এসএসসি পরীক্ষা বাতিলে রিট

শিক্ষামন্ত্রীর অপসারণ চেয়ে নোটিশ

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

একের পর এক প্রশ্নপত্র ফাঁসের কারণে চলমান এসএসসি পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। বুধবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট দায়ের করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার সকালে বিচারপতি জুবায়ের রহমান চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন বেঞ্চে রিট আবেদনটির ওপর শুনানি হওয়ার কথা।

সুপ্রিমকোর্টের চারজন আইনজীবী বাদী হয়ে জনস্বার্থে রিট আবেদনটি করেছেন। তাদের পক্ষে আইনজীবী হিসেবে রয়েছেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়–য়া। তিনি জানান, চলমান পরীক্ষা বাতিলসহ অনেকগুলো নির্দেশনা চেয়ে রিটটি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রিট আবেদনটির ওপর শুনানি হবে।

এদিকে পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে ব্যর্থতার জন্য শিক্ষামন্ত্রীর অপসারণ চেয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বুধবার সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ইউনুস আলী আকন্দ রেজিস্ট্রি ডাকযোগে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রীকে এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়েছে, প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ করতে শিক্ষামন্ত্রী ব্যর্থ। তাই তার ওই পদে থাকার অধিকার নেই। তাকে অপসারণ করে সংবিধানের ৫৬ (২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী যিনি সংসদ সদস্য নন এমন একজন শিক্ষায় অসামান্য দক্ষ উচ্চ শিক্ষিত নাগরিককে শিক্ষামন্ত্রী করার কথা বলা হয়েছে। নোটিশে আরও বলা হয়েছে, সংবিধানের ৫৮ (১) (ক) (গ) (২) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করবেন বা প্রধানমন্ত্রী শিক্ষামন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে অনুরোধ করবেন বা প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতিকে ওই মন্ত্রীর নিয়োগের অবসান ঘটানোর পরামর্শ দেবেন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোনো কার্যকরী ব্যবস্থা না নিলে সংবিধানের ১০২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

এবারের চলমান এসএসসি পরীক্ষার দশ দিনের মধ্যে নয় দিনই প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে। প্রশ্ন ফাঁসকারীদের ধরিয়ে দিলে পাঁচ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা, কোচিংসেন্টার বন্ধ, পরীক্ষার্থীদের আধাঘণ্টা আগে বাধ্যতামূলক হলে প্রবেশ এবং কেন্দ্রে মোবাইল ফোন না নেওয়া, ইন্টারনেটের গতি কমানোÑ এত সব পদক্ষেপের কোনোটাই কাজে আসছে না। এভাবে একের পর এক প্রশ্নফাঁসের ঘটনা নজিরবিহীন বলে দাবি করছেন সংশ্লিষ্টরা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
  • নির্বাচিত

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে