রাজকীয় বিয়ে

দাম্পত্য শুরু করলেন প্রিন্স হ্যারি ও মেগান

  আমাদের সময় ডেস্ক

২০ মে ২০১৮, ০২:৫০ | আপডেট : ২০ মে ২০১৮, ১০:৫২ | প্রিন্ট সংস্করণ

উইন্ডসরের সুরক্ষিত প্রাসাদের চারপাশে যতদূর চোখ যায়, ততদূর পর্যন্ত লোকে লোকারণ্য, খোলা মাঠগুলোয় দাঁড়ানোর স্থানটুকু পর্যন্ত নেই। বিশ্বের সব প্রভাবশালী গণমাধ্যমের ক্যামেরার সর্বভূক-চোখ হা-দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে প্রাসাদের দিকে। বাঘা বাঘা সাংবাদিকরা হাজির সংবাদ সংগ্রহের জন্য। লোক-ধাঁধানো আনকোরা পোশাকে প্রাসাদে প্রবেশ করছেন একের পর এক বিশ্বখ্যাত তারকা। সেই তালিকায় আছেন অনন্য উচ্চতাধারী টিভি উপস্থাপিকা অপরাহ উইনফ্রে থেকে শুরু করে ফুটবল জাদুকর ডেভিড বেকহ্যাম পর্যন্ত অনেকেই। প্রাসাদের আয়োজন, চারপাশের ফুলেল সাজ জানান দেয় আজ রাজ উৎসব।
যুবরাজ হ্যারি আনুষ্ঠানিকভাবে দাম্পত্য শুরু করছেন। এ জন্য এত আয়োজন, বিশ্বজুড়ে এত আলোড়ন। ব্রিটিশ রাজপুত্র বলে কথা! বিয়ের পুরো আয়োজন এক বিশাল কর্মযজ্ঞ। এ যজ্ঞ যথার্থ করতে হাজারো লোকের কত-কত দিনরাত ব্যয় করতে হয়েছে। রাজভাণ্ডার থেকে কী পরিমাণ ব্যয় হয়েছে তা শুনলে হয়তো সাধারণ মানুষ ভিড়মি খাবে।
৩৩ বছর বয়সী হ্যারির সঙ্গে ৩৬ বছরে পা রাখা মার্কিন অভিনেত্রী মেগান মার্কলের বিয়ের অনুষ্ঠান গতকাল ঐতিহ্যবাহী প্রথা এবং আধুনিক ও জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। পরস্পরের জীবনসঙ্গী হওয়ার পরপরই পরিচয় পাল্টে গেছে প্রিন্স হ্যারির। বিলেতি রাজকীয় প্রথা অনুযায়ী তারা দুজন এখন থেকে পরিচিত হবেন ডিউক অব সাসেক্স এবং ডাচেস অব সাসেক্স হিসেবে। অর্থাৎ দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডের সাসেক্স কাউন্টির আনুষ্ঠানিক শাসক বা নৃপতি হিসেবে পরিচিত হবেন যুবরাজ হ্যারি আর মেগান মার্কলকে সবাই ডাকবেন সাসেক্সের নৃপতিপত্নী হিসেবে।
আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থাগুলোর খবরে বলা হয়, হ্যারির বিয়ের অনুষ্ঠান ব্রিটিশ রাজপরিবারের ইতিহাসে এক অনন্য জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজন। সেন্ট জর্জ চ্যাপেলে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের উপস্থিতিতে ৬০০ রাজ অতিথির সামনে পরস্পরকে বিয়ে করার আনুষ্ঠানিক সম্মতি দেন এ যুগল। মেগান সাদা ধবধবে পোশাকে কনেরূপে হাজির হন। গির্জায় আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন হ্যারি এবং তার বড় ভাই ও এই বিয়ের ‘বেস্ট ম্যান’ প্রিন্স উইলিয়াম। মেগানের বিয়ের পোশাক ধরে ছিলেন প্রিন্স উইলিয়ামের শিশুপুত্র প্রিন্স জর্জ। হবু শ্বশুর প্রিন্স চার্লসের হাত ধরে বিয়ের মঞ্চে আসেন মেগান। এর পর মঞ্চে উপস্থিত হন সেন্টারবুরির যাজক জাস্টিন উইলবি; হ্যারি ও মেগানের বিয়ে পড়ান।
অনুষ্ঠানের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ ছিলেন খোদ রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। বরাবরের মতো চিত্তাকর্ষক পোশাকে একটি ছাদখোলা গাড়িতে স্বামী প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে গির্জায় হাজির হন রানি। এরও আগে শুরুতেই পাশাপাশি হেঁটে গির্জায় পৌঁছেন যুবরাজ হ্যারি ও উইলিয়াম। দুই সহোদরকে একনজর দেখতে যারা অপেক্ষমাণ ছিলেন, তাদের উদ্দেশে হাত নেড়ে শুভেচ্ছা জানাতে জানাতে গির্জায় প্রবেশ করেন উইলিয়াম ও হ্যারি।

বিয়ে শেষে উইন্ডসর শহরের পথে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এর প্রথমে ছিলেন নতুন বর-কনে। তাদের বাহন ছিল রাজপ্রথা অনুযায়ী বিশেষ একটি ঘোড়ার গাড়ি। এ সময় পথের দুপাশে দাঁড়িয়ে আমন্ত্রিত অতিথি এবং অপেক্ষমাণ হাজারো মানুষ নবদম্পতিকে শুভকামনা জানান। হ্যারি-মেগান হাত নেড়ে তাদের এই ভালোবাসার জবাব দেন। সন্ধ্যায় ফ্রগমোর হাউসে নববিবাহিত দম্পতির সম্মানে দুই শতাধিক কাছের মানুষের উপস্থিতিতে একটি বিশেষ পার্টি অনুষ্ঠিত হয় হ্যারির বাবা প্রিন্স চার্লসের উদ্যোগে।

তারার হাট
বিয়ের অনুষ্ঠান শুরুর অনেক আগে থেকেই, পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী অতিথিরা সপরিবারে কিংবা সবান্ধব অনুষ্ঠানে যোগ দিতে শুরু করেন। এ তালিকায় অপরাহ উইনফ্রে, অভিনেতা জর্জ ও আমাল ক্লুনি দম্পতি, অভিনেতা টাম হার্ডি ও শার্লোট রিলে দম্পতি, কিংবদন্তি লোকসংগীতশিল্পী স্যার এলটন জন, রাগবি তারকা জেমস হ্যাস্কেল ও তার বান্ধবী ক্লো মেডলে, রাগবি কিংবদন্তি স্যার ক্লাইভ উডওয়ার্ড ও জায়নে উইলিয়ামস দম্পতি, সংগীতশিল্পী জেমস ব্লান্ট ও তার বান্ধবী সোফিয়া ওয়েলেসলি, সংগীতশিল্পী জশ স্টোন, অভিনেতা ইদ্রিস এলবা ও তার বান্ধবী মডেল সাবরিনা ধৌরে, টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস ও তার স্বামী অ্যালেক্সিস ওহানিয়ান, বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াংকা চোপড়া, ডেভিড ও ভিক্টোরিয়া বেকহ্যাম প্রমুখ।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে