রবের বাসায় জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার বৈঠক

আগামীকাল শহীদ মিনার থেকে কর্মসূচির ঘোষণা

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:১১ | প্রিন্ট সংস্করণ

ছবি : সংগৃহীত
ঐক্যবদ্ধভাবে কর্মসূচি দেওয়ার বিষয়ে একমত হয়েছে বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্ট ও ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া। গতকাল জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রবের উত্তরার বাসায় বৈঠকে এ বিষয়ে একমত হন জাতীয় ঐক্যের উদ্যোক্তারা।

রাত সাড়ে ৮টা থেকে প্রায় দেড় ঘণ্টাব্যাপী ওই বৈঠকে অধ্যাপক ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বে তিন দলের যুক্তফ্রন্ট ও ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বের ঐক্য প্রক্রিয়া একসঙ্গে কাজ করবে বলে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়। জাতীয় ঐক্যের একটি ঘোষণাপত্র আজকের মধ্যে চূড়ান্ত এবং আগামীকাল শনিবার বেলা ১১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তা পাঠ করা হবে। এ ছাড়া শহীদ মিনার থেকে পরবর্তী কর্মসূচিও ঘোষণা করা হবে। জাতীয় ঐক্য গড়ার প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বিএনপির সঙ্গে বৃহত্তর ঐক্য গড়ে আগামী অক্টোবর থেকে যুগপৎ কর্মসূচি দেওয়া হবে বলেও বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়। 

গতকালের বৈঠকে অংশ নেন যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, মহাসচিব মেজর (অব) আবদুল মান্নান, গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, শহীদুল্লা কায়সার, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, শহিদুল্লাহ ফরায়েজী, ব্যারিস্টার ওমর ফারুক প্রমুখ।

গতকালের বৈঠকে ঐক্যবদ্ধভাবে ধারাবাহিক কর্মসূচি দেওয়ার এবং আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে সারা দেশে জনসভা করার বিষয়ে ঐকমত্য হয়। গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন ২২ সেপ্টেম্বর যে সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছেন তাতে যুক্তফ্রন্টের নেতারাও থাকবেন। এদিকে যুক্তফ্রন্টের ৯ দফা ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার ৭ দফাকে সমন্বয় করে যে ঘোষণাপত্র তৈরি করা হচ্ছে তাতে উল্লেখযোগ্য প্রস্তাব হচ্ছে ক্ষমতায় গিয়ে ‘স্বেচ্ছাচারিতা’ বন্ধে সাংবিধানিক আমূল সংস্কার। 

বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে ডা. বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেন, আজকের বৈঠকে অনেক অগ্রগতি হয়েছে। আমরা সুস্পষ্টভাবে কতগুলো বিষয়ে একমত হয়েছি। এখন সেগুলোর সমন্বয় সাধন করা হবে। কমিটি এগুলো একসঙ্গে করবে। এগুলো হবে জাতীয় ঘোষণার মতো। এ ব্যাপারে আমরা ঐকমত্যে পৌঁছেছি। সেই ঘোষণা হবে শনিবার বেলা ১১টায় শহীদ মিনারে। 

বৈঠকের সিদ্ধান্ত নিয়ে লিখিত বক্তব্যে ড. কামাল হোসেন বলেন, ‘যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, আ স ম আবদুর রব, মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার লক্ষে কাজ করার জন্য ঐকমত্যে পৌঁছেছি। আগামীকাল যুক্তফ্রন্টের ৯ দফা ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার ৭ দফার সমন্বয়ে একটি অভিন্ন কর্মসূচি প্রণয়ন করা হবে। শনিবার বেলায় ১১টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তা ঘোষণা করা হবে। 

আ স ম আবদুর রব বলেন, আমার মনে হয়ে মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে যে ঐক্য সৃষ্টি হয়েছিল, তা হারিয়ে ফেলেছি। আজকে আবার এই দুই নেতার নেতৃত্বে বাঙালি জাতির জন্য আগামীতে শান্তি, সম্ভাবনা ও সুন্দর একটি বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করবে। জনগণের ক্ষমতায়ন করার জন্যই এ উদ্যোগ। আজকের এই বৈঠক বাঙালি জাতির কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। 

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এখানে যারা জড়ো হয়েছেন তারা সবাই পরীক্ষিত মানুষ। তাদের সততা নিয়ে কারও কোনো প্রশ্ন নেই। বিএনপির সঙ্গে ঐক্য এবং যুগপৎ কর্মসূচি আসবে কিনা এমন প্রশ্নে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, অবশ্যই আসবে। সময়মতো সব দেখতে পাবেন। আজ যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার একটি সম্মিলিত ঘোষণা হলো। অবশ্যই বিএনপির সঙ্গে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য হবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে