সুপার ফোর শুরু

বাংলাদেশ-ভারত মুখোমুখি

  ক্রীড়া প্রতিবেদক

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:২৮ | প্রিন্ট সংস্করণ

আজ থেকে শুরু হচ্ছে এশিয়া কাপের সুপার ফোরের খেলা। প্রথম দিনেই মাঠে নামছে বাংলাদেশ। দুবাইয়ে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচটি শুরু হবে বিকাল সাড়ে পাঁচটায়।

দুবাইয়ে প্রচ- গরম। তবে ভারত ম্যাচের আগে বিশ্রামের সুযোগ পাননি টাইগাররা। গতকাল মাশরাফিরা ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচ খেলেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে। আজ মুখোমুখি হবেন ভারতের। তবে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা চিন্তিত নন। নিজেদের সেরাটা দিতে চান। মাশরাফিরা বিশ্বাস করেন ভারতকে

হারানো সম্ভব। তারা আত্মবিশ্বাসী। সুপার ফোরের শুরুর ম্যাচেও জয় চান মাশরাফিরা।

ভারত এশিয়া কাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন। ২০১৬ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্টের ফাইনালে স্বাগতিকদের হারিয়েছিল। অবশ্য ওই আসর ছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটের। সংযুক্ত আরব আমিরাতে চলমান এশিয়া কাপের এবারের আসরের ফরম্যাট ওয়ানডে। ৫০ ওভারের ক্রিকেট হওয়ায় আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ। মাশরাফিদের লক্ষ্য এবার শিরোপা জিতে দেশে ফেরা।

বিরাট কোহলিকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তিনি খেলছেন না এশিয়া কাপে। তার পরও ভারত যথেষ্ট শক্তিশালী। তারাও এসেছে শিরোপা ধরে রাখার ব্্রত নিয়ে। জমজমাট একটা লড়াই হবে বলেই আশা করা যাচ্ছে। সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচটা দুদলের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। দুদলই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে চাইবে।

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ-ভারত মোট ৩৩ বার মুখোমুখি হয়েছে। তাতে টাইগারদের ৫ জয়ের বিপরীতে হার ২৭। ২০১৭ সালের জুনে দুদল সবশেষ ওয়ানডেতে মুখোমুখি হয়েছিল। ইংল্যান্ডের বার্মিংহ্যামে অনুষ্ঠিত চ্যাম্পিয়নস ট্রফির দ্বিতীয় সেমিফাইনালের ওই ম্যাচে ৯ উইকেটে জিতেছিল ভারত। আজ এশিয়া কাপের ম্যাচ দিয়ে আবার ২২ গজের ময়দানি যুদ্ধে মুখোমুখি হচ্ছে দুদল।

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ মানেই এখন গোলা-বারুদের গন্ধ! ভক্তরা নিজ নিজ দলের জয় দেখতে চান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোয় চলে ভক্তদের ট্রল। দুদলের জন্যই ম্যাচ মর্যাদার লড়াই হিসেবে বিবেচিত হয়। জয় ভিন্ন অন্য কিছু চিন্তা করেন না কেউই।

বাংলাদেশ ভারসাম্যপূর্ণ দল। মুশফিক, সাকিব, মাহমুদউল্লাহদের মতো নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান রয়েছে। রয়েছে মাশরাফি, মোস্তাফিজ, রুবেলদের মতো অভিজ্ঞ পেস আক্রমণ। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে বাংলাদেশ সব বিভাগেই জ্বলে উঠতে চাইবে। জিতলে ফাইনাল খেলার পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবেন টাইগাররা! যদিও পরে আরও দুটি ম্যাচ রয়েছে। যেখানে মাশরাফি-সাকিবদের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান ও পাকিস্তান।

টাইগাররা অবশ্য ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চান। ভারতের বিপক্ষে জিতলে আত্মবিশ্বাস আরও বেড়ে যাবে টাইগারদের। তাই ভারত ম্যাচের দিকেই ফোকাস করছেন স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। প্রতিপক্ষকে সমীহ করছেন। আবার জয়ের ব্যাপারেও আশাবাদ ব্যক্ত করছেন। মাশরাফিরা জানেন, ম্যাচের দিন যে দল ভালো খেলবে তারাই জিতবে। তাই নিজেদের সেরাটা দিয়েই ভারতকে হারাতে মরিয়া টাইগাররা।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে