ঐক্য থাকলে জামায়াত ছাড়াই জয় পাবে ধানের শীষ

৩ সিটি নিয়ে বিএনপির বৈঠক

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১১ জুলাই ২০১৮, ১১:৫৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে এবং ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে পারলে সিলেটে জামায়াত ছাড়াই ধানের শীষের মেয়রপ্রার্থী জয়লাভ করবে বলে মনে করেন দলটির জ্যেষ্ঠ নেতারা। তারা বলেন, খুলনাতে ভোট কারচুপি হলেও সেখানে গণমাধ্যম ও দলের স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাধ্যমে কিছুটা হলেও সরকারের মুখোশ উন্মোচন করা গেছে। তবে গাজীপুরে সাংগঠনিকভাবে দুর্বল হওয়ায় সেখানকার সিটি নির্বাচনে যেসব অনিয়ম হয়েছে, তা আমরা উন্মোচন করতে পারিনি। সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহীতে সাংগঠনিকভাবে বিএনপি শক্তিশালী। এ অবস্থায় সরকারের নানা নির্যাতনের মধ্যেও শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকতে পারলে গাজীপুরের মতো হতাশ হব না।

গতকাল বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসন্ন বরিশাল, রাজশাহী ও সিলেট সিটি নির্বাচন নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভাগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে বৈঠকে সিনিয়ররা মতামত তুলে ধরেন। এতে বক্তব্য দেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম আহমেদ চৌধুরী, সিনিয়র

যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হারুন অর রশিদ, রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, ডা. সাখাওয়াত হাসান জীবন, বিলকিস জাহান শিরীন, আকন কুদ্দুসুর রহমান, আবদুল মতিন প্রমুখ।

বৈঠকে এই তিন সিটি নির্বাচনে বিনা চ্যালেঞ্জে ছাড় না দেওয়া এবং শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ছাড়া গাজীপুর ও খুলনা নির্বাচনের অভিজ্ঞতার আলোকে তিন সিটিতে ভিন্ন কৌশল গ্রহণ করবে বিএনপি। দলীয় পোলিং এজেন্ট বের করে দেওয়া ও কেন্দ্র দখল করলে তা প্রতিরোধ করা হবে। এ জন্য প্রতিটি কেন্দ্র পাহারার জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের আগে থেকেই প্রস্তুতি নিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সিলেটে জোটের শরিক দল জামায়াতে ইসলামীর মেয়রপ্রার্থীকে সরে যেতে আর কোনো অনুরোধ না করারও সিদ্ধান্ত হয় বৈঠকে।

নেতারা বলেছেন, প্রচারের উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় যেসব নেতা সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় যাবেন, তারা নিজেই নিজের ব্যয় বহন করবেন। অঙ্গসংগঠনের নেতারা যেন বেশি নেতাকর্মী নিয়ে সেখানে না যান। মির্জা ফখরুল বলেন, ‘যেহেতু সরকার আমাদের গণতান্ত্রিক রাজনীতি করার স্পেস দিচ্ছে না। তাই আমাদের এই নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ ও নেতাকর্মীদের মধ্যে সম্পর্ক আরও নিবিড় করতে হবে। এটাকে কাজে লাগাতে হবে আমাদের।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে