sara

ঘটনাস্থল : গলাচিপা

নারীকে বেঁধে পিটিয়ে ন্যাড়া করে দিলেন এমপির ভাই

  নিজস্ব প্রতিবেদক, পটুয়াখালী

২৮ মার্চ ২০১৬, ০০:০০ | আপডেট : ২৮ মার্চ ২০১৬, ০০:৫১ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচনে প্রতিপক্ষের হয়ে কাজ করায় পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার গজালিয়ার সদ্য নির্বাচিত ইউপি চেয়ারম্যান ও গলাচিপা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি, বর্তমান এমপি আ.খ.ম. জাহাঙ্গীরের ছোট ভাই খালেদুল ইসলাম স্বপন পরকীয়ার অপবাদ দিয়ে রাবেয়া নামে এক গৃহবধূকে বেঁধে পেটানোর পর ন্যাড়া করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। নির্বাচনে স্বপনের পক্ষে কাজ না করায় প্রতিহিংসা বশত এ কাজ করা হয়েছে বলে এলাবাসীর অভিযোগ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গলাচিপা-দশমিনা আসনের সংসদ সদস্য আখম জাহাঙ্গীর হোসাইনের ছোট ভাই গজালিয়ার ইউপির সদ্য নির্বাচিত চেয়ারম্যান খালেদুল ইসলাম স্বপন, সাবেক চেয়ারম্যান এস. এম কুদ্দুস, মাওলানা মান্নান, মাওলানা নাসির ও এমপির ভাগিনা টিপু সালিশ বৈঠকে পরকীয়ার অভিযোগে রাবেয়াকে বেঁধে সন্তানের সামনে ব্যাপক মারধর করা হয়। পরে তার মাথা ন্যাড়া করে দেন তারা। খালেদুল ইসলাম স্বপন গলাচিপা উপজেলা যুবলীগের সভাপতি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকে অভিযোগ করেন, নির্বাচনী প্রতিহিংসায় স্বপন ঈর্ষান্বিত হয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

ইছাদি গ্রামের হাবিবুর রহমান রাঢ়ির স্ত্রী রাবেয়া ১ ছেলে ও ১ মেয়ের মা। রাবেয়ার সঙ্গে একই এলাকার ২ ছেলে ও ৩ মেয়ের বাবা মিজানুর রহমান রাঢ়ির অনৈতিক সম্পর্ক ছিল বলে অভিযোগ করা হয়েছে। তারই জের ধরে তাদের একসঙ্গে কথা বলতে দেখে স্বপনের অনুসারীরা ধরে নিয়ে যায়। এর পর গত শনিবার সন্ধ্যায় প্রহসনের সালিশের নাম করে গৃহবধূর হাত পা বেঁধে তার ওপর চালানো হয় নির্যাতন। একপর্যায়ে তার চুল কেটে ফেলা হয়। চেয়ারম্যান খালেদুল ইসলাম স্বপনের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ ব্যাপারে গলাচিপা থানার ওসি আবদুর রাজ্জাক জানান, নির্যাতিত নারী রাবেয়াকে থানা হেফাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। তবে মামলায় কাকে কাকে আসামি করা হয়েছে তা জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি। নারীর ছবি তুলতে গেলে তিনি সাংবাদিকদের বাধা দেন ও কোনো সাংবাদিককে তার সঙ্গে কথা বলতে দেননি। তবে এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার সৈয়দ মোশফিকুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, তিনি ঘটনাটি অবগত হয়েছেন। ঘটনাস্থলে পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়েছে। ঘটনার সত্যতা যাচাই করে অপরাধী যেই হোক না কেন তাকে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে