শাকিবে নয় অপুর মনোযোগ...

  ফয়সাল আহমেদ

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:৪১ | প্রিন্ট সংস্করণ

দুশ্চিন্তা ও দুর্ভাবনায় যাচ্ছিল চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের প্রতিটি দিন। ছিল নানান ধরনের মানসিক চাপ। মন ছিল অশান্ত, উদ্বেগের কোনো সীমা ছিল না। আর এসব থেকে নিস্তার পেতে অপু মনোযোগ দিচ্ছেন কাজে। জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার লক্ষ্যে নতুন যাত্রা শুরু করেছেন অপু বিশ্বাস। অতীতের কোনো তিক্ত অভিজ্ঞতার স্মৃতিচারণ আর করতে চাচ্ছেন না তিনি। 

‘ভুল করেছি, মাসুলও দিচ্ছি। নতুন কোনো ভুল করতে চাচ্ছি না। এখন থেকে কাজ নিয়ে থাকতে চাই। ভক্তদের ভালো কিছু সিনেমা উপহার দিতে চাই। সব অভিনেতার বিপরীতেই অভিনয় করতে চাই।’ কথাগুলো বলেছেন অপু বিশ্বাস। কথা শুনে বোঝাই যাচ্ছে শাকিব খানকে নিয়ে তিনি ভাবছেন না। তার ভাবনায় শুধু কাজ। চলচ্চিত্রবোদ্ধারা মনে করেন, এটা অনেক আগেই বোঝা উচিত ছিল অপু বিশ্বাসের। অনেকে বলেন, ‘শাকিব খানের জন্য অপুর ঝলমলে ক্যারিয়ার তৈরি হয়েছিল ঠিকই, কিন্তু তিনি ভালো না করলে কি দর্শক সেটা গ্রহণ করত? আবার দেখুন অপুর ক্যারিয়ার ধ্বংসও হয়েছে শাকিবের কারণে। তখন যদি অপু অন্য নায়কদের সঙ্গে ছবি কারতো তবে এখন তাকে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে হতো না। তিনি চলচ্চিত্রের রানিই থাকতেন।’

অপু বিশ্বাস ২০০৪ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পা রাখেন। ২০০৬ সালে পরিচালক এফআই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে নায়িকা হিসেবে শাকিবের বিপরীতে অভিনয় করেন। তখন থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত টানা ৭০টির মতো ছবিতে তিনি অভিনয় করেন শাকিবের বিপরীতে। এই সময়ে অপু অন্য কোনো নায়কের বিপরীতে পর্দায় উপস্থিত হয়নি। সবাই মনে করছেন এটাই অপুর ক্যারিয়ারে সবচেয়ে বড় ভুল। এর মধ্যে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল ভালোবেসে গোপনে বিয়ে করেন শাকিব-অপু। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর তাদের ঘরে আসে ছেলে আব্রাম খান জয়। বিষয়টি জানাজানি হয় গত বছর ১০ এপ্রিল বিকালে। অপু এক টিভি লাইভে এসে বলেন, ‘শাকিব আমার স্বামী। আব্রাম খান জয় আমাদের সন্তান।’ অপুর ভাষ্য ছিল, মূলত বিয়ের পর শাকিবের বাসায় বেশিরভাগ সময় থাকতেন তিনি অনেকটা লুকোচুরি করে। মাঝে মাঝে শ্যুটিং শেষে নিজের বাসায়ও চলে যেতেন। শাকিব এ খবর অপুকে গোপন রাখতে বলেন দুজনের ক্যারিয়ারের স্বার্থে। ক্যারিয়ারে অপু ছাড় দিয়েছেন। শাকিবের ক্যারিয়ার বাঁচাতে অপু নিজের ক্যারিয়ার কোরবানি দিলেন।

তারপরও গত বছর ২২ নভেম্বর অপু বিশ্বাসকে তালাকের নোটিশ পাঠান শাকিব খান। নিয়ম অনুযায়ী নোটিশ পাঠানোর তিন মাস পর তালাক কার্যকর হয়। সেই হিসাবে চলতি মাসের ২২ তারিখ থেকে অপু বিশ্বাসের সঙ্গে শাকিব খানের তালাক কার্যকর হচ্ছে। তাদের সম্পর্কে লিখতে এখন থেকে ‘সাবেক’ শব্দটা ব্যবহার করতে হবে। মানে ‘সাবেক তারকা দম্পতি’ শাকিব ও অপু। আর বিষয়টি শুরুতে মানতে রাজি ছিলেন না অপু। কিন্তু এখন তিনি এটা নিয়ে একদমই মাথা ঘামাচ্ছেন না।

শাকিব খানের সঙ্গে বিয়েবিচ্ছেদ নিয়ে অপু যে আর ভাবছেন না তার প্রমাণ ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ ছবিটি। সম্প্রতি নতুন এই ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তিনি। ঢালিউডের সুপারহিট ছবি ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’। ১৭ বছর পর গেল বছরের নভেম্বরে ছবির সিক্যুয়াল নির্মাণ করার ঘোষণা দিয়েছিলেন পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। আর এ ছবির মাধ্যমেই ফিরছেন অপু বিশ্বাস। তার বিপরীতে থাকবেন বাপ্পী চৌধুরী। অপু-বাপ্পী দুজনই নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, তারা ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ ছবিতে অভিনয় করবেন। আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষরও করেছেন।

এ ছাড়া রফিক শিকদারের নির্মিতব্য ‘ওপারে চন্দ্রাবতী’ ছবিতেও অভিনয় করবেন অপু বিশ্বাস। চন্দ্রাবতী চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। সম্প্রতি এই চরিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন অপু। গতকাল হয়েছে ছবির মহরত। ছবিতে নায়ক চরিত্রে রয়েছেন সাইমন। কাহিনী গড়ে উঠেছে বাংলাদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গের প্রেক্ষাপটে। রবীন্দ্র ভারতীতে অধ্যয়নরত দুজন ছাত্রছাত্রীর প্রণয় এবং অভিভাবকদের বাধা-বিপত্তি নিয়ে। ছাত্রী হলেও নায়ক-নায়িকাকে দেখানো হবে এমফিল-এর শিক্ষার্থী হিসেবে। সুতরাং বয়স এখানে বাধা হবে না।

দীর্ঘদিন চলচ্চিত্র থেকে দূরে থাকায় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস বেশ মুটিয়ে গেছেন। তার শারীরিক ওজন অনেক বেড়ে যায়। তবে এবার যেহেতু চলচ্চিত্রে নিয়মিত হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তাই নিয়মিত জিমে যাচ্ছেন, ডায়েট করছেন। কঠোর পরিশ্রম করে এরই মধ্যে ১৭ কেজি ওজন কমিয়েছেন। আগামী সপ্তাহ থেকে আরও কঠোরভাবে জিম ও ডায়েট শুরু করবেন বলে জানান তিনি। অপু বলেন, ‘শাকিব ইস্যু ভুলে গিয়ে কাজ শুরু করছি। আমার ভাবনায় শুধু ক্যারিয়ার। তাই নিয়ম করে ডায়েট করছি, জিম করছি। ওজন কমিয়েছি। আগামী সপ্তাহ থেকে ডায়েটের নতুন ফর্মুলা শুরু করব। আগামী এক মাসের মধ্যে আমি আগের মতো হতে পারব।’

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে