কব্জির ব্যথা অবহেলাযোগ্য নয়

  ডা. এম ইয়াছিন আলী

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কব্জির ব্যথা মোটেও হেলাফেলার ব্যাপার নয়। কব্জিতে সমস্যা দেখা দিলে সাধারণত বৃদ্ধাঙ্গুলি ও তর্জনীতে বেশি ব্যথা অনুভূত হয়ে থাকে। কখনো বৃদ্ধাঙ্গুলের পাশ দিয়ে ওপরের দিকে ব্যথা হয়। রাতে হাত অবশ হয়ে আসে। অস্থিরতায় ঘুম হয় না। বিভিন্ন কারণে এ ব্যথা হতে পারে। ডিকোয়ারভ্যান টেনো-সাইনোভাইটিস এসব সমস্যার মধ্যে অন্যতম। সাধারণত মধ্যবয়স্ক নারীরা এ সমস্যায় বেশি আক্রান্ত হয়।

সমস্যার কারণ : বিভিন্ন কারণে হতে পারে। উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হলোÑ আঘাত পাওয়া, হাত দিয়ে ভারী কিছু তুলতে গিয়ে সমস্যা হওয়া, রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, একটানা লেখালেখি, দা, কোদাল বা কুড়াল দিয়ে কাটাকাটি, ড্রিল মেশিন ব্যবহার ইত্যাদি।

লক্ষণ : এ রোগে আক্রান্ত রোগী হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলটি নাড়াতে পারে না। কাপড় চিপতে কষ্ট হয়। বুড়ো আঙুলের গোড়ায় মাংসপেশি অনেক সময় শুকিয়ে যায়। আঙুল বেশ দুর্বল হয়ে পড়ে এবং কাজ করলে ব্যথা বাড়ে। ব্যথা অনেক সময় কব্জি থেকে ওপরের দিকে উঠতে থাকে।

চিকিৎসা : এ ক্ষেত্রে ওষুধের পাশাপাশি ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা ভালো কাজে লাগে। কিছু ক্ষেত্রে ইনজেকশন দিতে হয়।

সতর্কতা : এ সময় পর্যাপ্ত বিশ্রামের প্রয়োজন দেখা দিয়ে থাকে। হাতের কব্জিও ওপর চাপ পড়ে, এমন কাজ পরিহার করতে হবে। পাশাপাশি মানতে হবে কিছু নিয়ম। যেমনÑ হাত দিয়ে ভারী কিছু তোলা যাবে না। কাপড়-চোপড় চেপা যাবে না। টিউবওয়েল চাপবেন না। একটানা বেশিক্ষণ লেখালেখি করা যাবে না। দা, কোদাল বা কুড়াল দিয়ে কাটাকাটি না করা। ড্রিল মেশিন ব্যবহার না করা।

লেখক : বাতব্যথা, প্যারালাইসিস রোগে ফিজিওথেরাপি বিশেষজ্ঞ

চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালট্যান্ট

ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল, ধানম-ি, ঢাকা। ০১৭৮৭১০৬৭০২

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে