গ্রিন টির উপকারিতা

  ডা. আলমগীর মতি

১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০০:২০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্রিন টি স্বাস্থ্যের জন্য যে উপকারী, এ কথা সবার জানা। এতে থাকা পলিফেনল শরীরের ফ্যাট অক্সিডেশন প্রক্রিয়া আরও কার্যকর করে খাবার থেকে ক্যালরি তৈরির প্রক্রিয়ায় সাহায্য করে। ফলে দেহে অতিরিক্ত চর্বি জমতে পারে না। গবেষণায় উঠে এসেছে, এটি একদিনে ৭০ ক্যালরি ফ্যাট বার্ন করতে পারে। গ্রিন টি রক্তের গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। খাওয়ার পর রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যায়। রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে গ্রিন টি সরাসরি সাহায্য করে। তাই এটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে খুব কার্যকরী। হৃদরোগের ঝুঁকি কমানোর ক্ষেত্রে গ্রিন টি কার্যকরী। শুধু তা-ই নয়, এটি রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না। পাশাপাশি শরীরের ক্ষতিকর কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। ফলে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা অনেকটাই কমে যায়। দাঁত ভালো রাখতে হলে গ্রিন টি পান করতে পারেন। কারণ গ্রিন টির ক্যাটেকাইন নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট মুখের ভেতরের ব্যাকটেরিয়া বাড়তে দেয় না। ফলে গলার সংক্রমণসহ দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা কমিয়ে আনতে সাহায্য করে। নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়। অবসাদ বা ডিপ্রেশন দূর করতে গ্রিন টি খুবই কার্যকরী। চা পাতায় থিয়ানিন নামক অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে, যা অবসাদ কমাতে সাহায্য করে। তবে মনে রাখতে হবে, খাবার খাওয়ার আগে বা পরে গ্রিন টি পান করা উচিত নয়। এতে হজমের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ঘুমাতে যাওয়ার আগে গ্রিন টি ভুলেও খাওয়া যাবে না। এতে ঘুম নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই উপকার পেতে হলে সঠিক সময়ে পরিমাণ মতো পান করতে হবে।

লেখক : বিশিষ্ট হারবাল গবেষক ও চিকিৎসক। ০১৯১১৩৮৬৬১৭, ০১৬৭০৬৬৬৫৯৫

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে