• অারও

ব্রণের প্রকোপ থেকে দূরে থাকা যায়

  ডা. এসএম বখতিয়ার কামাল

১০ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সেবা সিয়াস গ্রন্থি সেবাম নামে এক ধরনের তৈলাক্ত পদার্থ নিঃসরণ করে, যা ত্বক মসৃণ রাখে। কোনো কারণে সেবা সিয়াস গ্রন্থির নালির মুখ বন্ধ হয়ে গেলে সেবাম নিঃসরণের বাধার সৃষ্টি হয় এবং তা ভেতরে জমে ফুলে ওঠে। এটাই ব্রণ নামে পরিচিত। ব্রণ তৈরি হওয়ার পর্যায়ে এটির মুখ বন্ধ থাকে। ফলে সাদাটে দেখায়। বন্ধ নালির মুখে জমাকৃত কোষগুলো ক্রমে কালো হয়। এর নাম কালো ফোঁটা। প্রায়ই ব্রণের চারপাশে প্রদাহ শুরু হয় এবং রঙ লাল দেখায়। এটির ওপর জীবাণু সংক্রমণ ঘটলে পুঁজ তৈরি হয়। বাইরে থেকে এগুলো ছোট দেখালেও বেশ গভীর হতে পারে। এ জন্য ব্রণে সংক্রমণ সেরে গেলেও মুখে দাগ থেকে যেতে পারে।

ব্রণ হলে করণীয় : দিনে দু-তিনবার হালকা সাবান বা ফেসওয়াশ দিযে মুখ ধোবেন। ব্রণে হাত লাগাবেন না। তেল ছাড়া অর্থাৎ ওয়াটার বেসড মেকআপ ব্যবহার করবেন। মাথা খুশকিমুক্ত রাখার চেষ্টা করুন। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকুন এবং নিজের জন্য আলাদা তোয়ালে রাখুন। রাতে ঠিকমতো ঘুমানোর চেষ্টা করুন। মানসিক চাপ পরিহার করুন। প্রচুর ফল, সবজি খান ও পানি পান করুন। কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে তা দূর করতে হবে। ঝাল-মসলাযুক্ত ও তৈলাক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। পুুষ্টিহীনতায় ভুগলে প্রোটিন ও ভিটামিনসমৃদ্ধ খাবার খাবেন।

ব্রণ হলে যা করবেন না : রোদে বের হবেন না। তেলযুক্ত ক্রিম বা ফাউন্ডেশন ব্যবহার করবেন না। ব্রণে হাত লাগানো ও খুঁটবেন না। চুলে এমনভাবে তেল দেবেন না, যাতে মুখও তেলতেলে হয়। ব্রণ হলে একেবারেই আচার খাবেন না। তবে মিষ্টি চাটনি খেতে পারেন। বেশি পরিমাণে নিরামিষ খাবার খান। আমিষ খাবার না খাওয়ার চেষ্টা করুন। ডেইরি প্রোডাক্টসের মধ্যে হরমোনাল উপাদান বেশি পরিমাণে থাকে বলে তা খুব সহজে রক্তের সঙ্গে মিশে যায়। এ কারণে পনির, দুধ ও দই কম খাবেন। কোল ড্রিঙ্কস খাওয়া বন্ধ করে দিন। আয়ুর্বেদ মতে, অতিরিক্ত ক্রোধে শরীরে পিত্ত সঞ্চিত হয়। তাই ক্রোধ থেকে নিজেকে বাঁচিয়ে রাখুন। প্রতিদিন ৯-১০ গ্লাস পানি খাবেন। প্রতিদিন রাতের খাবারের পর মৌসুমি ফল খাবেন। এতে ত্বক সতেজ থাকবে। সব সময় বাইরে থেকে আসার পর মুখ ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এ ছাড়া হালকা গরম পানির স্টিম নিতে পারেন। এতে করে ত্বকে জমে থাকা ধুলোবালি পরিষ্কার হয়ে যাবে। যারা বহুদিন ধরে ব্রণ সমস্যায় ভুগছেন এবং কোনো কিছুতেই কাজ হচ্ছে না, তারা আর দেরি না করে কোনো অভিজ্ঞ ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।

লেখক : সহকারী অধ্যাপক, চর্ম ও যৌনরোগ বিভাগ, ঢাকা

মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

চেম্বার : কামাল স্কিন সেন্টার, গ্রিন রোড, ঢাকা। ০১৭১১৪৪০৫৫৮

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে