খুশকি নির্মূল নয় দমন করা যায়

  ডা. দিদারুল আহসান

১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মাথা থেকে আঁশের মতো মরা চামড়া ওঠার নাম খুশকি। বয়ঃসন্ধিকাল ও প্রাপ্তবয়স্করা সাধারণত এ রোগে বেশি ভোগেন। এ রোগে মাথার চামড়া চুলকায়। চিরুনি দিয়ে চুলকালে ভালো লাগে। খুশকি খুব বেশি হলে এটিকে সেবোরিক ডার্মাটাইটিসের বহিঃপ্রকাশ বলে ধরা হয়। তবে খুশকির সঙ্গে সেবোরিক ডার্মাটাইটিসের পার্থক্য হলোÑ খুশকিতে মাথা থেকে আঁশযুক্ত মরা চামড়া ওঠে। তবে মাথায় কোনো প্রদাহ থাকে না। যদি মাথায় খুশকি অর্থাৎ মরা আঁশের মতো চামড়া ওঠে, এর সঙ্গে প্রদাহও থাকেÑ তা হলে সেটি সেবোরিক ডার্মাটাইটিস বলে ধরে নেওয়া হয়। মনে রাখতে হবে, খুশকি সব সময় নির্মূল করা সম্ভব হয় না। তবে খুশকি নিবারক শ্যাম্পু দিয়ে দমিয়ে রাখা যায়। দমিয়ে রাখা খুব গুরুত্বপূর্ণ। কারণ দমিয়ে না রাখলে এ থেকে মাথার চুল ঝরে যেতে থাকে। খুশকি হলে মাথায় তেল দেন অনেকে। এটি ভুল পদ্ধতি। কেননা এতে মাথা তৈলাক্ত ও ভেজা থাকায় একশ্রেণির ছত্রাক আক্রমণ করে। খৈল ব্যবহারেও একই ঘটনা ঘটতে পারে। এ জন্য যাদের মাথায় খুশকি হয়, তাদের মাথা ভেজা রাখা যাবে না। বরং পরিষ্কার রাখতে হবে। শুধু তা-ই নয়, খুশকি আছে যারÑ তার চিরুনি অন্য কারো ব্যবহার করা উচিত নয়।

চিকিৎসা : খুশকি ও সেবোরিক ডার্মাটাইটিসের চিকিৎসা প্রায় একই ধরনের। খুশকি নিবারক শ্যাম্পুÑ জিংক পাইরিথিওন, সেলেনিয়াম সালফাইড অথবা কেটোকোনাজল শ্যাম্পু ব্যবহারে খুশকি দমন করা সম্ভব। তবে যদি বেশি পরিমাণ প্রদাহের লক্ষণ উপস্থিত থাকে, তা হলে এসব শ্যাম্পু ব্যবহারের পাশাপাশি কম শক্তিশালী কর্টিসোন লোশন বা জেল ব্যবহার করলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

লেখক : চর্ম ও অ্যালার্জি রোগ বিশেষজ্ঞ

সিনিয়র কনসালট্যান্ট

ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, আল-রাজি হাসপাতাল, ফার্মগেট, ঢাকা

০১৭১৫৬১৬২০০, ০১৮১৯২১৮৩৭৮

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে