খান আতা রাজাকার ছিলেন

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ অক্টোবর ২০১৭, ০০:০০ | আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০১৭, ০০:৩৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক, অভিনেতা, গীতিকার ও সুরকার খান আতাউর রহমানকে ‘রাজাকার’ বলেছেন সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। তিনি বলেন, ‘আবার তোরা মানুষ হ’ এটা তো নেগেটিভ ছবি। মুক্তিযোদ্ধাদের বলছে আবার তোরা মানুষ হ। আরে তুই মানুষ হ। খান আতা রাজাকার, আমি না হলে খান আতা বাঁচত না। খান আতা ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরের পরে মারা যায়। মুক্তিযোদ্ধাদের বলছে আবার তোরা মানুষ হ। আরে তুই মানুষ হ, তোকে মানুষ হতে হবে। তুই রাজাকার ছিলি।’

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে একটি সাংস্কৃৃতিক অভিবাসী সমাবেশে এসব কথা বলেন নাসির উদ্দিন ইউসুফ।

খান আতাউর রহমান চলচ্চিত্রপাড়ায় খান আতা নামে বহুল পরিচিত। তিনি চলচ্চিত্র অভিনেতা, গীতিকার, সুরকার, সংগীত পরিচালক, গায়ক, চলচ্চিত্র নির্মাতা, চিত্রনাট্যকার, কাহিনিকার এবং প্রযোজক। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘জাগো হুয়া সাবেরা’। চলচ্চিত্রকার এহতেশাম পরিচালিত ‘এ দেশ তোমার আমার’ তার অভিনীত প্রথম বাংলা চলচ্চিত্র। ‘নবাব সিরাজউদ্দৌলা’ (১৯৬৭) ‘এবং জীবন থেকে নেয়া’ (১৯৭০) চলচ্চিত্র দিয়ে তিনি পরিচিতি লাভ করেন। ‘সুজন সখী’ (১৯৭৫) চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার হিসেবে প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। পরে ‘এখনো অনেক রাত’ (১৯৯৭) চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ সংগীত পরিচালক ও শ্রেষ্ঠ গীতিকার হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে