sara

বড় ঋণ বাছাই-বিতরণে তদারকি

কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে

  অনলাইন ডেস্ক

১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১২ জুলাই ২০১৮, ০২:০৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

দেশের ব্যাংকিং খাতে গুটিকয়েক প্রতিষ্ঠান বেশিরভাগ ঋণ ভোগ করছে। উদ্বেগের বিষয় হলো বিভিন্ন ব্যাংক তাদের বিতরণ করা ঋণের মধ্যে ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ তুলে দিয়েছে হাতেগোনা ১০-১২টি প্রতিষ্ঠানের কাছে। বড় ঋণের ঝুঁকির মাত্রা পরীক্ষা করে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই প্রতিবেদনে বলা হয় ব্যাংকের শীর্ষ তিন ঋণগ্রহীতা সময়মতো অর্থ ফেরত না দিলে ১৯ ব্যাংক ব্যর্থ ব্যাংকে পরিণত হবে। যদিও বড় ঋণের আতঙ্ক সম্পর্কে আগেই ব্যাংকগুলোকে সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বড় ঋণ বিতরণ অব্যাহত থাকায় বর্তমানে নতুন করে বড় অঙ্কের ঋণ দেওয়ার ব্যাপারে যথাযথভাবে আইন পরিপালন এবং ঋণের ব্যবহার বিষয়ে তদারকির নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

দেশে এখন ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ছড়াছড়ি। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এ খাতে বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতির ঘটনাও বেড়েছে। আমরা মনে করি, অন্যায়-অনিয়মের সঙ্গে যুক্তদের আইন অনুযায়ী শাস্তির আওতায় আনা উচিত। তা না হলে ব্যাংকিং খাতের ওপর থেকে মানুষের আস্থা চলে যাবে।

বস্তুত ব্যাংকগুলোর শীর্ষ পর্যায়ে থাকা ব্যক্তিবর্গের দুর্নীতি দেশের সামগ্রিক আর্থিক ব্যবস্থাপনাকে গ্রাস করে ফেললেও ব্যাংকগুলোর খেলাপি ঋণ, অব্যবস্থাপনা, অনিয়ম-জালিয়াতি ও অর্থ আত্মসাতের ঘটনা না কমে বরং দিন দিন বাড়ছে। এ চর্চা যে কোনো মূল্যে বন্ধ করতে হবে।

প্রচলিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা যদি দেশের মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনে ব্যর্থ হয়, তবে দেশের অর্থনীতি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সুতরাং অনিয়ম ও দুর্নীতিমুক্ত ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার লক্ষ্যে ঋণ বিতরণে নিয়ম লঙ্ঘনকারী ব্যাংকগুলোর বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় ব্যাংক আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে, এটাই প্রত্যাশা।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে