শাকিব-অপু বিচ্ছেদ

আলোচনায় বুবলী

  ফয়সাল আহমেদ

০৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ০৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ০০:২০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সুপারস্টার শাকিব খান ও চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। সময়ের আলোচিত দুই চরিত্র। বিয়ের পর সংসার না করেই বিচ্ছেদ হচ্ছে তাদের। বিষয়টি এখন টক অব দ্য টাউন। সবাই খোঁজার চেষ্টা করছেন বিবাহবিচ্ছেদের কারণ। যেখানে বিয়ের পর তারা একসঙ্গে ছিলেনই না, কাজ করেছেন যে যার মতো, সেখানে বিচ্ছেদের দরকার কী?

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তারা দুজন শুটিং অব্যাহত রাখেন। এ বছর ১০ এপ্রিল বিকালে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু। সেদিন অপু বলেন, ‘আমি শাকিবের স্ত্রী, আমাদের ছেলে আছে।’ আট বছর আগের সে বিয়ের খবর জনসমক্ষে আসার পর দুজনের সম্পর্কের টানাপড়েন তৈরি হয়। পরিস্থিতি এমন অবস্থায় পৌঁছে যে, শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস নিজেদের মধ্যে মুখ দেখাদেখি বন্ধ করে দেন। কথা হচ্ছে আট বছর আগের গোপন বিয়ের খবর অপু ফাঁস করলেন কেন? এর এক কথার উত্তর- বুবলী!

অপু কখনই চাননি তার বাইরে শাকিব কারো সঙ্গে জুটি প্রতিষ্ঠিত করুক। কোনো নায়িকাই শাকিবের সঙ্গে একটি বা দুটির বেশি ছবিতে অভিনয় করতে পারেননি। যখনই বুবলীর সঙ্গে ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন, তখনই শাকিবের কাছে স্ত্রীর মর্যাদা চাইলেন অপু। সন্তানের স্বীকৃতি চাইলেন। বিয়ের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার আগে অপু বলেছেন ব্যায়াম করে ফিট হচ্ছেন, আবার কাজ শুরু করবেন। তখনো মর্যাদা আদায়ের কথা বলেননি। যদি সে সময় শাকিব বুবলীর সঙ্গে ছবি না করে অপুর সঙ্গে কাজ করতেন তা হলে হয়তো সাধারণ মানুষ এখনো জানতে পারতেন না তারা স্বামী-স্ত্রী এবং তাদের সন্তান আছে।

এ ছাড়া চলতি বছরের এপ্রিলে শবনম বুবলীর সঙ্গে শাকিব ঘরোয়া পরিবেশে একটি ছবি তোলেন। ছবিটিতে ‘ফ্যামিলি টাইম’ ক্যাপশন লিখে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ করেন বুবলী। এরপরই অপু বিশ্বাসের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি ঘটে শাকিব খানের। ছবিটি প্রকাশের পর পরই গণমাধ্যমে দীর্ঘদিন গোপনে থাকা বিয়ে ও সন্তানের বিষয়টি খোলাসা করেন অপু।

যদিও এখন পর্যন্ত অপু বিশ্বাস বিবাহবিচ্ছেদের কারণ হিসেবে বুবলীর নাম উল্লেখ করেনি। কিন্তু শাকিব খান তার কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন অপু বিশ্বাসের বয়ফ্রেন্ডের কথা। সম্প্রতি অপু তার বিশেষ কোনো এক বন্ধুকে নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলেন কলকাতায়। তাও আবার আব্রামকে ঘরের মধ্যে রেখে বাইরে থেকে তালা দিয়ে। আর তখনই শাকিব গিয়েছিলেন আব্রামকে দেখতে। শাকিব তখনই বলেছিলেনÑ মাত্র এক বছরের একটি ছোট ছেলেকে কাজের মেয়ের জিম্মায় রেখে বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে কোনো মা কীভাবে দেশের বাইরে চলে যেতে পারে? এটা কীভাবে সম্ভব? এটা সন্তানের প্রতি মায়ের কেমন দায়িত্ব পালন? আমার এখনো বিশ্বাস হচ্ছে না। এটা আমি মানতে পারছি না। আমার ছেলের যদি কোনো দুর্ঘটনা ঘটে যায়, তা হলে এর দায় নেবে কে? ছেলের প্রতি যার দায়িত্ববোধ এটুকুই, তার প্রতি ব্যবস্থা আর কী নেব! তবে আমি এ বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেব।

তা অপুর বয়ফ্রেন্ড কে? ঘুরেফিরে আসছে চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরীর নাম। গুঞ্জন উঠেছে অপুর সঙ্গে গোপনে প্রেম করছেন বাপ্পী। অনেক দিন ধরেই তারা হৃদয়ঘটিত সম্পর্কে জড়িয়েছেন। চিকিৎসার নাম করে বাপ্পীর সঙ্গেই কলকাতায় বেড়াতে গিয়েছেন অপু। সবখানেই এখন গুঞ্জন, অপুর কথিত প্রেমিক বলতে শাকিব ইঙ্গিত করেছেন বাপ্পীকেই।

গুজব ছড়িয়েছে, মেলামেশার সুবিধার জন্য নিজের বাসার পাশে বাপ্পীকে বাসা ভাড়া নিতে পরামর্শ দিয়েছিলেন অপু। যদিও এটা অস্বীকার করেছেন বাপ্পী। তিনি জানান, এশিয়ান টিভির এক অনুষ্ঠান শেষে অপুর বাসার নিচে তার সঙ্গে দেখা হয়। সেখানে অপুর বাসার ম্যানেজারও ছিল। কথায় কথায় তিনিই আমাকে বলছিলেন যে অপুসহ অনেকের বাসা তিনি ঠিক করে দিয়েছেন। তার কাছে আরও বেশ কিছু ভালো ফ্ল্যাটের সন্ধান আছে নিকেতন, নিকুঞ্জ ও বারিধারাতে। তাই আমিও বলেছিলাম আমাকে ২৫০০ স্কয়ার ফিটের একটি বাসা খুঁজে দিতে। সিম্পল একটি আলোচনা। দুর্গাপূজার সময় পূজা উপলক্ষে একটি ফটোশুটে প্রথম অপু-বাপ্পী একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান। এরপর ‘কাঙ্গাল’ ও ‘কানাগলি’ নামের দুটি ছবিতে তারা জুটি হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন। সেই থেকেই শুরু হয় তাদের প্রেমের গুঞ্জন। শাকিব এর আগেও একবার দাবি করেছিলেন একজন উঠতি নায়কের সঙ্গে অশ্লীল অবস্থায় অপুকে হাতেনাতে ধরেছিলেন তিনি। তখনো তিনি সেই প্রেমিকের নাম প্রকাশ করেননি।

শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে সাধারণ মানুষ এখন অঙ্ক কষছেন। শাকিবের সঙ্গে সম্পর্ক বুবলীর। আর অপুর সঙ্গে সম্পর্ক বাপ্পীর। তা হলে তো দুজনের বিচ্ছেদই স্বাভাবিক!

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে