প্রতারকচক্রের হাতেই প্রাণ গেছে পুলিশ কর্মকর্তা মামুনের

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ জুলাই ২০১৮, ০১:৪৫ | প্রিন্ট সংস্করণ

পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুন ইমরান খান হত্যাকা-ে জড়িত সব আসামিকে শনাক্ত করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। কী কারণে, কীভাবে তাকে বনানীর ফ্ল্যাটে হত্যা করা হয়েছে, সে তথ্যও জানতে পেরেছে পুলিশ। যদিও তদন্তের স্বার্থে এখনই মুখ খুলছেন না পুলিশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। খুনের আদ্যোপান্ত বর্ণনা করেছে রিমান্ডে থাকা রহমত উল্যাহ। গতকাল ছিল তার রিমান্ডের প্রথম দিন। এদিন এ ঘটনায় আটক অন্য আসামিদের মুখোমুখি করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে। 
পুলিশের তদন্তকারী সূত্রগুলো বলছে, সংঘবদ্ধ একটি প্রতারকচক্র মামুনকে হত্যা করেছে। এ চক্র রাজধানীর বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের নামে মানুষকে ব্ল্যাকমেইল করত। চক্রটিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বেশ কয়েকজন চাকরিচ্যুত সদস্যও রয়েছেন। প্রথমে তারা মামুনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু রহমত উল্যাহকে ব্ল্যাকমেইল করতে চেয়েছিল। এরই অংশ হিসেবে এ চক্রের এক নারী সদস্য দিয়ে রহমত উল্যাহকে ফোনে ডেকে আনা হয় বনানীর ওই ফ্ল্যাটে। কিন্তু রহমতের সঙ্গে যে পুলিশ কর্মকর্তা মামুনও আসবেন, তা তারা বুঝতে পারেনি। ৮ জুলাই রাত সাড়ে ৮টার দিকে মামুনকে সঙ্গে নিয়ে রহমত উল্যাহ ওই ফ্ল্যাটে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই ফ্ল্যাটটিতে প্রবেশ করে প্রতারকচক্রের পুরুষ সদস্যরা। তারা রহমত উল্যাহকে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করলে তিনি মামুনের পরিচয় প্রকাশ করেন। আর তখনই চক্রটি মামুনকে মারপিট করতে থাকে এবং একপর্যায়ে তিনি মারা যান। 
ঘটনার সঙ্গে স্বপন, দিদার, মিজান, আতিক, শেখ হৃদয়, সুরাইয়া আক্তার কেয়া, মেহেরুন নেসা ঝর্না ওরফে আফরিন, ফারিয়া বিনতে মীম ওরফে মাইশাসহ আরও ২/৩ জন সম্পৃক্ত বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর মধ্যে আফরিন রয়েছে পুলিশি হেফাজতে। 
ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের ডিসি (পূর্ব) খন্দকার নুরুন্নবী আমাদের সময়কে গতকাল বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারে জোর অভিযান চলছে। আসামিদের ইতোমধ্যে শনাক্ত করা হয়েছে। 
জানা গেছে, জন্মদিনের পার্টির কথা বলে মামুনকে ওই ফ্ল্যাটে ডেকে নেয় প্রতারকচক্র। ওই ফ্ল্যাটেই খুন হন তিনি। পরে তার লাশ গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের উলুখোলা এলাকার একটি জঙ্গলে ফেলা হয় এবং পেট্রল ঢেলে লাশ পুড়িয়ে ফেলা হয়, যেন কেউ চিনতে না পারে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে