চাকরিতে প্রথম বছরের গাইডলাইন

  অনলাইন ডেস্ক

১১ জানুয়ারি ২০১৭, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

চাকরির প্রথম বছরটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। শুরুতে যা শিখবেন সেই ভিতটাই কিন্তু কাজে দেবে পরবর্তীকালে। তাই এই প্রথম বছরটা সজাগ থাকুন। ভালো কাজের পাশাপাশি হয়ে

উঠুন দক্ষ কর্মী। জানাচ্ছেন শামীম ফরহাদ

চাকরি করুন পুরো বছরটা

প্রথম চাকরি কমপক্ষে এক বছর করুন। যত সমস্যাই থাক, এক বছরের আগে চাকরি ছাড়ার কথা ভাববেন না। কারণ প্রথম বছরেই অনেক কিছু শেখার থাকে। তাই এক বছরের আগে চাকরি ছাড়লে পরে যেখানে জয়েন করতে যাবেন সেই কোম্পানি ভাবতেই পারে আপনার শেখার ইচ্ছা কম বা আপনি মানিয়ে নিতে পারেন না।

 

গুরুত্বপূর্ণ সময়ানুবর্তিতা

অফিসের সব কাজ সময়মতো করুন। অফিসে পৌঁছনো থেকে শুরু করে প্রোজেক্ট রিপোর্ট জমা দেওয়া, কোনো কাজ সময় পেরিয়ে যাওয়ার পর করবেন না। কাজ হয়ে গেলেই বেরিয়ে যাবেন না। অন্য সহকর্মীদের কোনো সাহায্যের প্রয়োজন আছে কিনা জেনে নিন। তাদের সঙ্গে বেশিক্ষণ থাকলে বেশি কাজ শিখতে পারবেন।

 

নাম ভোলার নয়

অফিসে সহকর্মী সবার নাম মনে রাখার চেষ্টা করুন। তারপর তাদের সম্বন্ধে অল্প কিছু ইনফো জেনে রাখুন। যেমন কে কোথায় থাকেন, কোথাকার ছাত্র ছিলেন, কোন ডিপার্টমেন্ট দেখেন, কার মেজাজ কেমনÑ এ বিষয়ে কিছুটা জেনে রাখলে আখেরে আপনারই সুবিধা হবে।

 

অবশ্যই বেশি কাজ করুন

প্রথম একটা বছর একটু বেশি কাজ করুন। চাকরির এগ্রিমেন্টে যা লেখা আছে সেই কাজ করার সঙ্গে সঙ্গে যা লেখা নেই সেই কাজও করার চেষ্টা করুন। নিজের কাজ হয়ে যাওয়ার পর সহকর্মীদের ব্যক্তিগত কোনো কাজেও সাহায্য করে দিন। অফিসে নতুন কোনো টেকনোলজির ব্যবহার শুরু হলে তা দ্রুত অধঃস্থ করুন। এতে হয়তো আপনার বাড়ি ফিরতে কিছুটা রাত হবে। কিন্তু এক বছর পর এটারই ফল পাবেন।

 

খাবার ভাগ করে নিন

একসঙ্গে লাঞ্চ করুন। আপনার সুপারভাইজার বা সিনিয়র কলিগদের এড়িয়ে যাবেন না। কারণ এটাই শ্রেষ্ঠ

সময় পজিটিভ রিঅ্যাকশন তৈরি করার।

 

নিজেকে গুটিয়ে নয়, উজাড় করে দিন

প্রথম এক বছর যে কাজই করবেন, নিজের শ্রেষ্ঠটা দেওয়ার চেষ্টা করুন। কিছুদিন সিনিয়ররা কীভাবে কাজ করছেন পর্যবেণ করুন। তারপর সেই অনুযায়ী নিজের কাজটা করুন।

 

অফিসে যাদের এড়িয়ে চলবেন

অফিসে মিথ্যুক, শর্ট-কাট মাস্টার, ফ্যামিলি পারসন, প্রবলেম চাইল্ড আর আয়েশিদের এড়িয়ে চলবেন। এরা আপনার উপকার তো করবে না, উল্টো পদে পদে সমস্যায় ফেলবে।

 

অফিসকে কলেজের থেকে আলাদা করুন

কলেজ আর অফিসে বিস্তর ফারাক। এখানে কলেজের মতো বছরে একবার পরীক্ষা হয় না। অফিসে কিন্তু রোজই পরীক্ষা। আপনার প্রতিদিনের পারফরম্যান্সের ওপর নির্ভর করবে আপনার টিকে থাকা।

 

বস সম্পর্কে নলেজ রাখুন

মনে রাখবেন বস কিন্তু আপনার বন্ধু বা আত্মীয় নয়। তার ব্যবহার যতই বন্ধুত্বপূর্ণ হোক না কেন, মনে রাখবেন আপনার কাজটাই কিন্তু শেষ পর্যন্ত কথা বলবে।

 

হয়ে উঠুন প্রফেশনাল

প্রফেশনাল হয়ে উঠুন। শুধু কাজ নয়, পোশাক, ম্যানার্স, চলাফেরা, কথা বলা সব ক্ষেত্রে প্রফেশনাল হয়ে উঠুন। নিজের লক্ষ্যে পৌঁছনোর সঙ্গে সঙ্গে পুরো টিমকেও এগিয়ে নিয়ে চলার চেষ্টা করুন।

 

 

"

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে