ মার্চ ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৮ মার্চ ২০১৮, ০১:৪২ | প্রিন্ট সংস্করণ

আসছে গরমের মৌসুম, বাড়ছে বিদ্যুৎ চাহিদার চাপ। সেই সঙ্গে কলকারখানা ও কৃষি খাতে সেচের মৌসুমে তো বিদ্যুতের একটা চাহিদা আছেই। সামনে পবিত্র রমজান মাস এবং বিশ্বকাপ ফুটবল খেলা চলাকালে বিদ্যুতের চাহিদা অনুযায়ী দেশব্যাপী নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিয়ে উদ্বিগ্ন বিদ্যুৎ বিভাগ। ফলে ক্রমেই বাড়ছে জনঅসন্তোষ।

গত সোমবার বিদ্যুতের উৎপাদন ও সরবরাহ পরিস্থিতি পর্যালোচনা শীর্ষক এক সভা অনুষ্ঠিত হয় বিদ্যুৎ সচিবের সভাপতিত্বে ন্যাশনাল লোড ডেসপাস সেন্টারের (এনএলডিসি) সম্মেলনকক্ষে। বৈঠকে বর্তমানে বিদ্যুতের উৎপাদন ও সরবরাহের মাত্রায় পার্থক্য থাকায় ঘাটতির কথা তুলে ধরা হয়। তবে সভায় বিদ্যুৎ সচিব ড. আহমদ কায়কাউস নির্দেশ দেন, আসন্ন গ্রীষ্মে যেন লোডশেডিং না হয় সে বিষয়ে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে। প্রশ্ন হচ্ছে, তার নির্দেশ অনুযায়ী কার্যকর বাস্তবায়নে কতটুকু অগ্রগতি হবে। বিদ্যুৎ নিয়ে সরকারের নানা পরিকল্পনার মধ্যে যে সমস্যা রয়েছে, সেটা দূর করতে না পারলে এ খাত দেশের অর্থনীতির জন্য বড় বোঝা হয়ে দাঁড়াবে। কারণ জ্বালানি সংকট ও সাশ্রয়ের কারণে সর্বোচ্চ উৎপাদনক্ষমতা যেটুকু আছে, তা কাজে লাগানো যাচ্ছে না। এ কথা স্বীকার করতেই হবে, দেশে বিদ্যুতের চাহিদা অনুপাতে উৎপাদন বাড়েনি। তবে সঞ্চালন ব্যবস্থার ত্রুটি, দুর্নীতি, অপচয় ও অব্যবস্থাপনা সংকটকে আরও তীব্র করে তুলেছে। ক্রমবর্ধমান চাহিদার কথা বিবেচনা করে একের পর এক বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলা হচ্ছে। কিন্তু সঞ্চালন ও বিতরণ নেটওয়ার্কের সীমাবদ্ধতা, গ্যাস সরবরাহের অপ্রতুলতা ও রক্ষণাবেক্ষণ কাজের দুর্বলতার কারণে বিদ্যুৎ বিভ্রাট রোধে এখনো কোনো সুখবর দিতে পারেনি বিদ্যুৎ বিভাগ।

আধুনিক বিশ্বের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে বিদ্যুৎ উৎপাদন, সংরক্ষণ এবং সরবরাহ নিশ্চিত করা জরুরি। সুপরিকল্পিত উপায়ে সংকট নিরসনে সরকার উদ্যোগী হলে বিদ্যুৎ পরিস্থিতির উন্নয়ন কোনো কঠিন ব্যাপার নয়। এ ব্যাপারে দ্রুত উদ্যোগ না নিলে জন-অসন্তোষ বাড়বে। সার্বিকভাবে দেশের উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে বিদ্যুৎ উৎপাদন বৃদ্ধির বিকল্প নেই। তাই শুধু পরিকল্পনা করাই শেষ কথা নয়, নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে