রাষ্ট্রপতি নির্বাচন ১৯ ফেব্রুয়ারি

  নিজস্ব প্রতিবেদক

২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০৮:২৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ক্ষণগণনা শুরু হচ্ছে আগামীকাল থেকে। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সংসদ সদস্যদের ভোটে সংসদের চলতি ১৯তম অধিবেশনের মধ্যেই নতুন রাষ্ট্রপতি পাবে বাংলাদেশ। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক গণমাধ্যমকে এ কথা জানিয়েছেন।
বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের মেয়াদ শেষ হবে এ বছরের ২৩ এপ্রিল। ইতোমধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। স্পিকারের সঙ্গে সাক্ষাতের পর আনুষ্ঠানিকভাবে কমিশন তফসিল ঘোষণা করবে।
নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে সরকারকে জানানো হয়েছে, আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
সংবিধানের ১২৩ (১) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে উক্ত পদ শূন্য হলে মেয়াদ সমাপ্তির তারিখের পূর্ববর্তী ৯০ হতে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হইবে।’ জাতীয় সংসদে চলতি অধিবেশনেই আগামী মাসে এই নির্বাচন অনুষ্ঠানের পরিকল্পনা করছে সাংবিধানিকভাবে স্বাধীন প্রতিষ্ঠানটি। এ বিষয়ে করণীয় ঠিক করতে আগামী বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের বৈঠক ডাকা হয়েছে। ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
রাষ্ট্রপতি নির্বাচন আইন ১৯৯১ অনুযায়ী একাধিক প্রার্থী হলে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন সংসদ সদস্যদের ভোটে। আর প্রধান নির্বাচন কমিশনার তাতে নির্বাচনী কর্তা হিসেবে কাজ করেন। রাষ্ট্রপতি নির্বাচন আইন ও বিধিমালা অনুযায়ী, একাধিক প্রার্থী হলে সংসদের অধিবেশনকক্ষে নির্বাচনী কর্তার সামনে নির্ধারিত ব্যালট পেপারে পছন্দের প্রার্থীর নাম ও নিজের স্বাক্ষর দিয়ে তা জমা দিতে হবে। ভোটের দিন গ্যালারিসহ সংসদকক্ষে প্রার্থী, ভোটার, ভোট নেওয়ায় সহায়তাকারী কর্মকর্তা ছাড়া সবার প্রবেশাধিকার নিয়ন্ত্রণ করবেন নির্বাচনী কর্তা। ভোট শেষে নির্বাচন কমিশনার প্রকাশ্যে ভোট গণনা করবেন। সর্বাধিক সংখ্যক ভোটপ্রাপ্তকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে আর সমান ভোট পেলে প্রার্থীদের মধ্যে লটারির মাধ্যমে ফল নির্ধারণ করা হবে।

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে