সাক্ষাৎকার

‘সবাই আমাকে মানুসির ছোট বোন বলে ডাকত’

  অনলাইন ডেস্ক

১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১০:১৪ | প্রিন্ট সংস্করণ

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার ৬৮তম আসর শেষ করে দেশে ফিরেছেন ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ জান্নাতুল ফেরদৌসী ঐশী। দেশে ফিরে জানিয়েছেন ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার অভিজ্ঞতা আর নিজেকে নিয়ে আগামী দিনের পরিকল্পনা...

মিস ওয়ার্ল্ডের অভিজ্ঞতা কেমন হলো?

অসাধারণ! সারা জীবন মনে রাখার মতো। পুরো প্রতিযোগিতায় আমিই ছিলাম বয়সে সবার ছোট। তবে আমিই মনে হয় সবচেয়ে বেশি প্রশংসা পেয়েছি। আয়োজকরা আমাকে বেশি খেয়াল করছে। মিস ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষ প্রতিযোগীদের সহজাত ব্যাপারগুলোকে গুরুত্ব দিয়েছেন। আশা তো অবশ্যই ছিল। দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে গিয়েছি, কিছু একটা করে তবেই দেশে ফিরব, এমনটাই স্বপ্ন ছিল। আমি পেরেছি। যদিও আশা আরও বেশি ছিল।

এবারের প্রতিযোগিতা গতবারের থেকে পার্থক্য কি ছিল?

গত বছর ভোটিংয়ের মাধ্যমে সেরা ৪০ জন বাছাই করা হয়। এবার ভোটিংয়ের পাশাপাশি বিচারকদের সামনে প্রত্যেক প্রতিযোগীকে নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিতে হয়েছে। যদিও তখন অনেক নার্ভাস ছিলাম, কিন্তু শেষ পর্যন্ত পেরেছি। নার্ভাস হলেও আমি কিন্তু আত্মবিশ্বাসী ছিলাম।

ফিরে আসার পর সবচেয়ে বেশি কী মিস করেছেন?

গত এক মাসে ১১৮ জন প্রতিযোগী ছিলাম একটা পরিবার। প্রত্যেকের সঙ্গে দারুণ সম্পর্ক গড়ে ওঠে আমার। ক্যাম্প ছেড়ে আসার সময় সবার কথা ভেবে খারাপ লেগেছে। তবে সবচেয়ে বেশি মিস করেছি মানুসি দিদিকে (মানুসি ছিল্লার)। তাকে দিদি বলে ডাকতাম। তিনি গতবারের মিস ওয়ার্ল্ড। সবাই আমাকে মানুসির ছোট বোন বলে ডাকত।

ফেরার পর বাবা-মা কী বলেছেন?

গ্র্যান্ড ফিনালে পর্যন্ত যেতে পেরেছি, তাতেই মা-বাবা খুশি। আমার মা স্কুলশিক্ষিকা আর বাবা সমাজসেবক। তাদের অনুপ্রেরণায় আরও অনেক দূর এগিয়ে যেতে চাই। আমার একমাত্র বড় বোন, সেও আমাকে অনেক সহযোগিতা করে।

আগামীর ভাবনা?

কিছু দিনের মধ্যে কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হব। এর পর পড়াশোনায় মন দেব। সময় আর সুযোগ যদি পাই, তা হলে শোবিজে কাজ করব।

শোবিজে নাটক, বিজ্ঞাপনচিত্র, সিনেমা কোনটার ব্যাপারে আগ্রহ আছে?

সব মাধ্যমে কাজ করতে চাই। সিনেমায়ও কাজ করব। মানসম্মত একটা গল্প, একজন ভালো অভিনেতা আর ভালো পরিচালক হলেই কাজ করব। নাটকের ক্ষেত্রেও একই ভাবনা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে