ত্বকে সাদা দাগ মানেই শ্বেতি নয়

  ডা. এসএম বখতিয়ার কামাল

১৮ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০১৮, ০৮:৩৪ | প্রিন্ট সংস্করণ

শ্বেতি হচ্ছে কালো রঞ্জক প্রস্তুতকারী বহির্ত্বকের মেলানোসাইটের অনুপস্থিতিজনিত চর্মের বর্ণের এক ধরনের অস্বাভাবিকতা, যে কারণে শরীর ও শ্লেষ্মা ঝিল্লির বিভিন্ন স্থানে দুগ্ধ ধবল সাদা দাগের সৃষ্টি হয়। তবে সাদা দাগ হলেই যে তা শ্বেতি হবে, তা কিন্তু নয়।

শরীরের বিভিন্ন স্থানে নানা চর্মরোগও সাদা সাদা দাগ সৃষ্টির কারণ হতে পারে। যেমন-মরকিয়া, লাইকেন স্কেরোসাস, পিট্রিয়াসিস এলবা, পিট্রিয়াসিস ভার্সিকলর, পিন্টা, কুষ্ঠরোগ, রাসায়নিক লিউকোডার্মা, এলবিনিজম পিবালডিজম, লিভাস এনেমিকাস ইত্যাদি। আবার সাদা হলেও যে শ্বেতিরোগ হবে না, তা কিন্তু নয়।

শ্বেতিরোগ উজ্জ্বল সাদা বা চকের মতো ধবধবে সাদা বর্ণের হয় এবং এটি স্বাভাবিক বর্ণের চামড়া থেকে সুস্পষ্ট সীমারেখায় পৃথক থাকে। চামড়ার সাদা অংশে কোনো রকম আঁশ বা চর্মের গড়নে, গঠনে ও পুরুত্বে অস্বাভাবিকত্ব থাকে না। তবে পর্যবেক্ষণের সাহায্যে এ রোগের প্রকৃতি, বিস্তৃতি, বর্ণ ও আনুষঙ্গিক বৈশিষ্ট্য দেখে একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ খুব সহজে এ রোগ নির্ণয় করতে পারেন। ক্ষেত্রবিশেষে উডস ল্যাম্প পরীক্ষা ও চর্ম বায়োপসির প্রয়োজন হয়।

এ রোগ কেন হয়, তার কারণ এখনো অজানা। শ্বেতিরোগের সঙ্গে কিছু অভ্যন্তরীণ রোগের সহাবস্থান থাকতে পারে। যেমন টাইপ এক বহুমূত্র রোগ, চোখের রোগ, পারনিসিয়াস এনিমিয়া থাইরয়েড রোগ, এডিসন্স ডিজিস, এলো পোসিয়া এরিয়াটা ইত্যাদি। এ জন্য শ্বেতিরোগী চর্ম ও যৌনরোগ বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হলে রোগ সম্পর্কে ভালো ধারণা দিতে পারবেন।

লেখক : সহকারী অধ্যাপক

চর্ম ও যৌনরোগ বিভাগ

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল

চেম্বার : কামাল স্কিন সেন্টার, গ্রিন রোড, ঢাকা। ০১৭১১৪৪০৫৫৮

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে