কিডনি রোগের কিছু লক্ষণ

  ডা. মো. অহিদুজ্জামান

১৫ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ০০:২৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

কিডনি আমাদের শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। সময়মতো চিকিৎসা না করালে কিডনি রোগের শেষ পরিণতি দীর্ঘস্থায়ী হয়। পাঁচটি ধাপে কিডনি বিকলের দিকে অগ্রসর হয়। প্রথম চারটি ধাপ পর্যন্ত চিকিৎসার মাধ্যমে নিরাময় অথবা যে গতিতে কিডনি ক্ষয় হচ্ছে, তা কমিয়ে আনা যায়। কিন্তু পাঁচ নম্বর ধাপে চলে গেলে রোগীর বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজন হয় ডায়ালাইসিস অথবা কিডনি সংযোজন। এসব পদ্ধতি খুব ব্যয়বহুল। তাই এ ঘাতক ব্যাধি থেকে বাঁচার উপায় হলোÑ কিডনি বিকলতা প্রতিরোধ করা। কিডনি রোগের লক্ষণগুলো হলোÑ প্রস্রাবে পরিবর্তন হওয়া এ রোগের অন্যতম লক্ষণ। এ সময় প্রস্রাব বেশি বা কম হয়। বিশেষ করে রাতে সমস্যাটি বাড়ে। প্রস্রাবের রঙ গাঢ় হয়। অনেক সময় প্রস্রাবের বেগ অনুভূত হলেও প্রস্রাব হয় না। প্রস্রাবের সময় ব্যথা হওয়া কিডনির সমস্যার আরেক লক্ষণ। মূলত প্রস্রাবের সময় ব্যথা, জ্বালাপোড়া হতে পারে। যখন এটি কিডনিতে ছড়িয়ে পড়ে, তখন জ্বর হয় এবং পিঠের পেছনে ব্যথা করে। প্রস্রাবের সঙ্গে রক্ত গেলে দ্রুত চিকিৎসা নিন। এটিও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ লক্ষণ। কিডনি অকার্যকর হয়ে পড়লে রক্তে বর্জ পদার্থ বাড়তে থাকে। এটি ত্বকে চুলকানি এবং র্যাশ তৈরি করতে পারে। রক্তে বর্জ্য পদার্থ বেড়ে যাওয়ায় কিডনি রোগে বমি বমি ভাব এবং বমি হওয়ার সমস্যা হতে পারে। কিডনি রোগে ফুসফুসে তরল জমা হয়। রক্তশূন্যতাও দেখা দেয়। কাজেই লক্ষণ বুঝে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

লেখক : কনসালট্যান্ট, ইউরোলজি বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়

চেম্বার : সেন্ট্রাল হসপিটাল, বাড়িÑ২, রোডÑ৫, গ্রিনরোড

ধানম-ি, ঢাকা। ০১৭১১০৬৩০৯৩

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে