sara

নৌকা-ধানের শীষে অধিকাংশ দল

  নিজস্ব প্রতিবেদক

১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | আপডেট : ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০৯:০৯ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচনী মাঠে বিজয়ী হতে জোটভুক্ত দলগুলোর অধিকাংশই নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে বিষয়টি নির্বাচন কমিশনকে জানিয়েছে দলগুলো। তবে কৌশলগত কারণে জাতীয় পার্টির লাঙল, বিকল্পধারার কুলা এবং জামায়াতে ইসলামীর প্রার্থীরা স্বতন্ত্র নির্বাচন করবে।

নির্বাচনী মাঠে ধানের শীষ এবং নৌকার কদর সব সময় বেশি। কারণ প্রধান দুই দলের প্রতীকে নির্বাচন করলে প্রার্থীর পরিচয় মুখ্য নয়, প্রতীকেই জয়ী হওয়া যায়। তাই এবার নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে ১২ দল নির্বাচন করবে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলের ৮টি দল এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দলগুলো ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে।

জানা গেছে, এর মধ্যে আওয়ামী লীগ জোট ১২ দলের নামের তালিকা ইসির কাছে জমা দেয়। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং ২০ দলের ৮ দলও ধানের শীষে নির্বাচন করবে বলে ইসিকে জানিয়েছে। দুই জোটের মধ্যে থাকা বেশ কয়েকটি দল আবার আলাদাভাবে তাদের প্রতীক ব্যবহারের তথ্য জানিয়েছে ইসির কাছে।

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে বলা আছে, তফসিল ঘোষণার পর বলা হয় ১৫ নভেম্বরের মধ্যে রাজনৈতিক দলগুলোকে জোটগতভাবে নির্বাচনের তথ্য জানাতে হবে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী গতকাল ছিল জোটগত নির্বাচনের তথ্য দেওয়ার শেষ দিন। যদিও বিকল্পধারা এ সময় বাড়াতে অনুরোধ জানিয়েছে।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, জাসদ (দুই অংশ), গণতন্ত্রী পার্টি, সাম্যবাদী দল, জাতীয় পার্টি (জেপি) (মঞ্জু), কমিউনিস্ট কেন্দ্র, গণআজাদী লীগ, ন্যাপ (মোজাফফর), গণতান্ত্রিক মজদুর পার্টি ও বাসদ (রেজা) নৌকা প্রতীক নিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করবে।

অন্যদিকে ইসিতে দেওয়া চিঠিতে ৮টি দল নিয়ে জোটগত নির্বাচনে অংশগ্রহণের কথা জানিয়েছে বিএনপি। বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৮টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল যৌথভাবে ‘ধানের শীষ’ প্রতীকে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করার সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দলগুলো হলো-বিএনপি, লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি), বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি (বিজেপি), খেলাফত মজলিস, জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা), বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি, বাংলাদেশ মুসলিম লীগ ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ। চূড়ান্ত মনোনয়ন সময়সীমার মধ্যে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী আসনে যৌথভাবে মনোনীত প্রার্থীকে প্রতীক বরাদ্দের জন্য লিখিতভাবে জানানো হবে বলেও চিঠিতে উল্লেখ করা হয়। গতকাল জাতীয় ঐক্যফ্রন্টও জানিয়েছে, তারা ধানের শীষে নির্বাচন করবে।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, কোন কোন দল ধানের শীষে নির্বাচন করতে চায়, তা বিএনপি এবং কোন কোন দল নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করতে চায়, তা আওয়ামী লীগ লিখিতভাবে জানিয়েছে। তিনি বলেন, ইসিতে নিবন্ধিত দলগুলোই সুযোগ পাবে জোটভুক্ত কোনো দল অন্য দলের প্রতীকে নির্বাচন করতে। তবে অনিবন্ধিত দলের কেউ অন্য কোনো দলের প্রতীকে নির্বাচন করতে চাইলে সেই দলের মনোনয়ন নিতে হবে।

হেলালুদ্দীন আহমদ জানান, জোটবদ্ধ নির্বাচন বিষয়ে কমিশনকে তথ্য দেওয়ার শেষ দিন আজ (গতকাল)। নির্ধারিত সময়ে যেসব দল কমিশনকে তথ্য দিয়েছে, সেটা আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখব। অপর এক প্রশ্নে হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আওয়ামী লীগ যেসব দলের তালিকা দিয়েছে, সেখানে বিকল্পধারার নাম নেই।

দলীয় কুলা প্রতীকে নির্বাচন করবে বিকল্পধারা বাংলাদেশ, তবে ১৪ দলীয় জোটের অংশী হলে তাদের কিছু প্রার্থী নৌকা প্রতীকে ভোট করবেন।

এ তথ্য জানিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনে চিঠি দিয়েছে বিকল্পধারা। দলের মহাসচিব মেজর (অব) আবদুল মান্নান স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, আরপিওর বিধান অনুযায়ী তাদের বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রার্থীরা দলীয় প্রতীক কুলা নিয়ে নির্বাচন করবেন। অন্যদিকে ১৪ দলের সঙ্গে মহাজোট সম্প্রসারণ বিষয়ে আলোচনা এখনো চলছে। সমঝোতা হলে বিকল্পধারা মহাজোটে অংশগ্রহণ করবে। তখন বিকল্পধারা ও যুক্তফ্রন্টের কিছু প্রার্থী ক্ষেত্রবিশেষে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ড. কামাল হোসেন, বঙ্গবীর আবদুল কাদের সিদ্দিকী, আসম আবদুর রব ও মাহমুদুর রহমান মান্নারা বিএনপির ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। গতকাল বিকালে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত ‘জাতীয় ঐকফ্রন্ট’ থেকে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) এমন তথ্য জানানো হয়েছে। গত ১১ ডিসেম্বর গণফোরাম নিজেদের প্রতীকে ভোট করবে জানালেও গতকাল জানিয়েছে, তারা ধানের শীষেই ভোট করবে।

গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী এ সংক্রান্ত একটি চিঠি গতকাল সিইসি বরাবর জমা দেন। গণফোরাম সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মোহসীন মন্টু স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ‘গণফোরাম’ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শরিক রাজনৈতিক দল হিসেবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ‘ধানের শীষ’ প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে।

চিঠি জমা দেওয়া পর সুব্রত চৌধুরী সাংবাদিকদের জানান, ঐক্যফ্রন্টের নিবন্ধিত চারটি দল ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেবে। এগুলো হলো-বিএনপি, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি), কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও গণফোরাম।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে