ব্যাংকে ফের চালু হচ্ছে

আকর্ষণীয় মুনাফার সঞ্চয় প্রকল্প

  হারুন-অর-রশিদ

২২ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বছর তিনেক আগে ব্যাংকগুলোতে সঞ্চয়কারীদের আকৃষ্ট করতে আকর্ষণীয় অনেক প্রকল্প ছিল। লাখপতি, কোটিপতি হওয়ার স্বপ্ন দেখিয়ে জমার দ্বিগুণ বা তিনগুণ অর্থ ফেরত পেতেন গ্রাহকরা। কিন্তু অলস তারল্যের কারণে গত ৩ বছর ধরে একে একে সব আকর্ষণীয় সঞ্চয় প্রকল্পগুলো বন্ধ করে দিয়েছে ব্যাংকগুলো। চালু প্রকল্পগুলোতেও মুনাফার হার কমিয়ে দিয়েছে। ফলে আমানতকারীরা ব্যাংক বিমুখ হয়েছে। এতে আমানত কমে গেছে। এদিকে নির্বাচনী বছরে ঋণের চাহিদা বেড়ে গেছে। এতে করে গত জানুয়ারি থেকেই ব্যাংকগুলো আমানত সংকটে পড়ে। অর্থ সংকটে পড়ায় আগের বন্ধ করে দেওয়া আকর্ষণীয় মুনাফার সঞ্চয় প্রকল্পগুলো আবার সচল করেছে ব্যাংকগুলো। মাত্র ৩ থেকে ৬ শতাংশে নেমে আসা আমানতের সুদ হার এখন ১২ শতাংশে পৌঁছেছে।

ব্যাংকগুলোর বন্ধ করে দেওয়া দ্বিগুণ বৃদ্ধি আমানত প্রকল্প, তিনগুণ বৃদ্ধি আমানত প্রকল্প, লাখপতি সঞ্চয় প্রকল্প, কোটিপতি সঞ্চয় প্রকল্প, মাসিক কিস্তিভিত্তিক সঞ্চয় প্রকল্পগুলো আবার চালু করা হয়েছে। একই সঙ্গে এসব প্রকল্পের মুনাফার হারও বাড়ানো হয়েছে। সঞ্চয়কারীদের আমানতে নিরুৎসাহিত করতে কয়েকটি ব্যাংক নতুন হিসাব খোলা ও আগের হিসাব পরিচালনা করার ওপর যেসব শর্ত আরোপ করেছিল সেগুলো তুলে দেওয়া হয়েছে।

এবি ব্যাংকের দ্বিগুণ সঞ্চয় প্রকল্প : গত মাসে এককালীন ও মাসিক সঞ্চয়ের মাধ্যমে মাত্র ৩ বছরে দ্বিগুণ অর্থ দিতে ‘ডিপোজিট ডাবল ইনস্টলমেন্ট স্কিম’ চালু করেছে। এই স্কিমের আওতায় যে কোনো ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান ডিপোজিট করতে পারবেন। উদাহরণ হিসেবে কেউ ৫০ হাজার টাকা প্রাথমিক জমা দিয়ে হিসাব খুললে তাকে মাসে কিস্তি দিতে হবে ৯১০ টাকা। তিন বছর পর তিনি ১ লাখ টাকা ফেরত পাবেন। তবে কিস্তির পরিমাণ নির্ধারণ হবে প্রাথমিক জমার ওপর ভিত্তি করে। জমাকৃত টাকার ৯০ শতাংশ পর্যন্ত ঋণ নেওয়া যাবে। এই প্রকল্পের কার্যকর সুদ হার সাড়ে ৯ শতাংশ। এবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মশিউর রহমান চৌধুরী বলেন, সঞ্চয়কারীদের আকর্ষণ করতে এই প্রকল্প চালু করা হয়েছে। এতে আমানতকারীদের সঞ্চয়ে উৎসাহিত হবেন।

প্রিমিয়ার ব্যাংকের মাসিক সঞ্চয় : আগে থেকেই থাকা মাসিক সঞ্চয় স্কিমের সুদ হার বাড়িয়েছে প্রিমিয়ার ব্যাংক। ওই প্রকল্পে অর্থ জমা রেখে ১২ শতাংশ পর্যন্ত সুদ পাবেন গ্রাহকরা। প্রতিমাসে মাত্র ৫০০ টাকা জমা রেখে এই সুবিধা নেওয়া যাবে। বাড়তি সুবিধা হিসেবে গ্রাহকের অর্থের বিপরীতে বিনামূল্যে বীমা সুরক্ষিত সুবিধা দিচ্ছে ব্যাংকটি।

সাউথ বাংলা ব্যাংকের দ্বিগুণ ও তিনগুণ মুনাফা প্রকল্প : মাত্র ৬ বছরে দ্বিগুণ এবং ১০ বছরে তিনগুণ অর্থ ফেরত দিতে দুটি প্রকল্প চালু করেছে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স ব্যাংক। কমপক্ষে ১০ হাজার টাকা বা এর গুণিতক যে কোনো পরিমাণ অর্থ ৬ বছর ৩ মাস জমা রাখলে দ্বিগুণ টাকা ফেরত দেওয়া হবে। এ ক্ষেত্রে কার্যকর সুদ হার ১২ শতাংশ। এ ছাড়া ১০ বছর জমা রাখলে পাওয়া যাবে তিনগুণ অর্থ। এ ক্ষেত্রে সুদ হার ১২ দশমিক ০৫ শতাংশ।

এ ছাড়া মাসিক সঞ্চয় প্রকল্পে ১১ শতাংশ সুদ দিচ্ছে ব্যাংকটি। প্রতিমাসে ৫০০ টাকা জমা করলে ১০ বছর পর গ্রাহককে লাখপতি করবে ব্যাংকটি। প্রতি মাসে ৫০০, ১ হাজার কিংবা ১০ হাজার টাকা ৩, ৫, ৮ ও ১০ বছর মেয়াদে জমা নিচ্ছে ব্যাংকটি।

সঞ্চয় প্রকল্পে সুদ হার দ্বিগুণ করেছে প্রাইম ব্যাংক : নতুন করে কোনো প্রকল্প চালু না করলেও বিদ্যমান সব মেয়াদি প্রকল্পে সুদ হার বাড়িয়ে প্রায় দ্বিগুণ করেছে প্রাইম ব্যাংক। চলতি বছরে প্রায় কয়েক দফায় সুদ হার বাড়িয়েছে ব্যাংকটি। সর্বশেষ গত ৫ এপ্রিল থেকে সঞ্চয় প্রকল্পগুলোতে বর্ধিত সুদ হার কার্যকর করেছে ব্যাংকটি। তিন মাস মেয়াদে বিভিন্ন পরিমাণ অর্থ জমায় সর্বনিম্ন সাড়ে ৬ থেকে সর্বোচ্চ সাড়ে ৮ শতাংশ সুদ দিচ্ছে প্রাইম ব্যাংক। এক বছর আগে এই সুদ হার ছিল মাত্র সাড়ে ৩ থেকে ৪ শতাংশ। ছয় মাস ও এক বছর মেয়াদি প্রকল্পগুলোর সুদ হার বাড়িয়ে দ্বিগুণ করা হয়েছে।

এ ছাড়া বেসরকারি খাতের প্রায় সব ব্যাংক আমানতের বিপরীতে সুদ হার বাড়িয়েছে। বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশের (এবিবি) প্রেসিডেন্ট ও ঢাকা ব্যাংকের এমডি সৈয়দ মাহবুবুর রহমান বলেন, ব্যাংকগুলোতে আমানতের চাহিদা বেড়েছে। বিভিন্ন কারণে ব্যাংকগুলোর অর্থ সংগ্রহের প্রয়োজন পড়ছে। এ ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। নিজের প্রয়োজন মেটাতেই বিভিন্ন ব্যাংক আমানত প্রকল্পগুলোর বিপরীতে সুদ হার বাড়াচ্ছে।

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ব্যাংক খাতে আমানতের গড় সুদ বেড়ে আবার ৫ শতাংশের ওপরে উঠেছে। নগদ টাকার টানাটানি থাকায় মেয়াদি আমানতে এখন ৯ থেকে ১০ শতাংশ সুদ দিচ্ছে বেশিরভাগ ব্যাংক। বিশেষ স্কিম খুলে ১২ শতাংশের বেশি সুদে আমানত নিচ্ছে কোনো কোনো ব্যাংক। এতে করে কয়েকটি ব্যাংকের আমানতের গড় সুদহার ৮ শতাংশের ওপরে গিয়ে ঠেকেছে। গত ফেব্রুয়ারিতে ব্যাংকগুলোর আমানতের গড় সুদহার দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ১৮ শতাংশ। গত ডিসেম্বরে যা ছিল ৪ দশমিক ৯১ শতাংশ। ফেব্রুয়ারিতে বেসরকারি খাতের ব্যাংকগুলোর আমানতের গড় সুদহার দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৬৮ শতাংশে। আর বিশেষায়িত দুই ব্যাংকের ৫ দশমিক ৮৬, সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক ৪ দশমিক ৪৩ ও বিদেশি ব্যাংকগুলোর ১ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে