দুর্নীতিবাজদের অবশ্যই বিচার হবে : প্রধানমন্ত্রী

  বাসস

১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নিজের কোনো মামলা প্রত্যাহার করেননি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশের শান্তি ও উন্নয়ন নিশ্চিত করতে হলে যারা দুর্নীতি, সন্ত্রাস করবে এবং জঙ্গিবাদে জড়াবে; তাদের অবশ্যই বিচার করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টি করতে চাই। দেশকে উন্নত এবং জনগণের ভাগ্যের পরিবর্তন চাই। এটা তখনই সম্ভব হবে যখন আমরা দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ ও স্বজনপ্রীতি নিয়ন্ত্রণ এবং অপসারণ করতে পারব।

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি গতরাতে রোমের পার্কো দি প্রিনসিপি গ্র্যান্ড হোটেল অ্যান্ড এসপিএতে আওয়ামী লীগের ইতালি শাখা আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

তার বিরুদ্ধে অতীতের দুর্নীতির মামলা দায়ের প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি প্রত্যেক মামলার তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য বলেছেন। তিনি বলেন, আমি প্রতিটি মামলার তদন্ত করে প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছিলাম। মামলাগুলোর প্রকৃত অবস্থা আমরা যাচাই করে দেখতে চেয়েছিলাম। প্রতিটি মামলার তদন্ত হয়েছে এবং রিপোর্ট জমা দেওয়া হয়েছে। আমি কোনো মামলা প্রত্যাহার করিনি এবং করার অনুমতিও দেইনি। কেন আমি এটি করব। আমি জানতাম, কোনো দুর্নীতি করিনি। এ সময় তিনি পদ্মা সেতু নির্মাণ নিয়ে বিশ্বব্যাংকের কল্পিত দুর্নীতির অভিযোগের প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, হিলারি ক্লিনটন ওই সময় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন এবং ড. মুহম্মদ ইউনুস ওই সময় তাকে পদ্মা সেতু প্রকল্পের দোষ ধরিয়ে দিতে মুখিয়ে ছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট ওই সময় তিনবার আমার ছেলে জয়কে এ ব্যাপারে হুমকিও দেয়। পরে কানাডার আদালতে প্রমাণ হয়েছে, পদ্মা সেতু প্রকল্পে কোনো দুর্নীতি হয়নি। বলেছিলামÑ আমি জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্যই ক্ষমতায় এসেছি। নিজেদের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য নয়।

দেশের বিচার বিভাগকে সম্পূর্ণ স্বাধীন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার দুর্নীতির প্রমাণ হয়েছে আদালতে। আদালত যখন দেখেছে বিএনপি নেত্রীর মাধ্যমে এতিমের টাকার সম্পূর্ণ অপব্যবহার হয়েছে, তখন আদালত তাকে এই শাস্তির রায় দেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী প্রশ্ন তোলেন, এক্ষেত্রে আমাকে তিরস্কার এবং সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তোলার কী যুুক্তি থাকতে পারে?

ইতালি শাখা আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজি মোহাম্মদ ইদ্রিসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্থানীয় আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী সংগঠনের নেতারা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন। ইতালি সফর শেষে কাল দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে
close