কী ঘোষণা আসতে পারে

কাল জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া সমাবেশ # মঞ্চে দেখা যেতে পারে বিএনপিসহ সরকারবিরোধীদের

  মামুন স্ট্যালিন

২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:২২ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতীকী ছবি

আগামীকাল শনিবার রাজধানীর গুলিস্তানে মহানগর নাট্যমঞ্চে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া সমাবেশ। এ সমাবেশে একই মঞ্চে দেখা যেতে পারে সরকারের বাইরে থাকা জামায়াত বাদে বিএনপিসহ অধিকাংশ রাজনৈতিক দল ও জোটের নেতাদের। এর মাধ্যমে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের প্রাথমিক সূচনা হতে পারে বলে মনে করছেন রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা।

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া সূত্রে জানা গেছে, এদিন বৃহত্তর ঐক্যের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা নাও হতে পারে। বিএনপি ইতোমধ্যে গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যে থাকার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা চলতি মাসের শেষে হওয়ার সম্ভাবনা আছে। সমাবেশ থেকে পূর্বঘোষিত ৫ দফা দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারকে আল্টিমেটাম দেওয়া হতে পারে।

সূত্রে জানা যায়, ২২ সেপ্টেম্বরের এ সমাবেশ থেকেই কর্মসূচি দেওয়ার পক্ষে যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় প্রক্রিয়ার কিছু নেতা। তবে কর্মসূচি চূড়ান্ত না হওয়ায় সমাবেশ থেকে আপাতত কোনো কর্মসূচি ঘোষণা দিচ্ছেন না জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতারা। এ ব্যাপারে গণফোরামের এক নেতা আমাদের সময়কে বলেন, সমাবেশ থেকে কিছু কর্মসূচি দেওয়ার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। কিন্তু তা চূড়ান্ত করা হয়নি।

সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া ঘোষিত ৫ দফা দাবি আদায়ে সমাবেশের পর পরই যে কোনো দিন ঘোষণা হতে পারে নতুন কর্মসূচি।

ঐক্য প্রক্রিয়ার সংশ্লিষ্ট দলগুলোর একাধিক নেতা জানিয়েছেন, বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের নামে নতুন প্ল্যাটফর্মের গঠন প্রক্রিয়া ঠিক করতে দলগুলোর দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা ইতোমধ্যে কয়েকদফা বৈঠক করেছেন। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যুক্তরাষ্ট্র ও লন্ডন থেকে ফেরার পর ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে দু’দফা বৈঠক করেন।

গত বুধবার ড. কামালের সঙ্গে বৈঠক করেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের অন্যতম নেতা ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) ও বাসদসহ বাম গণতান্ত্রিক জোটভুক্ত ৮ দলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতারা। রাজধানীর পুরানা পল্টনে সিপিবির কার্যালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

সূত্রমতে, বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য ঘোষণার সব দল ও জোট অভিন্ন দাবিতে যুগপৎ আন্দোলন করবে। অক্টোবরের মাঝামাঝিতে অভিন্ন ইস্যুতে একই মঞ্চ থেকে কর্মসূচি পালনের পরিকল্পনাও রয়েছে। সে লক্ষ্যে সমমনা দল ও জোটগুলোর সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রেখেছেন বিভিন্ন দলের নেতাসহ কয়েক বুদ্ধিজীবীও। তাদের মধ্যে অন্যতম গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী। তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্যের ব্যাপারে আমি আশাবাদী। এ ছাড়া দেশে গণতন্ত্র ফেরাতে আর কোনো পথ খোলা নেই। সরকারের বাইরে থাকা সব দলের দাবি তো একই। সে দাবিতে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের বিষয়ে স্বভাবতই সব দল এক মঞ্চে আসবে।

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার এক নেতা জানান, আনুষ্ঠানিক-অনানুষ্ঠানিক সব আলোচনায় সরকারের বাইরে থাকা দল ও জোটগুলোর মধ্যে ৫ দফা দাবিসহ কয়েকটি লক্ষ্যে মতৈক্য হয়েছে। ওইসব দাবি ও লক্ষ্য নিয়েই সবাই এক কাতারে। বিএনপিসহ সরকারের বাইরে থাকা দল ও জোটগুলোর ৫টি মূল দাবি। এগুলো হচ্ছে, তফসিল ঘোষণার আগে সরকারের পদত্যাগ ও সংসদ ভেঙে দেওয়া, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন, নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করা ও নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন।

যুক্তফ্রন্টের মুখপাত্র নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ২২ সেপ্টেম্বরের সমাবেশে যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরীসহ আমরা উপস্থিত থাকব। বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা অনেকটা শেষ পর্যায়ে। চলতি মাসে বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হবে বলে জানান তিনি।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেন, ২২ সেপ্টেম্বরের সমাবেশের আমন্ত্রণ আমরা পেয়েছি। যুক্তফ্রন্ট ও গণফোরামের দাবিগুলো ন্যায্য ও যৌক্তিক।

সমাবেশের প্রস্তুতি : ২২ সেপ্টেম্বরের পূর্বঘোষিত সমাবেশ সফল করতে গঠিত হয়েছে ৭টি উপকমিটি। কমিটিগুলো গত দুই সপ্তাহ ধরে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পেশাজীবী সংগঠনের নেতা ও বিশিষ্টজনদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমিন বলেন, ২২ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর নাট্যমঞ্চের সমাবেশে ব্যাপক জনসমাগমের প্রস্তুতি চলছে। লাগানো হয়েছে পোস্টার। বিলি করা হয়েছে লিফলেট। সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন। প্রধান অতিথি থাকার কথা রয়েছে যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরীর।

সমাবেশে ঘোষণাপত্র পাঠ করবেন প্রকৌশলী শেখ মুহাম্মদ শহীদুল্লাহ। সার্বিক তত্ত্বাবধানে থাকবেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টু ও ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমেদ। সভা পরিচালনা করবেন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমীন।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে