শ্রেষ্ঠ পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা ধ্বংস করেছি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশে ছিল পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ প্রাকৃতিক পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা। আমরা তা ধ্বংস করে দিয়েছি। উন্নয়ন সম্পর্কে ভুল ধারণায় আমরা প্রকৃতিবিরোধী অবকাঠামো তৈরি করেছি। এসব অবকাঠামো সাময়িক সমস্যার সমাধান দিলেও দীর্ঘমেয়াদে তা ভয়াবহ সমস্যা সৃষ্টি করছে। গতকাল শুরু হওয়া দুদিনের ‘বন্যা, জলাবদ্ধতা ও ভূমিধস’ শীর্ষক এক বিশেষ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ মিলনায়তনে সম্মেলনের আয়োজন করে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) ও প্রবাসী বাংলাদেশিদের পরিবেশবিষয়ক সংগঠন বাংলাদেশ এনভায়রনমেন্টাল নেটওয়ার্ক (বেন)।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ওয়াহিদউদ্দিন মাহমুদ বলেন, প্রকৃতির সঙ্গে যুদ্ধ নয়, সহাবস্থান করতে হবে। সমস্যার স্থায়ী সমাধানে স্থানীয় জ্ঞানকে প্রাধান্য দিয়ে আমাদের উন্নয়ন করতে হবে।

‘বন্যা, জলাবদ্ধতা ও পাহাড়ধস’ শীর্ষক মূল অধিবেশনে প্রধান প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেনের আন্তর্জাতিক সমন্বয়কারী নজরুল ইসলাম। তিনি বাংলাদেশের নদী ও পানি ব্যবস্থাপনার প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ষাটের দশকে বিদেশি বিশেষজ্ঞদের দিয়ে বাংলাদেশের নদীগুলো নিয়ে মহাপরিকল্পনা করা হলো। ক্রুগ মিশন নামের ওই পরিকল্পনার আওতায় দেশের জলাভূমি ও নদীগুলোর প্রাকৃতিক বিন্যাস ধ্বংস করে ফেলা হয়। পরে ফ্ল্যাড অ্যাকশন প্ল্যান নিয়েও একই ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়।

সম্মেলনে গতকাল ১০টি বৈজ্ঞানিক অধিবেশন ও ২টি সাধারণ অধিবেশন হয়। এসব অধিবেশনে অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল, ড. আইনুন নিশাত, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. এম ফিরোজ আহমেদ, সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব ইকবাল হাবিব, অধ্যাপক বদরুল ইমামসহ গবেষক ও পরিবেশবাদীরা অংশ নেন।

আজ শনিবার দুই দিনের এই সম্মেলনের শেষ দিনে সকাল ১০টায় শুরু হয়ে আরও ৫টি সমান্তরাল বৈজ্ঞানিক অধিবেশন, ২টি সাধারণ অধিবেশন, ১টি কৌশলগত অধিবেশন ও বিকালে সমাপনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সম্মেলন শেষ হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে