চ্যালেঞ্জিং ক্যারিয়ার নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং

  শামীম ফরহাদ

১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০১৭, ১৯:১৮ | প্রিন্ট সংস্করণ

সারা বিশ্বে প্রতিনিয়ত কমছে প্রাকৃতিক জ্বালানির পরিমাণ। তাই প্রয়োজন বিকল্প জ্বালানি। এ ক্ষেত্রে নিউক্লিয়ার বা পারমাণবিক জ্বালানির দিকে ঝুঁকছে সবাই। বাংলাদেশও সম্প্রতি পারমাণবিক জ্বালানি উৎপাদনে পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ২০২০ সালে সম্ভাব্য উৎপাদনে যাওয়া রূপপুর নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টের জন্য প্রচুর নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারের কাজের সুযোগ তৈরি হবে বলে আশা করা যায়। আর্থিক স্বাচ্ছন্দ্য এবং নিজেকে সফল নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে দেখতে চাইলে ক্যারিয়ার গড়তে পারেন নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে।

নিউক্লিয়ার প্রকৌশল

প্রকৌশলবিদ্যার একটি শাখা, যেখানে পরমাণুর নিউক্লিয়াস ভাঙার ঘটনার প্রয়োগ ঘটানো হয় এবং অন্যান্য উপপারমাণবিক পদার্থবিজ্ঞানসংশ্লিষ্ট বিষয়ও জড়িত থাকে। এ বিষয়ের মূল ভিত্তি হলো নিউক্লিয়ার পদার্থবিজ্ঞান। এটায় আরও অন্তর্ভুক্ত আছে নিউক্লিয়ার ফিউশন ব্যবস্থা ও উপাদানের, যেমন বিশেষ করে নিউক্লিয়ার রিঅ্যাকটর, নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্ট এবং নিউক্লিয়ার অস্ত্রের নিউক্লিয়ার ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া ও তত্ত্বাবধান। এই ক্ষেত্রে আরও অন্তর্ভুক্ত আছে নিউক্লিয়ার ফিউশনের শিক্ষা, মেডিক্যাল ও বিকিরণের অন্যান্য প্রয়োগ, বিকিরণ নিরাপত্তা, তাপগতিবিদ্যা পরিবহন, পারমাণবিক জ্বালানি এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট টেকনোলজি, নিউক্লিয়ার দ্রুত বিস্তার ও রেডিও-অ্যাক্টিভ আবর্জনার প্রভাব অথবা পরিবেশে রেডিও-অ্যাক্টিভিটি।

পড়াশোনা

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসি ও এমএসসি প্রোগ্রাম এবং মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজিতে (এমআইএসটি) নিউক্লিয়ার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম চালু হয়েছে। শিগগিরই বুয়েটে ইনস্টিটিউট অব নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং (আইএনই) প্রতিষ্ঠিত হতে যাচ্ছে, যার মাধ্যমে দেশে এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রাম চালুর পাশাপাশি উচ্চতর গবেষণার সুযোগ তৈরি হবে। ঢাবির নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভালো ফল করলে স্কলারশিপের সুযোগ আছে।

কর্মক্ষেত্র

নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিং একটি সম্ভাবনাময় পেশা। আপাতদৃষ্টে বাংলাদেশে চাকরি অপ্রতুল মনে হলেও সামনের কিছুদিনে দেশে বিভিন্ন পারমাণবিক প্রকল্প, পাওয়ার প্লান্টসহ উন্নত গবেষণায় দেশের নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারদের ব্যাপক চাহিদা দেখা দেবে। নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে এমএস কোর্স সম্পন্নকারী শিক্ষার্থী, সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে তার চাকরিজীবন শুরু করতে পারবেন। বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিকে রয়েছে কাজের সুযোগ। বিদেশেও রয়েছে নিউক্লিয়ার ইঞ্জিনিয়ারদের কাজের ব্যাপক সুযোগ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে