গাছও চিন্তা করতে পারে!

  প্রদীপ সাহা

২৪ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গাছের জীবন আছে, গাছ খাবার খায়Ñ এসব কথা তোমরা প্রায় সবাই শুনেছ। বিজ্ঞানী জগদীশ চন্দ্র বসু অনেক আগেই এ তথ্য আবিষ্কার করেছেন। আর এ তথ্যের সত্যতা নিয়েও এখন আর কারো সন্দেহ বা কোনো রকম প্রশ্ন নেই। এখন যদি বলা হয়, গাছ চিন্তাও করতে পারেÑ তা হলে নিশ্চয় খুব অবাক হবে। কিন্তু গবেষকরা এ কথাটি উড়িয়ে দিচ্ছেন না। পোল্যান্ডের ওয়ারশ ইউনিভার্সিটি অব লাইফ সায়েন্সের অধ্যাপক স্তানিসøাভ কারপিনস্কি। তিনিই গবেষণা করে জানিয়েছেন, গাছ চিন্তা করতে পারে। গাছের স্মরণশক্তিও বেশ ভালো। শুধু তা-ই নয়, বিশেষ কোনো ঘটনা অনুযায়ী গাছ নিজেদের প্রতিক্রিয়াও প্রকাশ করতে পারে। গবেষণায় আরও একটি বিস্ময়কর তথ্য বেরিয়ে এসেছে যে, গাছের শুধু একটি পাতার ওপর আলো ফেললে পুরো গাছই এতে সাড়া দেয়। তবে পাতা ছাড়া শুধু গাছের নিচের অংশে আলো ফেললেও ওপরের অংশে একই রকম প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়ে থাকে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, পাতা কিংবা গাছের নিচের অংশে আলো ফেলা বন্ধ করে দিলেও এই একই ধরনের প্রতিক্রিয়া চলতে থাকে। গবেষকদের মতে, গাছের এ সাড়া জাগানোর ব্যাপারটা পাতার মধ্যে আলোকতাড়িত রাসায়নিক বিক্রিয়ায় রূপ নেয়, যা অন্ধকারেও চলতে থাকে। আর এতে সহজেই প্রমাণিত হয়, আলোর সময় ধারণ করা তথ্য গাছ পরবর্তী সময়েও মনে করতে পারে। গাছ নিজের পাতাগুলোর আলোর তীব্রতা সম্পর্কে তথ্যগুলো তার কোষের মাধ্যমে মানুষের শরীরের স্নায়ুতন্ত্রের কাজের মতো করে স্থানান্তর করে। আর কোষগুলোর মাধ্যমে যাবতীয় তথ্য তড়িৎ রাসায়নিক সংকেত হিসেবে পরিবাহিত হয়। এ গবেষণায় আরও মজার যে জিনিসটি বেরিয়ে এসেছে তা হলোÑ প্রদর্শিত আলোর ভিন্নতা অনুযায়ী গাছ ভিন্নভাবে তাদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। গাছের ওপর লাল, নীল ও সাদা আলো ফেলে দেখা গেছে, একেক রঙের আলোর বিপরীতে এরা ভিন্ন ধরনের প্রতিক্রিয়া দেখায়। সহজ করে বলা যায়, আলোর ধরন অনুযায়ী নিজেদের মধ্যে সঞ্চিত তথ্যের ভিত্তিতেই গাছ একেক সময় একেক ধরনের সাড়া দেয় এবং বিভিন্ন রকম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বদলে যাচ্ছে গবেষণার ধরন। আর এরই পরিপ্রেক্ষিতে আমরাও জানতে পারছি নতুন অজানা তথ্য। বিজ্ঞানের এ উন্নতির ভবিষ্যতে তোমরা যখন বড় বড় বিজ্ঞানী হবে, গবেষণা করবে নানা বিষয় নিয়ে তখন নিশ্চয় আমরা আরও নতুন নতুন বিষয় সম্পর্কে নতুন করে জানতে পারব।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে