নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নবিষয়ক অষ্টম সার্টিফিকেট কোর্সের সমাপনী

নারী সংবাদ

 

০১ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি ‘জেন্ডার, নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নবিষয়ক অষ্টম সার্টিফিকেট কোর্সের সমাপনী ও প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সনদপত্র প্রদান অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ, সুফিয়া কামাল ভবনের আনোয়ারা বেগম ও মুনিরা খান মিলনায়তনে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি আয়শা খানম। প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ। অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর জেয়াদ আল মালুম, মহিলা পরিষদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাখী দাশ পুরকায়স্থ, সীমা মোসলেম, সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রশিক্ষণ, গবেষণা ও পাঠাগার সম্পাদক রীনা আহমেদ। সভাপতির বক্তব্যে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আয়শা খানম বলেন, অর্থনৈতিক অগ্রগতির সঙ্গে সামাজিক চিন্তা-ভাবনার গুণগত পরিবর্তন সমানতালে অগ্রসর না হলে সামাজিক-রাজনৈতিক-অর্থনৈতিক বৈষম্য লোপ পাবে না। আমরা রাষ্ট্র ও সমাজকে এনজেন্ডারড করতে চাই। জেন্ডার সমতার দৃষ্টিভঙ্গি প্রসারের মাধ্যমেই নারীদের প্রান্তিকতার ক্ষেত্রটিকে চিহ্নিত করতে পারি। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সীমা মোসলেম তার বক্তব্যে বলেন, এ কোর্সটিতে জেন্ডার ধারণার বিভিন্নমুখী বিষয় নানা পরিপ্রেক্ষিতকে নিয়ে ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ করা হয়। এর মাধ্যমে জেন্ডার ধারণা ও নারীর ক্ষমতায়নের বিষয়ে অংশগ্রহণকারীদের মাইন্ডসেট কিছুটা পরিবর্তন হয়ে থাকলে এটাই হবে কোর্সের সফলতা। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশে নারীর কাছে উন্নয়নের বিষয়গুলো পৌঁছে দেওয়ার মাধ্যমেই পরিবার ও সমাজ থেকে উন্নয়নের সফলতা অর্জন সম্ভব হচ্ছে। কিন্তু নারীরা এর সুফল ভোগ করতে পারছে সামান্যই। এমনকি নারীদের এ বিশেষ ভূমিকায় যথার্থই মূল্যায়ন করা হয় না। নারীদের অবদানের বিষয়টি স্পষ্ট করে দেখাই হয় না। এ জন্যই জেন্ডার সমতার দৃষ্টিভঙ্গি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশে কর্মক্ষেত্রে শ্রমবাজারে নারীদের অংশগ্রহণ ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু বৈষম্য তেমনভাবে কমেনি। মহিলা পরিষদ যেন শুধু নারীদের নিয়েই কাজ না করে। এ কোর্সসহ অন্য সব কার্যক্রমে পুরুষদের অংশগ্রহণ বাড়াতে হবে। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ঢাকার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেহেদী শাহরিয়ার ও সোশ্যাল এক্সপেরিয়েন্স অ্যান্ড ডিজাইন লিমিটেডের পরিচালক ফারহা শারমিন।

য় গ্রন্থনা : সাজেদা স্নিগ্ধা

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে