লোককাহিনির গল্পে ‘গুণজান বিবির পালা’

  সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলার ঐতিহ্যবাহী সাত ভাই চম্পা গল্প অবলম্বনে পদাতিক নাট্য সংসদের নাটক ‘গুণজান বিবির পালা’ মঞ্চস্থ হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে ছিল নাটকটির ২৫তম মঞ্চায়ন। নাট্য দলটির ৪১তম এ প্রযোজনাটির রচনা ও নির্দেশনায় ছিলেন তরুণ পালাকার ও নির্দেশক সায়িক সিদ্দিকী।

নাটকে অনেকটা অংশজুড়ে দেখা যায়, ঐতিহ্যবাহী পালার আঙ্গিকে গ্রামের আসরে আসরে বয়াতিদের এক শৈল্পিক নাট্য বয়ান। মহুয়া থেটার, একটি থিয়েটার দল। বিভিন্ন সমস্যার মধ্য দিয়ে যাদের পথচলা দীর্ঘদিনের। সেই দলের প্রধান একজন নাটক প্রেমিক। নাটকের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ করতে রাজি তিনি। দলটির একটি নাটক সাত ভাই চম্পা অবলম্বনে ‘গুণজান বিবির পালা’ নামে মঞ্চায়িত হবে। তবে নাটকটি মঞ্চে আনতে নানা সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে। শিল্পী ও অর্থ সংকটসহ সমকালীন থিয়েটার চর্চার সমূহ সংকট মূর্ত হয়ে ওঠে মহুয়া থেটারের সংকট বর্ণনার মধ্য দিয়ে।

নাটকের কাহিনিতে তুলে ধরা হয় এক আঁটকুড়ে রাজার লোককাহিনি সমকালীন বয়ান। পালাকারের বয়ানে গল্পের শুরু হয় আঁটকুড়ে দীঘল রাজা ও তার বন্ধ্যা ছয় রানীর কাহিনি দিয়ে। আঁটকুড়ে, অপয়া রাজার অপবাদ নিয়ে দীঘল রাজা ছদ্মবেশে বের হন প্রজাদের দুর্দশা দেখার জন্য। এ সময় রাজা মুখোমুখি হন সুতীব্র অপমানের। ঠিক তখনই দৈববাণী আসে। সপ্তম রানীর মাধ্যমে সন্তান লাভ করবে রাজা। রাজগৃহে সপ্তম রানী হয়ে আসে কাঠুরিয়াকন্যা গুণজান বিবি। এক এক করে সাত পুত্র ও এক কন্যার জন্ম দিলেও ছয় রানীর কুটিলতায় সে খবর পৌঁছায় না রাজার কানে। মালির ঘরে বেড়ে ওঠা রাজকন্যা একদিন রাজার আসরে এসে সব সত্য প্রকাশ করে।

নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন মমিনুল হক দীপু, মশিউর রহমান, সাঈদা শামছি আরা, জয় ম-ল, পুষ্প, জিনিয়া আজাদ, সালমান শুভ, আবু নাসেম লিমন, মো. ইমরান খাঁন, তাসমী চৌধুরী, জিতু, শরীফুল ইসলাম, আবু সাইদ, জবা, পৃথা, আকাশ, শারমিন প্রমুখ।

 

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে