আমাদের সময়কে বাণিজ্যমন্ত্রী

পণ্যের মান উন্নয়নে পদক্ষেপ নেওয়া হবে

  আবু আলী

১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাণিজ্যমেলা শুধু মেলা নয়, আনন্দ-বিনোদনেরও ব্যাপার। বহু দূরদূরান্ত থেকে মেলায় মানুষ আসেন। এ জন্য মেলায় যেসব বৈচিত্র্য আছে, মানুষের কাছে তা তুলে ধরার প্রয়োজন রয়েছে। ২০২১ সালের মধ্যে রপ্তানি আয় ৫০ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করার পরিকল্পনা রয়েছে। এ লক্ষ্যে পণ্যের মান উন্নয়নের পাশাপাশি উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি, পণ্যের ব্র্যান্ডিং এবং সেগুলোকে আরও আকর্ষণীয় করে তোলার ব্যাপারে বাস্তবমুখী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। আমাদের সময়ের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা পূরণের পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ানো, উৎপাদন বহুমুখীকরণ, নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি ও অঞ্চলভিত্তিক উন্নয়নেও কাজ করা হচ্ছে। বিশেষ করে যে অঞ্চলে যে পণ্য ভালো হয়, সেখানে সেই পণ্যের আরও উন্নতি কীভাবে করা যায়, তা নিয়ে কাজ করা হবে। অন্যদিকে রপ্তানি আয়ের মূল চালিকাশক্তি গার্মেন্টস খাত নিয়েও কাজ করতে হবে। চামড়া ও ওষুধশিল্প ভালো করছে। তাই একে একে সব খাত নিয়ে কাজ করা হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, আগামী বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে পূর্বাচল প্রকল্পের কাজ শেষ করে সেখানে মেলার আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। আশা করছি, পূর্বাচলের প্রকল্প সম্পন্ন হলে সেখানে সোর্সিং ফেয়ারের আয়োজন করা হবে। সেখানে বিশ্বের বড় ব্র্যান্ডগুলোর সঙ্গে দেশের ব্র্যান্ডগুলো প্রতিযোগিতা করবে।

বৈদেশিক বাণিজ্য প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ১০ বছরে বাণিজ্যে অনেক উন্নতি হয়েছে। এখন আমাদের লক্ষ্য চীন ও ভারতের বাজার ধরা। এ দুটি দেশ আড়াইশ কোটি মানুষের দেশ। আশা করছি যদি এ দুই দেশের বাজার ধরতে পারি, তা হলে রপ্তানিতে আমাদের লক্ষ্য পূরণ হবে। পাশাপাশি ইন্দোনেশিয়া ২৫ কোটি মানুষের দেশ। সেখানে আমরা রপ্তানি বাণিজ্য বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছি। এটি সফল হলে আমাদের বাণিজ্য ঘাটতি কমে আসবে।

  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ

ই-পেপার

সর্বাধিক পঠিত

  • অাজ
  • সপ্তাহে
  • মাসে