ঘূর্ণিবায়ু ও ধূসরকাবিন

রোমান্টিক আবহে মানবমনের গভীর পাঠ

  মুনশি আলিম

০৪ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলা কথাসাহিত্যে মোজাম্মেল হক নিয়োগী এক আলোচিত নাম। তিনি মূলধারার একজন প্রতিভাবান লেখক। একটি-দুটি করে তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থসংখ্যা সেঞ্চুরি অতিক্রম করেছে। লিখেছেন বেশি কিন্তু সেই তুলনায় আলোচনায় এসেছেন কম। তবে খুবই শীঘ্রই তিনি জাতীয়ভাবে আলোচিত হবার দাবি রাখেন। তাঁর যেসব উপন্যাস বাস্তবতার পটভূমি নিয়ে লেখা তন্মধ্যে তাঁর ঘূর্ণিবায়ু ও ধূসরকাবিন অন্যতম। অসাম্প্রদায়িক চেতনায় পুরো উপন্যাসটিকে দিয়েছেন ভিন্নধর্মী আবহ। মানবমনের গভীর থেকে গভীরে প্রবেশ করে তিনি সুচারুরূপে ফুটিয়ে তুলেছেন নারী-পুরুষ চরিত্রের জ্ঞাত ও অজ্ঞাত নানা দিক। ঘূর্ণিবায়ু ও ধূসরকাবিন উপন্যাসটি মোট ২৫টি পর্বে বা অনুচ্ছেদে বিভক্ত। ২০১৬ সালে বইটি প্রকাশ করেছে অনুপ্রাণন প্রকাশন। বইটির খুচরা মূল্য ধরা হয়েছে ২৬০ টাকা। উপন্যাসটি শুরু হয়েছে ব্রহ্মপুত্রের বৈকালিক সৌন্দর্য বর্ণনার মধ্য দিয়ে। এর কেন্দ্রীয় চরিত্র নাদিরা। নাদিরার মতোই আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র নির্মল। মূলত নাদিরা ও নির্মলের প্রেমকাহিনিই এ উপন্যাসের মূল উপজীব্য বিষয়। দুজন দুই ধর্মের অনুসারী। তারা দুজনেই একটি এনজিওতে কাজ করে; তাও আবার একই অফিসে। ঘূর্ণিবায়ু ও ধূসরকাবিন উপন্যাসের পটভূমি কয়েক জেলা ও উপজেলা জুড়ে বিস্তৃত। বিশেষ করে কুমিল্লা, যশোর, ফরিদপুর, ময়মনসিংহ, রৌমারী, ইটনা, প্রভৃতি স্থানগুলো বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। উপন্যাসের শুরুটাই অত্যন্ত চমৎকার ও কাব্যময়তা দিয়ে। উপন্যাসের কোনো কোনো ঘটনাকে তিনি বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিভঙ্গিতে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করছেন। এ উপন্যাসে অসাম্প্রদায়িক চেতনার মিথস্ক্রিয়া ঘটানোর প্রয়াসে দুটি ধর্মের মেলবন্ধন তৈরি করার চেষ্টা করা হয়েছে। বিশেষ করে বৈবাহিক বন্ধন; যা সবচেয়ে স্পর্শকাতর বিষয়। তাঁর উপন্যাসে কিছু নতুন ও অপরিচিত শব্দ যুক্ত হয়েছে। শব্দগুলোকে তিনি আবার যুতসই ব্যবহার করেছেন। যেমন ব্রীড়ানত, পয়মন্ত, পলেস্তরা প্রভৃতি। অবশ্য এর চেয়ে আরও সহজ শব্দ তিনি ব্যবহার করেত পারতেন। মূলত এ উপন্যাসে এনজিওকর্মীদের সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনার পটভূমিই শৈল্পিকভাবে চিত্রিত হয়েছে। লেখার প্লট, ভাব-ভাষা, চরিত্রচিত্রণ, সংলাপ চয়ন, সন্নিবেশ, পরম্পরা, কাহিনির গভীরতা, সময়ের ঐক্য, ব্যাপ্তি, সমাপ্তি সবকিছু মিলিয়ে উপন্যাসটি হয়ে উঠেছে অনন্য। ভাষার সরলতা ও কাহিনির গতিশীলতা পাঠকে তীব্রভাবে আকৃষ্ট করবে বলেই আমার বিশ্বাস এবং পাঠক অবশ্যই উপন্যাসটিকে মূল্যায়ন করবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে