ভালোবাসার উপহার

  আমান উল্লাহ

১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আজ বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। প্রিয় মানুষটির প্রতি হৃদয়ে ভালোবাসার অনুভূতি প্রকাশ পায় বছরের ৩৬৫ দিনই। তার পরও একটা দিন ধুমধাম করে বিশেষভাবে উদযাপন তো করা যেতেই পারে। যে কোনো বিশেষ দিনকে আরও বিশেষ করে তোলে উপহার। তাই আজ প্রিয় মানুষটিকে উপহার দিতে পারেন আপনার কিংবা তার পছন্দের কিছু। না, উপহারটি যে কেবল প্রেমিক যুগল কিংবা স্বামী-স্ত্রীকেই দিতে হবে, জরুরি নয় তা। কারণ ভালোবাসা শুধু প্রেমিক-প্রেমিকা কিংবা স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। ভালোবাসার বিস্তৃতি বাবা-মা, ভাই-বোন,বন্ধু-বান্ধবসহ সবার মাঝে। তাই ভালোবাসা দিবসে উপহার দিতে পারেন যে কাউকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ভালোবাসা দিবসে উপহার হিসেবে কী কী দেওয়া যেতে পারে।

প্রিয় বই

আপনার প্রিয় মানুষটি যদি বই পড়তে পছন্দ করেন, তাহলে আর চিন্তা নেই। ভালোবাসা দিবসে তাকে তার প্রিয় লেখকের কোনো বই উপহার দিন। আপনি চাইলে বইয়ের পাতায় কিছু লিখেও দিতে পারেন। বইয়ের সঙ্গে সঙ্গে লেখাটিও তার হৃদয় ছুঁয়ে যাবে।

চকোলেট

অনেকেরই চকোলেটের প্রতি দুর্বলতা থাকে। আপনার প্রিয় মানুষটি যদি চকোলেট খেতে ভালোবাসে, তবে ভালোবাসা দিবসটিকে আরও মিষ্টি করে তুলতে তাকে উপহার দিতে পারেন চকোলেট বক্স। আবার বেশ কিছু চকোলেট আর ফুল আকর্ষণীয় কোনো গিফট বক্সে সাজিয়েও দিতে পারেন।

লাল গোলাপ

লাল গোলাপ চিরকাল ভালোবাসার প্রতীক। আজ ছোট-বড়-মাঝারি সাইজের একগুচ্ছ লাল গোলাপ হাতে প্রিয়জনকে নতুন করে প্রপোজ করে স্মরণীয় করে রাখতে পারেন এবারের ভালোবাসা দিবসটিকে। ব্যতিক্রম হিসেবে অর্কিড, ডালিয়া, দোলনচাঁপাও হৃদয় ছুঁয়ে যাবে। আর যদি জানা থাকে আপনার প্রিয়জন কোন ফুল পছন্দ করে, তবে নিশ্চিন্তে দিতে পারেন তাও।

নান্দনিক কার্ড

উপহার হিসেবে কার্ড প্রায় সব বয়সী মানুষই পছন্দ করে। গতানুগতিক কার্ড ছাড়াও হ্যান্ড পেইন্ট কার্ড, মিউজিক কার্ড, সুগন্ধি কার্ডসহ ব্যতিক্রমী কার্ড উপহার দিয়ে ভালোবাসা জানাতে পারেন প্রিয় মানুষটিকে। এ ছাড়া মোটা কাগজের ফ্রেমে মনের কথা আর ছবি সাজিয়ে নিজ হাতে কার্ড তৈরি করেও চমকে দিতে পারেন প্রিয় মানুষটিকে।

পোশাক, পারফিউম কিংবা গহনা

উপহার হিসেবে পোশাক, পারফিউম কিংবা গহনা অনেকেরই খুব পছন্দের। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ব্যক্তিত্বের সঙ্গে মানানসই কোনো পোশাক উপহার দিতে পারেন। দিতে পারেন আংটি, ব্রেসলেট, নেকলেসসহ নানারকম গহনাও। সুগন্ধি অথবা বডি স্প্রে দিয়েও খুশি করতে পারেন প্রিয় মানুষটিকে।

হলুদ খামে চিঠি

চিঠি লেখার প্রচলন এখন নেই বললেই চলে। কিন্তু চিঠি পড়ার আনন্দ কি ভোলার মতো! ভালোবাসা দিবসে আজ প্রিয়জনকে হলুদ খামে ভরে উপহার দিতে পারেন আঙুলের মিহি বুননে লেখা প্রেমপত্র। কিংবা কালো হরফে লিখে দিতে পারেন ভালোবাসার অমীয় সংগীত। দেখবেন ডিজিটাল যুগেও পুরনো দিনের এই চিঠি আপনার সঙ্গিনীর হৃদয় ছুঁয়ে যাবে।

আরও যা কিছু

উপহার হিসেবে আরও দিতে পারেন ফটোফ্রেম, মগ, মানিব্যাগ, কলম, কলমদানি, শেভিং কিট, পার্স, সানগ্লাস, ওয়ালম্যাট, চাবির রিং, শোপিসসহ নানা কিছু। প্লেটের মধ্যে ভালোবাসা দিবসের শুভেচ্ছা বাণী লিখে দোকান থেকে প্রিন্ট করে উপহার দিতে পারেন সঙ্গিনী, বাবা-মা কিংবা ভাই-বোনকে। আপনার ভাই যদি খেলাধুলা কিংবা গান পছন্দ করে, তবে তাকে আজ নতুন কোনো খেলার সামগ্রী কিংবা গানের সরঞ্জাম, সিডি কিনে দিতে পারেন।

উপহারের মোড়ক

উপহারের মতো গুরুত্বপূর্ণ উপহারের মোড়টিও। তাই নান্দনিকতাকে সাজিয়ে দিন উপহারের মোড়কটি। বর্তমানে উপহারের মোড়ক সাজানোর জন্য রিবন, লেইস, জরি, ড্রাই ফুল, রিবন ফুল, শোলার ফুলসহ নানা কিছু পাওয়া যায়।

কোথায় পাবেন কেমন দামে

নানারকম উপহারের মধ্যে মগ পাওয়া যাবে ১০০ থেকে ৩০০ টাকায়, কার্ড ৫০ থেকে ৫০০, ফটোফ্রেম ১০০ থেকে ১ হাজার ২০০, শোপিস ১৫০ থেকে ২ হাজার ৫০০, পারফিউম ৩০০ থেকে ১ হাজার ২০০, ওয়ালম্যাট ২০০ থেকে ৫ হাজার টাকা। বিভিন্ন গিফট কর্নার, ফ্যাশন হাউস ছাড়াও শপিংমল থেকে ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে প্রিয় মানুষটির জন্য উপহার কিনতে পারেন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close