নবীনদের খেয়ালে বাদ্যের ঝংকার

  সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০১:৫৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশে উচ্চাঙ্গসংগীতের প্রচার ও প্রসারের উদ্দেশ্যে বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে নবীন ও প্রতিভাবান শিক্ষার্থীদের নিয়ে সংগঠিত হয়েছে বেঙ্গল পরম্পরা সংগীতালয়। উপমহাদেশের গুণী সংগীতগুরু ও শিক্ষকদের সযতœ দীক্ষা ও শিক্ষা গ্রহণ করে পরম্পরার শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংগীতের অনুকূল পূর্বলক্ষণ তৈরি হয়েছে। এসব শিক্ষার্থীদের খেয়াল ও ধ্রুপদ পরিবেশন এবং সরোদ, সেতার, তবলা ও এসরাজ বাদন নিয়ে হয়ে গেল নিয়মিত আয়োজন ‘সুনাদ’-এর প্রথম অধিবেশন।
ধ্রুপদ রাগসংগীত বা শাস্ত্রীয় সংগীতের এক প্রধান শৈলী। ধ্রুপদ বলতে এক ধরনের ধীর, স্থির, গম্ভীর ও বীরত্বব্যঞ্জক সংগীতকে বোঝায়। অন্যদিকে খেয়াল এক ধরনের উচ্চাঙ্গসংগীত। এটি উচ্চাঙ্গসংগীতের দ্বিতীয় শাখা, প্রথম শাখা ধ্রুপদের চেয়ে লঘু এবং এতে কল্পনা অনুযায়ী নানাবিধ অলঙ্কার প্রয়োগ ও তান বিস্তারের মাধ্যমে সৌন্দর্য রচনার সুযোগ আছে। খেয়াল ধ্রুপদের মতো কঠোর নিয়মশৃঙ্খলে আবদ্ধ নয়। শাস্ত্রীয় সংগীতের এমন দুটি ধারা নিয়েই আয়োজন ‘সুনাদ’।
ছায়ানট মিলনায়তনে গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে প্রথমেই স্বাগত বক্তব্য দেন বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের সভাপতি আবুল খায়ের। এ সময় তিনি শিল্পীদের উত্তরীয় পরিয়ে দেন। এর পর সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে দলীয় সরোদ বাদনে অংশ নেন সংগীতালয়ের শিক্ষার্থী ইশরা ফুলঝুরি খান, ইলহাম ফুলঝুরি খান, সাদ্দাম হোসেন এবং আরেফীন রনি। দলীয় সরোদ বাদনের পর তবলা পরিবেশনা নিয়ে আসেন রতন কুমার দাস এবং সংগীতালয়ের শিক্ষার্থী সুপান্থ মজুমদার। তবলা বাদনের পর খেয়াল পরিবেশনায় অংশ নেন মিরাজুল জান্নাত সোনিয়া। তবলায় ছিলেন প্রশান্ত ভৌমিক ও হারমোনিয়ামে আলমগীর পারভেজ সুমন। পরে খেয়াল পরিবেশন করেন অতিথি শিল্পী অলোক সেন। সঙ্গে তবলায় ছিলেন সবুজ আহমেদ ও হারমোনিয়ামে মোহাম্মদ শাকুর।
আয়োজনের দ্বিতীয় ও সমাপনী দিনের অনুষ্ঠান শুরু হবে আজ সন্ধ্যা ৭টায় স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে। এদিন শাস্ত্রীয় সংগীতের বিভিন্ন পরিবেশনায় থাকবেন দলীয় সেতার বাদন, খেয়াল পরিবেশনা, ধ্রুপদ পরিবেশনা, দলীয় এসরাজ বাদন ও তবলা বাদন। এসব পরিবেশানায় অংশ নেবেন সংগীতালয়ের শিক্ষার্থী প্রসেনজিৎ ম-ল, জ্যোতি ব্যানার্জী, জাহাঙ্গীর আলম শ্রাবণ, মোহাম্মদ কাওসার, সোহিনী মজুমদার, সামিন ইয়াসার ইফতি, সুব্রত বিশ্বাস, কানিজ হুসনা আহম্মাদী, পাখোয়াজে আলমগীর পারভেজ সুমন, অভিজিৎ, টিংকু শীল, সৈয়দা রায়হান, মো. রায়হানুল আমিন, রনজিত রায়, শুক্লা হালদার, ইসমাত আরা রুচি, শৌণক দেবনাথ ঋক, সৌমিত রায়, গৌরাঙ্গ কৃষ্ণ দাস, এসরাজের শিক্ষাগুরু দেবাশীষ হালদার প্রশান্ত ভৌমিক ও সুপান্থ মজুমদার।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে