বাবা-মেয়ের বিজ্ঞাপন ঘিরে বিতর্ক

  বিনোদন সময় ডেস্ক

২০ জুলাই ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২০ জুলাই ২০১৮, ০০:৪৬ | প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি কল্যাণ জুয়েলার্সের দেড় মিনিটের একটি বিজ্ঞাপনে দেখা গেছে অমিতাভ-শ্বেতা বচ্চনকে। মেয়েকে প্রথমবার স্ক্রিনে দেখতে পেয়ে আবেগঘন হয়ে পড়েন বাবা (বিগ বি)। কিন্তু যেভাবে বিজ্ঞাপনটি উপস্থাপন করা হয়েছে, তাতে মোটেই খুশি নয় ব্যাংক ইউনিয়নগুলো। তারা এতটাই ক্ষুব্ধ যে, মামলা পর্যন্ত করার ভাবনা-চিন্তা করছে। ব্যাংক ইউনিয়নগুলোর দাবি, ব্যাংকিং পরিসেবার ওপর আমজনতার বিশ্বাস ভেঙে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে এ বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে।

অল ইন্ডিয়া ব্যাংক অফিসার্স কনফেডারেশন, এ সংগঠনের অধীনে ৩,২০,০০০ সদস্য রয়েছেন। এ সংগঠনের তরফেই কল্যাণ জুয়েলার্সের বিরুদ্ধে মামলা করার ভাবনা-চিন্তা করা হচ্ছে। এআইবিওসির সাধারণ সম্পাদক সৌম্য দত্তের অভিযোগ, এ বিজ্ঞাপনের থিম, টিউন পুরোটাই অত্যন্ত নিম্ন রুচির। সম্পূর্ণটাই বিজ্ঞাপনী সংস্থার লাভের কথা ভেবে করা হয়েছে।

তবে কল্যাণ জুয়েলার্স তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছে, ব্যাংক ইউনিয়নগুলোর মানসিকতা বুঝতে পেরেছে তারা। কোথায় তাদের আঘাত লেগেছে, সেটাও স্পষ্ট তাদের কাছে। কিন্তু এই পুরো বিজ্ঞাপনটিই একটি কাল্পনিক ভাবনা-চিন্তা থেকে করা হয়েছে। এখানে বাস্তবের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক নেই। এ সংক্রান্ত ডিসক্লেমার কল্যাণ জুয়েলার্সের তরফে আগামী তিন দিনের মধ্যে বিজ্ঞাপনের সঙ্গে দেওয়া হবে বলেও জানানো হয়েছে। কোনো ব্র্যান্ড বা সংস্থাকে অসম্মানিত করার ইচ্ছে কল্যাণ জুয়েলার্সের ছিল না বলেও সংস্থার তরফে দাবি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপনে দেখা গেছে, অমিতাভ তার মেয়ের সঙ্গে গিয়েছেন একটি ব্যাংকে। এক মাসে দুবার পেনশনের টাকা চলে এসেছে তার অ্যাকাউন্টে। সেই বাড়তি টাকা ফেরাতে গিয়ে ব্যাংককর্মীদের খারাপ ব্যবহারের সম্মুখীন হতে হয় বৃদ্ধ অমিতাভকে। বৃদ্ধ বাবাকে ছায়াসঙ্গীর মতো আগলে রাখতে দেখা যায় মেয়েকে। বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে কল্যাণ জুয়েলার্স বোঝাতে চেয়েছে বাবার কাছে বড় ভরসার জায়গা তার মেয়ে, তেমন ভরসার জায়গা কল্যাণ জুয়েলার্স।

সূত্র : এবিপি আনন্দ

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে