পলিপাসের চিকিৎসা

  ডা. এসএম আবদুল আজিজ

১১ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নাকের অসুখের মধ্যে পলিপাস একটি। এতে নাকের ভেতর আক্রান্ত হয়ে নাকের ছিদ্র বন্ধ হয়ে যেতে পারে। অনেক সময় ন্যাজাল পলিপাস থেকে রক্ত বের হয়। নাকের পলিপাস দেখতে আঙুরের মতো। নাসিকার্বুদ নাসারন্ধ্রের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লি থেকে এর উৎপত্তি। এ রোগের লক্ষণ হলোÑ নাসারন্ধ্রের অস্বাভাবিকতা দেখা যায়। নাসিকার্বুদ নারীর তুলনায় পুরুষের বেশি হয়ে থাকে। অনেক সময় বংশানুক্রমেও হয়ে থাকে। নাসাবুর্দ প্রায় সময় নরম, নীল বর্ণ, মসৃণ শ্বেতময় ও পুঁজময় ক্ষত হতে দেখা যায়। নাকের ছিদ্র বন্ধ হলে মুখ দিয়ে নিঃশ্বাস নিতে হয়। রক্তে সিরাম আইজিই’র পরিমাণ বেড়ে গেলে ঠা-া, সর্দি, হাঁচি-কাশি ও নাক দিয়ে টপ টপ করে পানি পড়তে থাকে। নাকের ভেতরের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লিগুলোয় অ্যালার্জিক প্রদাহ সৃষ্টি হয় এবং ঝিল্লি থেকে ক্রমে এক ধরনের মাংসপি-ের সৃষ্টি হয়। আবহাওয়ার পরিবর্তন হলেই সমস্যা বেশি দেখা দেয়। বারবার হাঁচি, নাক দিয়ে পানি পড়া, নাক বন্ধ থাকা, নাক দিয়ে নিঃশ্বাস নিতে কষ্ট হওয়ার পাশাপাশি অনেক সময় মাথাব্যথা হয়, নাক চুলকায়, নাকব্যথা ও স্মৃতিশক্তি কমে যায় এবং মুখ হাঁ করে নিঃশ্বাস নিতে হয় বলে ঘুমাতে কষ্ট হয়। এ রোগ নির্মূলের জন্য কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর রোগ নির্ণয় করে উপযুক্ত লক্ষণ ও সমস্যা সংগ্রহ করে হোমিও চিকিৎসা দিলে অপারেশন ছাড়াই সুস্থতা লাভ করা যায়। পলিপাসের রোগীকে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। যেমনÑ সব সময় অ্যালার্জি জাতীয় খাবার; ঠা-া ও ধুলাবালি থেকে দূরে থাকতে হয়। যথাসময়ে চিকিৎসা না নিলে সাইনাসে ইনফেকশন হয়ে সাইনোসাইটিস ও অ্যাজমা দেখা দিতে পারে।

চেম্বার : আল-আজিজ হেলথ সেন্টার, ৫৩ পুরানা পল্টন, বায়তুল আবেদ, ঢাকা। ০১৭১০২৯৮২৮৭

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে