নগদ সেবা : ডাকঘরে প্রযুক্তির ছোঁয়া

  আনিসুর সুমন

০৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তথ্যপ্রযুক্তির অগ্রগতির কারণে সারা বিশ্বে ডাক বিভাগ ঝিমিয়ে পড়েছে। কালের গহ্বরে হারিয়ে গেছে চিঠিপত্র। বাংলাদেশের মানুষও এই ডাক বিভাগের কথা ভুলে গেছে বললেই চলে। তবে ‘নগদ’ সেবার মাধ্যমে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ফিরে পাচ্ছে নতুন প্রাণ। জানাচ্ছেনÑ

আনিসুর সুমন

ডাক বিভাগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিটি পোস্ট অফিসে ডিজিটাল ফিন্যানসিয়াল সার্ভিস ‘নগদ’ সেবাটি পাওয়া যাবে এবং এজন্য আলাদা করে ব্র্যান্ডিং ও প্রযুক্তি স্থাপনের কাজ চলছে। আগামী বছরের শুরুতে ‘নগদ’-এর সেবা আনুষ্ঠানিকভাবে চালু হবে। বিকাশ, রকেট, ইউক্যাশসহ বিদ্যমান মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলোর মতোই ‘নগদ’ হবে আরেকটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। বাংলাদেশ ডাক বিভাগের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হবে এ সেবা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুশান্ত কুমার ম-ল বলেন, ‘আমাদের ৪০ হাজার কর্মীর বিশাল পরিবার ডিজিটাল ফিন্যানসিয়াল সার্ভিস নগদ নিয়ে সত্যিকার অর্থেই যথাযথ প্রস্তুতি নিচ্ছে। ডাক বিভাগের প্রত্যন্ত অঞ্চলের কর্মীরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে সরাসরি ভূমিকা রাখতে পারার বিষয়টিকে ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে দেখছে। ডাক বিভাগের আধুনিকরণের ক্ষেত্রেও একটা বড় অর্জন। পাশাপাশি এ পদক্ষেপটি দেশের সার্বিক আর্থিক অন্তর্ভুক্তিতেও ভূমিকা রাখবে।’ বাংলাদেশ ডাক বিভাগের মহাপরিচালক বলেন, ‘৯ হাজার ৮৮৬টি পোস্ট অফিস আর ৪০ হাজার কর্মী নিয়ে শতবর্ষের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কয়েক দশক ধরে অর্থ আদান-প্রদানের প্রধান মাধ্যম হিসেবে মানুষের দোরগোড়ায় সেবা দিয়ে আসছে। ডাক বিভাগ সময়ের বিবর্তনে নতুন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করার ধারাবাহিকতায় ২০১০ সালে চালু হয় পোস্টাল ক্যাশ কার্ড এবং ইলেকট্রনিক মানি ট্রান্সফার সিস্টেম। গত কয়েক বছর উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধিত না হলে বিগত কয়েক মাস ধরে নতুন উদ্যম লক্ষ করা যাচ্ছে ডাক বিভাগের বিভিন্ন স্তরে।’

বিকাশ, রকেট, ইউক্যাশসহ বিদ্যমান মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলোর চেয়ে কয়েকগুণ বেশি লেনদেন সীমা এবং ব্যালেন্স নিয়ে চালু হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল অর্থ লেনদেন সেবা নগদ। সারাদেশে এজেন্ট নিয়োগের মাধ্যমে বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এ সেবা দেওয়া হবে। যেখানে একজন গ্রাহক দিনে ১০ বারে আড়াই লাখ টাকা জমা এবং একই পরিমাণ টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। বর্তমানে বিকাশ, ইউক্যাশ বা রকেটের একজন গ্রাহক দিনে দুবারে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা উত্তোলন এবং ১৫ হাজার টাকা জমা করতে পারেন। নতুন এ সেবা চালুর জন্য এরই মধ্যে এজেন্ট নিয়োগের কাজ শুরু হয়েছে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে